পাঞ্জাব ক্রিকেট সংস্থা আইএস বিন্দ্রা স্টেডিয়াম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পাঞ্জাব ক্রিকেট সংস্থা স্টেডিয়াম
pca
LightsMohali.png
স্টেডিয়ামের দৃশ্যপট
স্টেডিয়ামের তথ্যাবলী
অবস্থানসেক্টর ৬৩, এস.এ.এস. নগর (মোহালি), চণ্ডিগড়
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৯৩
ধারন ক্ষমতা২৬,০০০[১]
স্বত্ত্বাধিকারীপাঞ্জাব ক্রিকেট সংস্থা
অন্যান্যপাঞ্জাব ক্রিকেট দল (১৯৯৩-বর্তমান)
কিংস ইলাভেন পাঞ্জাব (২০০৮-বর্তমান)
প্রান্ত
প্যাভিলিয়ন এন্ড
সিটি এন্ড
আন্তর্জাতিক তথ্যাবলী
প্রথম টেস্ট১০-১৪ ডিসেম্বর ১৯৯৪: ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টেস্ট৫-৯ নভেম্বর ২০১৫: ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
প্রথম ওডিআই২২ নভেম্বর ১৯৯৩: ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ ওডিআই১৯ অক্টোবর ২০১৩: ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া

পাঞ্জাব ক্রিকেট সংস্থা আইএস বিন্দ্রা স্টেডিয়াম (পাঞ্জাবি: ਪੰਜਾਬ ਕ੍ਰਿਕੇਟ ਐਸੋਸੀਏਸ਼ਨ ਆਈਐਸ ਬਿੰਦਰਾ ਸਟੇਡੀਅਮ) চণ্ডিগড়ের কাছে মোহালিতে অবস্থিত ভারতের আন্তর্জাতিকমানের স্টেডিয়াম। পাঞ্জাবের বাথিন্ডা এলাকায় বিসিসিআই কর্তৃক পাঞ্জাবের দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম হিসেবে রয়েছে বাথিন্ডা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম। স্টেডিয়াম নির্মাণে প্রায় ২৫ কোটি রূপী ব্যয়িত হয় ও নির্মাণ কার্য সম্পন্ন করতে ৩ বছর সময় লেগে যায়।[২] মোট ২৬,৯৫০জন দর্শকের আসন রয়েছে এখানে।[৩] অরুণ লুম্বা এন্ড অ্যাসোসিয়েটস কর্তৃক স্টেডিয়ামের নকশা এবং আর.এস. কনস্ট্রাকশন কর্তৃক অবকাঠামো নির্মিত হয়েছে।[৪] পাঞ্জাব দলের পাশাপাশি আইপিএলে মোহালির নিজ মাঠ হিসেবে কিংস ইলাভেন পাঞ্জাব ব্যবহার করে থাকে। কাছাকাছি চণ্ডিগড় বিমানবন্দরের অবস্থান থাকায় অন্যান্য স্টেডিয়ামের তুলনায় ফ্লাডলাইটের খুঁটিগুলো খাঁটো প্রকৃতির।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২২ নভেম্বর, ১৯৯৩ তারিখে হিরো কাপ প্রতিযোগিতায় ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার ওডিআই আয়োজনের মাধ্যমে এর শুভ উদ্বোধন ঘটে। পরের মৌসুমে ১০ ডিসেম্বর, ১৯৯৪ তারিখে ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার টেস্ট খেলা প্রথমবারের মতো আয়োজিত হয় এখানে। ১৯৯৬ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার শ্বাসরুদ্ধকর সেমি-ফাইনালের সমাপ্তি ঘটেছিল। ২০১১ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের ৩টি খেলা পিসিএ স্টেডিয়ামে হয়েছিল। তন্মধ্যে ৩০ মার্চ, ২০১১ তারিখে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যকার ২য় সেমি-ফাইনালে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্বাভাবিকরণের উদ্দেশ্যে উভয় দেশের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংইউসুফ রাজা গিলানি উপস্থিত ছিলেন। ঐ খেলায় ভারত জয়লাভ করে।

রেকর্ডসমূহ[সম্পাদনা]

  • সর্বাধিক টেস্টে দলগত রান: ৬৩০/৬ডি., নিউজিল্যান্ড ব ভারত, ২০০৩-০৪
  • সর্বনিম্ন টেস্টে দলগত রান: ৮৩, ভারত ব নিউজিল্যান্ড, ১৯৯৯-০০
  • ওডিআইয়ে সর্বাধিক দলগত রান: ৩৫১/৫, দক্ষিণ আফ্রিকা ব নেদারল্যান্ডস, ২০১১
  • ওডিআইয়ে সর্বনিম্ন দলগত রান: ৮৯, পাকিস্তান ব দক্ষিণ আফ্রিকা, ২০০৬
  • টি২০আইয়ে সর্বাধিক দলগত রান: ২১১/৪, ভারত ব শ্রীলঙ্কা, ২০০৯-১০
  • টি২০আইয়ে সর্বনিম্ন দলগত রান: ২০৬/৭, শ্রীলঙ্কা ব ভারত, ২০০৯

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.iplt20.com/venues/9/punjab-cricket-association-stadium
  2. [১] আর্কাইভকৃত [তারিখ অনুপস্থিত] at punjabnewsline.com [ত্রুটি: আর্কাইভের ইউআরএল অজানা]
  3. "Indian Premier League 2010 Venues"। iplt20.com। 
  4. Basu, Rith (১৩ জুলাই ২০০৮)। "Eden makeover"The Telegraph। Calcutta, India। সংগ্রহের তারিখ ৪ নভেম্বর ২০১১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

স্থানাঙ্ক: ৩০°৪১′২৭.০৯″ উত্তর ৭৬°৪৪′১৪.১৩″ পূর্ব / ৩০.৬৯০৮৫৮৩° উত্তর ৭৬.৭৩৭২৫৮৩° পূর্ব / 30.6908583; 76.7372583