পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়ন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পশ্চিম আমুড়া
ইউনিয়ন
৯নং পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়ন পরিষদ।
পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবন।
পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবন।
পশ্চিম আমুড়া সিলেট বিভাগ-এ অবস্থিত
পশ্চিম আমুড়া
পশ্চিম আমুড়া
পশ্চিম আমুড়া বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
পশ্চিম আমুড়া
পশ্চিম আমুড়া
বাংলাদেশে পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়নের অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৪°৫০′২৮″ উত্তর ৯২°০৩′০৯″ পূর্ব / ২৪.৮৪১১০৬° উত্তর ৯২.০৫২৬২৫° পূর্ব / 24.841106; 92.052625স্থানাঙ্ক: ২৪°৫০′২৮″ উত্তর ৯২°০৩′০৯″ পূর্ব / ২৪.৮৪১১০৬° উত্তর ৯২.০৫২৬২৫° পূর্ব / 24.841106; 92.052625
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগসিলেট বিভাগ
জেলাসিলেট জেলা
উপজেলাগোলাপগঞ্জ উপজেলা উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
সাক্ষরতার হার
 • মোটশিক্ষার হার: ৭৭%। [১]
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
৬০ ৯১ ৩৮ ১৩
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়ন বাংলাদেশের সিলেট জেলার গোলাপগঞ্জ উপজেলার অন্তর্গত একটি ইউনিয়ন[১][২]

অবস্থান[সম্পাদনা]

গোলাপগঞ্জ উপজেলার পূর্বকোনে অবস্থিত। সিলেট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল হতে জকিগঞ্জ রোড হয়ে গোলাপগঞ্জ আসার পর শিকপুর রোডে আঁকাবাকা সড়কে গ্রাম্য সবুজ পরিবেশের মধ্য দিয়ে আমনিয়া বাজার সংলগ্ন কদমরসুল গ্রামে ইউনিয়ন পরিষদ ভবনটি অবস্থিত। [২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৬৭ সালে আমুড়া ইউনিয়ন পরিষদটি কুশিয়ারার দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পূর্ব আমুড়া , পশ্চিম আমুড়া নামে দুইটি ইউনিয়নে আত্ম প্রকাশ করে। পূর্ব আমুড়া ইউনিয়নটি ১৯৭৭ ইং সনে ০৫নং বুধবারী বাজার ইউনিয়ন পরিষদ নামে নাম পরিবর্তন হয়। এই ইউনিয়নটির নাম পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়ন থেকে যায়। এটি ১৯৭২সনে স্থাপিত হয়। [৩]

গ্রাম ও মৌজা[সম্পাদনা]

মৌজারনাম: আমনিয়া, আমুড়া, শিলঘাট, কদমরসুল। গ্রাম সমূহ: আমুড়া, নয়াটুল, ঘাগুয়া, সুন্দিশাইল, ইসলামটুল, ডামপাল, আমনিয়া, কদমরসুল, ধারাবহর, শিলঘাট, বিয়ামারা, সোনার পাড়া, শিলঘাট, শিকপুর, লম্বাগাঁও। [১]

আয়তন[সম্পাদনা]

২১.৮৪বর্গ কিঃমিঃ। [১]

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

সর্বমোট ২১,০১০জন। এরমধ্যে পুরুষের সংখ্যা ১৪৫০৮জন এবং স্ত্রীলোকের সংখ্যা ৬,৫০৮জন। [১][২]

হাট-বাজার[সম্পাদনা]

কদমরসুল, আমনিয়া বাজার, আমুড়া বাজার। [১]

শিক্ষা প্রতিষ্ঠাণ[সম্পাদনা]

সাক্ষরতার হারঃ- ৭৭% [১]

  • প্রাথমিক বিদ্যালয়েরঃ ১০টি;
  • মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যাঃ ০২টি;
  • মাদ্রাসার সংখ্যাঃ কওমী- ৬টি।

উল্লেখযোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠাণঃ-

  1. ড. সৈয়দ মকবুল হোসেন (লেচু মিয়া) উচ্চ বিদ্যালয়
  2. জামেয়া মাদানিয়া আমুড়া ডামপাল মাদ্রাসা
  3. সুন্দিশাইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়।
  4. কদমরসুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।
  5. ঘাগুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ।

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

কদমরসুল পার্ক [১]

নদী ও খাল/বিল[সম্পাদনা]

সিলেটের ঐতিহাসিক কুশিয়ারা নদী

কুশিয়ারা নদী,ভেটুখাল,মাকড়ি বিল,এরাল বিল,কুইয়া বিল,বিয়ামারা বিল। [১]

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]