পল ওয়াইজম্যান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পল ওয়াইজম্যান
ক্রিকেট তথ্য
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা ২৫ ১৫
রানের সংখ্যা ৩৬৬ ৪৫
ব্যাটিং গড় ১৪.০৭ ২২.৫০
১০০/৫০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৩৬ ১৬
বল করেছে ৫৬৬০ ৪৫০
উইকেট ৬১ ১২
বোলিং গড় ৪৭.৫৯ ৩০.৬৬
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ৫/৮২ ৪/৪৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১১/- ২/-
উৎস: ক্রিকইনফো, ২৪ নভেম্বর ২০১৭

পল জন ওয়াইজম্যান (ইংরেজি: Paul Wiseman; জন্ম: ৪ মে, ১৯৭০) অকল্যাণ্ডে জন্মগ্রহণকারী বিশিষ্ট নিউজিল্যান্ডীয় সাবেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। দলে তিনি মূলতঃ অফ স্পিন বোলারের দায়িত্ব পালন করতেন পল ওয়াইজম্যান। ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে নীচের সারিতে ব্যাটিংয়ে নামতেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

‘ওইজ’ ডাকনামে পরিচিত পল ওয়াইজম্যান লং বে কলেজে অধ্যয়ন করেন। নিখুঁত লাইন ও লেন্থ সহযোগে বলকে ব্যাপকভাবে ঘুরাতে সক্ষমতা দেখান। বিভিন্নমানের বল ডেলিভারী ও উচ্চমানের মিতব্যয়ী বোলিং রেটের জন্য তার সবিশেষ পরিচিতি রয়েছে। ড্যানিয়েল ভেট্টোরি’র তুলনায় নয় বছরের জ্যেষ্ঠ হওয়া স্বত্ত্বেও তিনি বামহাতি ফিঙ্গার স্পিনারের মর্যাদা পেয়েছেন। ক্যান্টারবারি দলের সদস্য ছিলেন তিনি। ক্রাইস্টচার্চে সেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্টসের বিপক্ষে ৯/১৩ পান যা যে-কোন নিউজিল্যান্ডীয় বোলারের দ্বিতীয় সেরা বোলিং পরিসংখ্যান হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯৯৮ সালে কলম্বোয় স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি পাঁচ উইকেট তুলে নেন ওয়াইজম্যান।[১]

২০০৫ সালে সেন্ট্রাল ল্যাঙ্কাশায়ার ক্রিকেট লীগে মিনরো দলের পক্ষে পেশাদার ক্রিকেট খেলেন। ২০০৬ সালে ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে ডারহামের সাথে সংযোগ রক্ষা করেন। বোল্টন ক্রিকেট লীগে ওয়াকডেনের পক্ষে খেলেন। দলের দ্বিতীয় একাদশের সদস্যরূপে ল্যাঙ্কাশায়ারের বিপক্ষে পেনাল্টিমেট চ্যাম্পিয়নশীপের খেলায় ২০০৬ মৌসুমে খেলেন। এছাড়াও তিনি পরবর্তী দুই মৌসুম চুক্তিবদ্ধ হন। কিন্তু, ২০০৯ সালের শেষদিকে ইয়ান ব্ল্যাকওয়েলগারেথ ব্রিজের ন্যায় স্পিনারের আবির্ভাবে দল থেকে উপেক্ষিত হচ্ছিলেন। ফলশ্রুতিতে ৩৯ বছর বয়সে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট থেকে অবসরের কথা ঘোষণা করেন।

অবসর[সম্পাদনা]

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার পর তিনি নিউজিল্যান্ডে প্রত্যাবর্তন করেন। অক্টোবর, ২০০৯ সালে ক্যান্টারবারি ক্রিকেটের নেটওয়ার্ক কোচ পদে নিযুক্ত হন। ২০০৯-১০ মৌসুমে জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় ক্যান্টারবারি অনূর্ধ্ব-১৭ ও অনূর্ধ্ব-১৯ দলের শিরোপা জয়ে ব্যাপক ভূমিকা রাখেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "1st Test: Sri Lanka v New Zealand at Colombo (RPS), May 27-31, 1998"espncricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১২-১৮ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]