পরমজিত কাউর গুলশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পরমজিত কাউর গুলশন
ফরিদকোট সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
২০০৯ – ২০১৪
পূর্বসূরীসুখবীর সিং বাদল
উত্তরসূরীসাধু সিং
ভাতিন্দা সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
২০০৪ – ২০০৯
পূর্বসূরীভান সিং ভাউরা
উত্তরসূরীহরসিমরত কাউর বাদল
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1949-01-04) ৪ জানুয়ারি ১৯৪৯ (বয়স ৭১)
আকালি জালাল, ভাতিন্দা, পাঞ্জাব, ভারত
রাজনৈতিক দলশিরোমণি অকালী দল
দাম্পত্য সঙ্গীনির্মল সিং
সন্তান২ কন্যা
বাসস্থানভাতিন্দা, পাঞ্জাব, ভারত
ধর্মশিখ

পরমজিত কাউর গুলশন (জন্ম: ৪ জানুয়ারি ১৯৪৯) একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ, যিনি শিরোমণি অকালী দলের রাজনীতির সাথে যুক্ত আছেন। তিনি দুইবার লোকসভা নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছিলেন।[১]

জন্ম[সম্পাদনা]

তিনি ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশের ভাতিন্দা জেলার আকালি জালাল গ্রামে ১৯৪৯ সালের জুন মাসের ৪ তারিখে জন্মগ্রহণ করেন।[১] তার পিতার নাম ধন্না সিং গুলশন এবং তারমায়ের নাম বসন্ত কাউর।[১]

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

তিনি পড়াশোনা করেছেন চন্ডিগড়ের পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয় এবং অমৃতসরের গুরু নানক দেব বিশ্ববিদ্যালয়ে[১] তিনি বিএড কোর্সে উত্তীর্ণ হয়েছিলেন। এছাড়াও, তিনি অর্থনীতি ও সমাজবিজ্ঞানে দুবার মাস্টার্স ডিগ্রি লাভ করেন।[১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৭৪ সালে তিনি সরকারি চাকরিতে যোগদান করেন। তিনি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সামাজিক বিজ্ঞানের শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। পাঞ্জাব প্রদেশের বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে তিনি কর্মরত ছিলেন। ২০০৪ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি সালে মোহালির সরকারি সিনিয়র মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা হিসেবে অবসরগ্রহণ করেন।[১]

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

সরকারি চাকরি থেকে অবসরগ্রহণের পর তিনি শিরোমণি আকালি দলে যোগ দেন। ২০০৪ সালে তিনি ভাতিন্দা থেকে লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হন। তিনি নির্বাচনে জয়লাভ করেন। তিনি লোকসভায় ডিলিমিটেশন বিষয়ক কমিটি, রেলওয়ে বিষয় কমিটি, মানবসম্পদ উন্নয়নবিষয়ক কমিটি এবং পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস মন্ত্রণালয়ের পরামর্শক কমিটির সদস্য ছিলেন।[১]

২০০৯ সালে তিনি ফরিদকোট থেকে লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হন। তিনি সেবার ৪৯.১৯% ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। সেবার তিনি লোকসভার তফসিলি জাতি ও উপজাতির উন্নয়ন বিষয়ক কমিটি, কৃষিবিষয়ক কমিটি ও আইনবিষয়ক কমিটির সদস্য হিসেবে কাজ করেছিলেন।[১]

২০১৪ সালে তিনি পুনরায় ফরিদকোট থেকে লোকসভা নির্বাচনে দাঁড়ালেও সেবার আম আদমি পার্টির প্রফেসর সাধু সিং এর নিকট পরাজিত হন।

২০১৯ সালে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তিনি ফরিদকোট থেকে প্রফেসর সাধু সিং এর বিরুদ্ধে পুনরায় লড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।[২]

অন্যান্য কর্মকাণ্ড[সম্পাদনা]

রাজনীতির পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে যুক্ত আছেন তিনি।[১] তিনি পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য নিবেদিতপ্রাণ একজন মানুষ। তিনি অনাথ ও প্রবীণ ব্যক্তিদের কাছের মানুষ। তিনি সামাজিক সংগঠন 'বাবা ফরিদ ক্লাব' এর সাথে যুক্ত আছেন। সংগঠনটি মাদকাসক্তি নির্মূল কেন্দ্র পরিচালনা করে। এছাড়াও সংস্থাটির উদ্যোগে বিনামূল্যে রক্তদান, বৃক্ষরোপণসহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ড পরিচালিত হয়।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

১৯৭৮ সালের জানুয়ারি মাসের ২২ তারিখে তিনি নির্মল সিং এর সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।[১] তাদের দুইটি মেয়ে আছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]