পঞ্চম বৈদিক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Pancham Vaidic
Pancham Baidik visual identification.png
ধরননাট্যদল
অবস্থান
শিল্পী পরিচালক
Saoli Mitra Arpita Ghosh

পঞ্চম বৈদিক কলকাতার (পশ্চিম বেঙ্গল)একটি বাঙালি নাট্যদল যা শাওলি মিত্র ও অর্পিতা ঘোষ কর্তৃক পরিচালিত হয়। ভারতীয় দুইজন বিখ্যাত নাট্যকার শম্ভু মিত্রতৃপ্তি মিত্র এই নাট্যদলের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন। নাট্যদলটির প্রথম নাটকটি ছিল নাৎবতী অনাথবৎ যা ১৯৮৩ সালে মঞ্চে প্রদর্শন করা হয়। এটি সেসময় যথেষ্ট খ্যাতি অর্জন করে এবং পরবর্তীতে হিন্দি ভাষায়ও নাটকটি মঞ্চায়িত করা হয়। [১][২]

প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

১৯৮৪ সালে পঞ্চমবেদ চর্য্যাশ্রম নামে পঞ্চম বৈদিক একটি থিয়েটার প্রতিষ্ঠান চালু করে। শিক্ষার্থীদের এখানে নাটক সম্বন্ধনীয় সকল শিক্ষা প্রদান করা হয়। যেমনঃ বডি ল্যাংগুয়েজ, কথা বলার ভঙ্গি ইত্যাদি। উক্ত প্রতিষ্ঠান প্রশিক্ষণের জন্য কোনোরূপ অর্থ গ্রহণ করে না।

উল্লেখযোগ্য নাটকসমূহ[সম্পাদনা]

  • নাথবতী অনাথবৎ
  • আমোদিত রোদ্দুরঃ বর্তমান সময়ের কৃত্তিম ভালোবাসার প্রেক্ষিতে নাটকটি রচিত হয়।
  • মাছিঃ ফরাসি দার্শনিম জিন পল সার্তে এর "দ্য ফ্লাইস" নামক নাটক অবলম্বনে মাছি নাটক তৈরি হয়।
  • স্ত্রীর পাত্রঃ স্বামীর কাছে স্ত্রী মৃণালের লেখা চিঠি নিয়ে এ নাটকের ভিত রচিত।
  • সমাধানঃ এটি জার্মান নাট্যকার বার্টলট ব্রেক্ট এর রচিত নাটক "দ্য মিজার্স টেকেন" এর বাংলা অনুবাদ।
  • কারুবাসনাঃ ছবি, চিত্রকলা ও কারুকার্যের প্রতি তীব্রভাবে আসক্ত একজন ব্যক্তির জীবনী নিয়ে এ নাটকটি রচিত। নাটকটি জীবনানন্দ দাশের উপন্যাস হতে অনুপ্রাণিত।
  • দুটো দিনঃ একাকী মানুষের বেদনা, হতাশা, নিরাপত্তাহীনতা ও অর্থহীন জীবন নিয়ে এ নাটকটি রচিত।
  • শেষ সূত্রঃ নাটকটি আমেরিকান নাট্যকার রেজিনাল্ড রোজের " টুয়েলভ এংরি ম্যান" নাটকের বাংলা অনুবাদ।
  • অস্তমিত মধ্যাহ্নঃ জার্মান উপন্যাস "সনেনফিন্সট" (ইংরেজিঃ ডার্কনেস অ্যাট নুন) ভিত্তি করে নাটকটি রচিত হয়েছে।
  • আঁচলায়তনঃ স্বাভাবিক জীবনের বিভিন্ন বাঁধা বিপত্তির প্রেক্ষিতে এই নাটকটি রচিত।
  • অপরাজিতাঃ তিনটি গল্পের মিলিত নাটক এটি। এখানে তিনটি গল্পের চরিত্র প্রাধান্য পেয়েছে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের তৈরি ছোটগল্প "অপরিচিতা" এর কল্যাণী, "হৈমন্তী" এর হৈমন্তী এবং "স্ত্রীর পাত্র" এর মৃণাল। [৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Mazumdar, Jaideep (২ জুন ২০০৮)। "Exeunt..."Outlook India। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৮ 
  2. "Theatre of absurd: gag act replay after 37 years"Times of India। ১৬ মার্চ ২০১১। ৩ জানুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১২ 
  3. panchamvaidic.org/production