নির্মাণের তারকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নির্মাণের তারকা
শাহ সিমেন্ট নির্মাণের তারকা অনুষ্ঠানের একটি দৃশ্য.jpg
রিয়াজ, মমতাজ, এস আই টুটুল, ফাতেমা-তুজ-জোহরা ও তিনা অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে ২০১০
উপস্থাপকরিয়াজ-মুসফিকা তিনা
সুরকারএস আই টুটুল
মূল দেশবাংলাদেশ
মৌসুমের সংখ্যা১ (টিভি পর্ব ২৩)
বিশেষ পর্ব ১ (ঈদুল ফিত্‌র)
নির্মাণ
ব্যাপ্তিকাল৫৫ মিনিট
নির্মাণ কোম্পানিশাহ সিমেন্ট ইন্ডাস্ট্রিজ লি:[১]
পরিবেশকএটিএন বাংলা
মুক্তি
মূল নেটওয়ার্কএটিএন বাংলা[২]
প্রথম প্রকাশ২০০৯

নির্মাণের তারকা বাংলা সঙ্গীতের একটি প্রতিভা অন্বেষণ প্রতিযোগিতা।[১] নির্মাণের তারকা মূলত সারাদেশ থেকে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ শ্রমিকদের মধ্য থেকে সঙ্গীত প্রতিভা অন্বেষণ করা হয়।[১] অনুষ্ঠান আয়োজনের পুরোটা জুড়ে মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল উপগ্রহ ভিত্তিক টিভি চ্যানেল এটিএন বাংলা[২] এই অনুষ্ঠানটি টেলিভিশন উপস্থাপনা করেন চলচ্চিত্র অভিনেতা রিয়াজ ও তার স্ত্রী তিনা[৩]

নিয়ম[সম্পাদনা]

নির্মাণের তারকা প্রথম প্রতিভা অন্বেষণ শুরু হয় জেলা পর্যায় থেকে।[৪] প্রাথমিক নির্বাচন জন্য সারাদেশ ২৫টি অঞ্চলে বিভক্ত করা কয়।[৪] এবং প্রতি জেলার প্রথম স্থান অধিকারী প্রতিযোগীরা সুযোগ পায় বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতিযোগীতায় অংসগ্রহণ করার।[৪] এরপর বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতিযোগীতার বিজয়ীসহ আংশিক জাতীয় পর্যায়ে প্রতিদন্দিতা করার সুযোগ পায়।[৪] জাতীয় পর্যায়ে যাচাই বাছাই শেষে শীর্ষ পনের প্রতিযোগীকে নিয়ে শুরু হয় টিভি পর্ব। এই পনের জনের মধ্যে থেকে নয়জন বাদ পড়ে এবং বাকি ছয় প্রতিযোগীকে নিয়ে শুরু হয় গ্র্যান্ড ফাইনাল।

বিচারক মন্ডলী[সম্পাদনা]

নির্মাণের তারকা প্রতিভা অন্বেষণ শুরু হয় ১৫ জুন ২০০৯ থেকে।[২] প্রতিযোগিতার প্রাথমিক অডিশনে প্রতিভা যাচাই বাছাইয়ের বিচারক ছিলেন ফকির আলমগীর, ফকির শাহাবুদ্দিন, পিয়ারু খান এবং শ্যামল বিশ্বাস[২] মূল পর্ব গুলোর জন্য তিনজন বিচারক ছিলেন, এঁরা হলেন বিখ্যাত নজরুল সঙ্গীত শিল্পী ফাতেমা-তুজ-জোহরা, বাউল সম্রাগী খ্যাত মমতাজ এবং তরুণ সঙ্গীত ব্যক্তিত্ব এস আই টুটুল[৫]

বিজয়ী[সম্পাদনা]

প্রতিযোগিতার শীর্ষ তিন বিজয়ী বনস্পতি মজুমদার, মোহাম্মদ সুমন ও শাহানা আক্তার।

নির্মাণ শ্রমিকদের জন্য প্রতিভা অন্বেষণমূলক প্রতিযোগিতা নির্মাণের তারকা এর চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেইমে।[৬] এতে প্রথম স্থান অধিকার করেন যশোরের ছেলে মোহাম্মদ সুমন। দ্বিতীয় স্থান টাঙ্গাইলের বনস্পতি মজুমদার এবং সুনামগঞ্জের শাহানা আক্তার তৃতীয় স্থান অধিকার করেন। ৭০ বছর বয়সী শফিকুল ইসলাম ছিলেন এই প্রতিযোগীতার বিশেষ প্রতিযোগী। অপর ৩ ফাইনালিস্ট মোশাররফ হোসেন, মোহাম্মদ ইশতিয়াক, মহিদুল সহ সেরা ১৫ জনের মধ্যে থাকা ৯ প্রতিযোগীকেও পুরস্কার প্রদান করা হয়।[৭]

বিজয়ীর অবস্থান বিজয়ীর নাম পরিমাণ টাকা অন্যান্য পুরস্কার মন্তব্য
প্রথম মোহাম্মদ সুমন টয়োটা এসিসটা গাড়ি দশ লক্ষ টাকা সম মূল্যের।
দ্বিতীয় বনস্পতি মজুমদার টাকা ৩,০০,০০০ মোটরসাইকেল নগদ তিন লক্ষ টাকা এবং একটি মোটরসাইকেল।
তৃতীয় শাহানা আক্তার টাকা ২,০০,০০০ মোটরসাইকেল নগদ দুই লক্ষ টাকা এবং একটি মোটরসাইকেল।
বিশেষ প্রতিযোগী শফিকুল ইসলাম মোটরসাইকেল ৭০ বছর বয়সী বৃদ্ধ।
ফাইনালিস্ট মোশাররফ হোসেন মোটরসাইকেল ছয়জন ফাইলালিস্ট এর একজন।
ফাইনালিস্ট মোহাম্মদ ইশতিয়াক মোটরসাইকেল ছয়জন ফাইলালিস্ট এর একজন।
ফাইনালিস্ট মহিদুল ইসলাম মোটরসাইকেল ছয়জন ফাইলালিস্ট এর একজন।
সেরা পনের জনের, নয়জন রঙিন টেলিভিশন ৯ প্রতিযোগীকে দেয়া হয় একটি করে ২১ ইঞ্চি রঙিন টেলিভিশন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Arts & Entertainment (জুন ৯, ২০০৯)। "New talent hunt for construction workers"দ্য ডেইলিস্টার। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ৩০, ২০১২ 
  2. Arts & Entertainment (জুন ১৭, ২০০৯)। "Shah Cement Nirman-er Taroka: Auditions held at Bogra"দ্য ডেইলিস্টার। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ৩০, ২০১২ 
  3. Arts & Entertainment (জানুয়ারি ১৯, ২০১০)। "Riaz and Tina: A perfect match on and off screen"দ্য ডেইলি স্টার। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ৩০, ২০১২ 
  4. Metro Desk (জুন ১৯, ২০০৯)। "Talent hunt programme for construction workers"দ্য ডেইলিস্টার। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ৩০, ২০১২ 
  5. স্টাফ রিপোর্টার (২২ নভেম্বর ২০০৯)। "নির্মাণের তারকা"দৈনিক আমার দেশ। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১২ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. আনন্দ প্রতিদিন (২৩ এপ্রিল ২০১০)। "'নির্মাণের তারকা'র চূড়ান্ত পর্ব আজ"দৈনিক সমকাল। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১২ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  7. স্টাফ রিপোর্টার (২৪ এপ্রিল ২০১০)। "শাহ সিমেন্ট নির্মাণের তারকা হলেন যশোরের সুমন"দৈনিক আমার দেশ। ঢাকা, বাংলাদেশ। ২৭ এপ্রিল ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]