নিতাই চন্দ্র সূত্রধর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নিতাই চন্দ্র সূত্রধর
১ম উপাচার্য, বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়
কাজের মেয়াদ
২২ ডিসেম্বর ২০১০ – ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫
উত্তরসূরীমাসউদ আহমদ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৯৫৪ (বয়স ৬৭–৬৮)
হবিগঞ্জ, সিলেট, পূর্ব পাকিস্তান
জাতীয়তাবাংলাদেশী
প্রাক্তন শিক্ষার্থীকলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়
লিডস বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাশিক্ষাবিদ, অধ্যাপক
ধর্মহিন্দু ধর্ম

নিতাই চন্দ্র সূত্রধর (জন্ম: ১৯৫৪) একজন বাংলাদেশী বস্ত্রপ্রকৌশলী, শিক্ষাবিদ ও অধ্যাপক। তিনি কলেজ অব টেক্সটাইল টেকনোলজিতে অধ্যক্ষ হিসেবে এবং বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১০ সালে কলেজ অব টেক্সটাইল টেকনোলজিকে বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তর করা হলে তিনি এর প্রথম উপাচার্য নিযুক্ত হন এবং প্রায় চার বছর এ দায়িত্ব পালন করেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

নিতাই চন্দ্র ১৯৫৪ সালে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমান বাংলাদেশ) সিলেট জেলার হবিগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন।[১]

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

নিতাই চন্দ্র কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ১৯৭০ সালে মাধ্যমিক ও ১৯৭২ সালে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হন। এরপর তিনি ভারতের কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে টেক্সটাইল প্রযুক্তি বিভাগে ভর্তি হন এবং ১৯৭৭ সালে সেখান থেকে ১ম শ্রেণিতে তৃতীয় হয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।[২]

১৯৮৬ সালে লিডস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। তার অভিসন্দর্ভের বিষয় ছিল দ্য স্টাডি অব রিং-স্পিনিং উইথ পার্টিকুলার রেফারেন্স টু রোটেটিং থিংস[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৭৯ সালের ২৯ মে নিতাই চন্দ্র কলেজ অব টেক্সটাইল টেকনোলজির ইন্সট্রাক্টর হিসেবে যোগদান করেন। এরপর ১৯৮১ সালে সহকারি অধ্যাপক, ১৯৯৩ সালে সহযোগী অধ্যাপক এবং ১৯৯৮ সালে অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পান। ১৯৯৯ সালে কলেজটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পান তিনি।[২]

২০০২ সালের জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনি কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক পদে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০২ সালের ১২ সেপ্টেম্বর তিনি কলেজ অব টেক্সটাইল টেকনোলজির অধ্যক্ষ নিযুক্ত হন। ২০০৭ সালের ১৭ মে তিনি বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ২০০৯ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি তিনি কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক নিযুক্ত হন।[২]

২০১০ সালের ১৯ ডিসেম্বর তাকে পুনরায় কলেজ অব টেক্সটাইল টেকনোলজিতে অধ্যক্ষ হিসেবে ফিরিয়ে আনা হয়। কিছুদিন পর কলেজটি বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তরিত হলে তিনি এর প্রথম উপাচার্য নিযুক্ত হন। ২০১৫ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তিনি এ দায়িত্ব পালন করেন।[২]

২০১৬ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত তিনি গ্রিন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের টেক্সটাইল প্রকৌশল বিভাগের উপদেষ্টা হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি থেকে তিনি উক্ত বিভাগের চেয়ারপার্সন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Prof Nitai first VC of textile university"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  2. "Prof. Dr. Nitai Chandra Sutradhar"গ্রিন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  3. "The study of ring-spinning with particular reference to rotating rings"ই-থিসিস অনলাইন সার্ভিস, ব্রিটিশ লাইব্রেরি (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২