নিক ভুইয়িচিচ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নিক ভুইয়িচিচ
জার্মানির একটি চার্চে ভুইয়টসিক বক্তব্য রাখছেন, এপ্রিল ২০১১
জার্মানির একটি চার্চে ভুইয়টসিক বক্তব্য রাখছেন, এপ্রিল ২০১১
জন্ম (1982-12-04) ৪ ডিসেম্বর ১৯৮২ (বয়স ৩৬)
মেলবোর্ন,অস্ট্রেলিয়া
পেশাধর্ম প্রচারক, প্রেরণাদায়ী বক্তা লাইফ উয়িদাউট লিম্বস এর পরিচালক
নাগরিকত্বঅস্ট্রেলিয়া Flag of Australia.svg
শিক্ষাডাবল ব্যাচেলর হিসাব বিজ্ঞানব্যবসায় পরিকল্পনাএ
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগ্রিফিথ ইউনিভার্সিটি
দাম্পত্যসঙ্গীকানায়ে মিয়াহারা
সন্তান[১]
ওয়েবসাইট
http://www.lifewithoutlimbs.org/

নিক ভুইয়টসিক (ইংরেজি: Nick Vujicic; জন্মঃ ডিসেম্বর ৪, ১৯৮২) একজন অস্ট্রেলিয়ান খ্রিস্টান ধর্মপ্রচারক এবং অনুপ্রেরণাদায়ী বক্তা।[২] বিরল টেট্রা-আমেলিয়া সিনড্রোম(ইংরেজি: Tetra-amelia syndrome) এর কারণে চার হাত-পায়ের অনুপস্থিতিতে তাঁর জন্ম হয়। স্বাভাবিকভাবেই এতে শিশুকাল থেকেই তাঁকে মানসিক ও দৈহিকভাবে সংগ্রাম করতে হয়। নিজের প্রতিবন্ধীতাকে জয় করে মাত্র ১৭ বছর বয়সে তিনি লাইফ উয়িদাউট লিম্বস নামে নিজের একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান শুরু করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

নিক ভুইয়টসিক ২১ বছর বয়সে গ্রিফিথ ইউনিভার্সিটি থেকে হিসাব বিজ্ঞান ও "ব্যবসা পরিকল্পনা" বিষয়ে ব্যাচেলর ডিগ্রী অর্জন করেন। পরবর্তীতে অনুপ্রেরণামূলুক বক্তব্য দিতে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ভ্রমণ করেন। তাঁর বক্তব্যে বয়ঃসন্ধিকালীন সময়ের সমস্যা বারবার উঠে এসেছে। তিনি পাঁচ উপমহাদেশের ষাটটি দেশে ঘুরে প্রায় ত্রিশ লাখ মানুষের কাছে নিজের বক্তব্য পৌঁছে দেন।[৩]

নিক নিজের কাজ টিভি শো এবং নিজের লেখার মাধ্যমে জনসাধারণের কাছে পৌঁছে দেন। ২০০৫ সালে নিজের দৈনন্দিন জীবনযাত্রার উপর ভিত্তি করে তিনি "Life's Greater Purpose" নামে একটি ডক্যুমেন্টারি চলচ্চিত্রের ডিভিডি বাজারে ছাড়েন। ২০১০ সালে তাঁর রচিত প্রথম বই "Life Without Limits: Inspiration for a Ridiculously Good Life" প্রকাশিত হয়। এছাড়াও যুব সমাজকে লক্ষ্য করে "No Arms, No Legs, No Worries!" নামের একটি ডিভিডি প্রকাশ করেন।[৪]

দ্যা বাটারফ্লাই সার্কাস (ইংরেজি: The Butterfly Circus) নামের একটি চলচ্চিত্রে "নিক ভুইয়টসিক" অভিনয় করেছেন। চলচ্চিত্রটি ২০০৯ সালে "Doorpost Film Project's" এ প্রথম পুরস্কার অর্জন করে।

পদক[সম্পাদনা]

"দ্যা বাটারফ্লাই সার্কাস" চলচ্চিত্রটিতে "উইল" চরিত্রে অনবদ্য অভিনয় করার জন্য ২০১০ সালে "নিক ভুইয়টসিক" "Method Fest Independent Film Festival" এ সেরা অভিনেতা পদক লাভ করেন।[৫] ২০০৫ সালে যুব অস্ট্রেলিয়ান অব দ্যা ইয়ার পুরষ্কারের জন্য তিনি মনোনয়ন লাভ করেন।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. খ্রিস্টিয়ান টুডেতে প্রকাশিত নিবন্ধ
  2. লাইফ উইদাউট লিম্বস ওয়েবসাইটে নিকের বায়োগ্রাফি
  3. "attitudisaltitude.com এ নিকের বায়োগ্রাফি"। ১৪ মে ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  4. আমাজন ডট কমে নিক ভুইয়টসিকের ডিভিডি
  5. methofest.com এ প্রকাশিত খবর
  6. আইবিটাইমস এ প্রকাশিত নিবন্ধ

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]