নিকোলাস পেপে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নিকোলাস পেপে
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম নিকোলাস পেপে
জন্ম (1995-05-29) ২৯ মে ১৯৯৫ (বয়স ২৪)
জন্ম স্থান ম্যান্টেস-ড়া-জোলি, ফ্রান্স
উচ্চতা ১.৮৩ মিটার (৬ ফুট ০ ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান উইঙ্গার
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব লিলিই
জার্সি নম্বর ১৯
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
২০১২–২০১৩ পইটার্স (২)
২০১৩–২০১৫ এঞ্জার্স II ৪১ (৯)
২০১৩–২০১৭ এঞ্জার্স ৪০ (৩)
২০১৫–২০১৬ওলিনার্স (ধারে) ২৯ (৭)
২০১৭– লিলিই ৪৩ (১৯)
জাতীয় দল
২০১৬– আইভোরি কোস্ট (৩)
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে এবং ১১ অক্টোবর ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল ২৮ মার্চ ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

নিকোলাস পেপে (জন্ম ২৯ মে ১৯৯৫) হলেন জন্মসূত্রে ফরাসি একজন আইভরিয়ান পেশাতার ফুটবলার যিনি একজন উইঙ্গার হিসেবে ফরাসি ফুটবল ক্লাব লিলিই-এ খেলে থাকেন।

ক্লাব খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

নিচের স্তরের লিগে অভিষিক্ত হওয়ার পর, ২০১৪ সালের নভেম্বর মাসে পেপে ফরাসি দ্বিতীয় স্তরের পেশাদার লিগ লিগ ট্যু-এ তার দল এঞ্জার্স-এর হয়ে আরেক ফরাসি ক্লাব আজাচ্চিও-এর বিরুদ্ধে ১-১ গোলে ড্র হওয়ার ম্যাচ দিয়ে পেশাদার খেলোয়াড় হিসেবে অভিষেক ঘটান। [১][২]

লিলিই[সম্পাদনা]

২০১৭ সালের ২১শে জুন, পেপে ফরাসি ফুটবল ক্লাব লিলিই-এর সাথে পাচঁ বছরের একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।[৩]

২০১৮ সালের ১৫ই সেপ্টেম্বর, পেপে ফ্যান্সের প্রথম সারির পেশাদার লিগ লিগ ওয়ান-এ এমিয়েন্স এসসি-এর বিরুদ্ধে খেলায় হ্যাট-ট্রিক করেন, যেখানে অন্য মাঠে হওয়া খেলাটিতে ৩-২ গোলে জয়লাভ করেন, তার করা তিনটি গোলের মধ্যে দুটি আসে প্যানাল্টি থেকে।[৪]

আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

পেপে, আইভোরিয়ান বংশধর পিতা-মাতার পরিবারে ফ্রান্সে জন্মগ্রহণ করেন। ২০১৬ সালের নভেম্বর মাসে তিনি আইভোরি কোস্ট জাতীয় দল-এ খেলার জন্য একটি প্রস্তাব পান।[৫] ২০১৬ সালের ১৫ই নভেম্বর, তিনি তার জন্মসূত্র দেশ ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল-এর বিপক্ষে হওয়া বন্ধুত্বপূর্ণ খেলায় আইভোরি কোস্টের হয়ে অভিষিক্ত হন, খেলাটি ০-০ গোলে ড্র হয়।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "AC Ajaccio vs. Angers SCO" (French ভাষায়)। lfp.fr। ২১ নভেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০১৫ 
  2. "Nicolas Pépé, le juvénile atout offensif du Sco" (French ভাষায়)। ouest-france.fr। ২৪ নভেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০১৫ 
  3. "Nicolas Pépé et Hervé Koffi signent au Losc pour cinq ans (off.)" (French ভাষায়)। L'Équipe। ২১ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 
  4. "Pepe hat-trick lifts Lille into second"। www.ligue1.com। ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮। 
  5. FIFA.com। "2018 FIFA World Cup Russia™ - Matches - Morocco-Côte d'Ivoire - FIFA.com"FIFA.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৪-০৬ 
  6. uefa.com। "Friendlies 2014-16 - France-Ivory Coast – UEFA.com"Uefa.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৪-০৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]