নিকেলোডিয়ন (পাকিস্তান)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নিকেলোডিয়ন
Nick.svg
বর্তমান লোগো ২০০৯ সাল থেকে ব্যবহৃত
উদ্বোধন২৩ নভেম্বর ২০০৬; ১৫ বছর আগে (2006-11-23)
মালিকানাএআরওয়াই ডিজিটাল নেটওয়ার্ক
চিত্রের বিন্যাস৫৭৬আই এসডিটিভি
দেশ পাকিস্তান
ভাষাইংরেজি
উর্দু
প্রচারের স্থান পাকিস্তান
 বাংলাদেশ (পূর্বে)
প্রধান কার্যালয়করাচি, সিন্ধু, পাকিস্তান
ভ্রাতৃপ্রতিম
চ্যানেল(সমূহ)
এআরওয়াই কিউটিভি
এআরওয়াই জিন্দেগী
এআরওয়াই ডিজিটাল
এআরওয়াই নিউজ
এআরওয়াই মিউজিক
এ স্পোর্টস
প্রাপ্তিস্থান
কৃত্রিম উপগ্রহ
এশিয়াস্যাট ৭frq. 4060 V

নিকেলোডিয়ন পাকিস্তান (উর্দু: نکلوڈین‎‎) হচ্ছে একটি পাকিস্তানি শিশুতোষ টেলিভিশন চ্যানেল। চ্যানেলটির মালিক হচ্ছে এআরওয়াই ডিজিটাল নেটওয়ার্ক, যেটার স্বত্ব প্যারামাউন্ট নেটওয়ার্কস থেকে নেয়।[১] এটি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক নিকেলোডিয়নের পাকিস্তানি ফিড।

এশিয়াস্যাট ৭ স্যাটেলাইটের মাধ্যমে নিকেলোডিয়ন পাকিস্তানের অনুষ্ঠান দেশজুড়ে দেখা যায়। চ্যানেলটির যাত্রা ২০০৬ সালের ২৩ নভেম্বরে শুরু হয়। নিকেলোডিয়ন পাকিস্তানের অনুষ্ঠান বেশিরভাগ ইংরেজিতে প্রচারিত হয়, কিন্ত এটির কিছু অনুষ্ঠান উর্দুতে প্রচারিত হয় অথবা উর্দু সাবটাইটেলেও দেখা যায়। নেটওয়ার্কটি বর্তমানে শুধু পাকিস্তানে উপলব্ধ, এবং পূর্বে বাংলাদেশেও দেখা যেতো।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

স্থানীয় পাকিস্তানি নিকেলোডিয়ন ফিডের উদ্বোধনের পূর্বে পাকিস্তানে ভারতীয় ফিড প্রদান করে হয়েছিল। কিন্তু ২০০৬ সালের ২৩ নভেম্বরে যখন এআরওয়াই ডিজিটাল নেটওয়ার্ক ভায়াকমের সাথে একটি ব্র্যান্ড লাইসেন্সিং চুক্তির সাথে নিকেলোডিয়নের পাকিস্তানি ফিড উদ্বোধন করে, নিকেলোডিয়ন ভারত পাকিস্তানে সম্প্রচার করা বন্ধ করে। মূলে এটি ইংরেজি ভাষায় সম্প্রচার করে, সাথে উর্দুতে ডাব না হয়ে কিছু অনুষ্ঠান হিন্দিতে সম্প্রচার হয়েছিল। এটির কারণে ২০১৬ সালে পেমরা নিকেলোডিয়নের লাইসেন্স স্থগিত করে, কিন্তু পরে চ্যানেলটি সম্প্রচারে আবার ফিরে আসে।[২]

২০১০ সালে নিকেলোডিয়ন পাকিস্তান নেটওয়ার্কের বর্তমান বিশ্বজুড়ের ইমেজিং ব্যবহার করে শুরু করে, সাথে এটির লোগো পরিবর্তন করে। ২০২১ সালের প্রথম দিকে নিকেলোডিয়ন পাকিস্তানের ওয়েবসাইট বন্ধ হয়ে যায়, সম্ভবত এটি বন্ধ অ্যাডোবি ফ্ল্যাশ গ্রাফিক্স/ভিডিও ফরম্যাটকে ব্যাপকভাবে ব্যবহার করেছে, এবং সম্পূর্ণ নতুন আধুনিক ওয়েবসাইট তৈরি করার চেয়ে নেটওয়ার্কের ফেসবুক পেজটি ব্যবহার করা আরও সাশ্রয়ী বলে মনে করা হয়েছিল। ২০২২ সালের ১ এপ্রিলে নিকেলোডিয়ন পাকিস্তান এটির অনুষ্ঠানসমূহ উর্দুতে ডাবিং করা প্রাতিষ্ঠানিকভাবে শুরু করেছে।[৩]

বির্তকসমূহ[সম্পাদনা]

২০০৫ সালে পাকিস্তান বৈদ্যুতিক গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ কিছু টেলিভিশন চ্যানেল বন্ধ করার সংক্রান্ত আদেশ জারি করেছে যা উর্দুতে ডাব করা অথবা সাবটাইটেল না দেখিয়ে এগুলোর স্থানীয় স্ক্রিপ্টে হিন্দি শব্দ বা উল্লেখ থাকে অথবা ভারতের থেকেই আমদানিকৃত হিন্দি ডাবসমূহ ব্যবহার করে।

২০১০ সালে পেমরা নিকেলোডিয়ন এবং কার্টুন নেটওয়ার্কর সম্প্রচার লাইসেন্স বাতিল করে, উর্দুর বাদে হিন্দিতে অনুষ্ঠান সম্প্রচার করার কারণে। কিন্ত পাকিস্তান টেলিভিশন এবং অন্যান্য স্থানিয় সম্প্রচারক শিশুতোষ চ্যানেল উদ্বোধন করতে না পারার জন্যে এই দুটি চ্যানেল আবার লাইসেন্স ফিরে পায়।

২০১৬ অস্থায়ী নেটওয়ার্ক নিলম্বন এবং আরও অসুবিধা[সম্পাদনা]

২০১৬ উরি জঙ্গি হামলার পরিনামে পেমরা আবার নিকেলোডিয়ন পাকিস্তানের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করে কারণ নেটওয়ার্কটি এআরওয়াই এবং ভায়াকম উভয়ের মধ্যেই খরচের উদ্বেগের কারণে নিকেলোডিয়ন ভারতের সাথে অনুষ্ঠান ভাগ করা শুরু করেছিল এবং অনুভব করেছিল যে আড়্য় তাদের আদেশের বিপরীতে অর্থনৈতিক করার জন্য পেমরার আদেশগুলি এড়িয়ে যাচ্ছে; এর মধ্যে ২০১১ সালের পর থেকে নিকেলোডিয়ন পাকিস্তান শিডিউলে হিন্দি-মিশ্রিত এবং সমস্ত-হিন্দি সামগ্রীর প্রত্যাবর্তন অন্তর্ভুক্ত ছিল। নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ ১৯ অক্টোবরের পরে সমস্ত ভারতীয়-উদ্ভূত গণমাধ্যমের সম্প্রচার নিষিদ্ধ করার আদেশ দেয়, যদিও পেমরা রায় দেয় যে এআরওয়াই গ্রুপ আদেশটি উপেক্ষা করেছে এবং নিকেলোডিয়ন ভারত থেকে হিন্দি ভাষার সামগ্রী সহ আমদানি করা অনুষ্ঠান সীমাবদ্ধ সময়ের মধ্যে সম্প্রচার করা অব্যাহত রেখেছে। ৩১ অক্টোবরে স্থানীয় প্রদানকারীরা পেমরার নির্দেশে নেটওয়ার্কটিকে বন্ধ করার সাথে সাথে সম্প্রচারের জন্য নেটওয়ার্কের লাইসেন্স স্থগিত করা হয়েছিল।[৪] এর কিছুক্ষণ পরে, ১০ নভেম্বরে সিন্ধু হাইকোর্ট থেকে একটি স্থগিতাদেশ কার্যকরভাবে পেমরার আদেশ বাতিল করে এবং নিকেলোডিয়নকে সম্প্রচারে ফিরে আসার অনুমতি দেয়, এই বলে যে একটি বিস্তৃত ব্যাখ্যা ছাড়াই স্থগিতাদেশের জন্য সংস্থার কোন কর্তৃত্ব নেই। এআরওয়াই আরও বলেছে যে ক্ষমতাসীন পাকিস্তান মুসলিম লীগ (এন) পার্টি এটির থেকে ভিন্ন রাজনৈতিক মতামতের কারণে তার নেটওয়ার্কগুলির বিরোধিতা করতে পেমরার নিয়ন্ত্রক ক্ষমতা ব্যবহার করেছে।[৫]

২০১৭ সালে নিকেলোডিয়ন একটি ওইংক্স ক্লাব এর পর্ব প্রচার করে, যেটায় পেমরা অভিযোগ করে যে চরিত্রটি অশ্লীল কাপড় পড়ে। এটার জন্য নিকেলোডিয়নকে ৫ লক্ষ্য রুপির জরিমানা করা হয়।[৬][৭]

অনুষ্ঠানসমূহ[সম্পাদনা]

বর্তমান[সম্পাদনা]

অ্যানিমেটেড[সম্পাদনা]

লাইভ-অ্যাকশন[সম্পাদনা]

  • আইকার্লি
  • দ্য থান্ডারম্যানস
  • দ্য হন্টেড হ্যাথাওয়েস
  • পাওয়ার রেঞ্জার্স সামুরাই
  • বিগ টাইম রাশ[৯]
  • হাউজ অফ আনুবিস[৯]
  • হেনরি ডেঞ্জার

নিক জুনিয়র[সম্পাদনা]

  • উবি
  • ওয়ান্ডার পেটস![১০]
  • গো ডিয়েগো গো!
  • টপ উইং
  • টিম উমিজুমি
  • ডোরা দ্য এক্সপ্লোরার[১১]
  • নেলা দ্য প্রিন্সেস নাইট
  • প প্যাট্রল
  • বাবল গাপিস[১২]
  • ব্লেজ অ্যান্ড দ্য মন্সটার মেশিনস
  • রাসটি রিভেটস
  • শিমার ও শাইন

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Clark, Steve (২৩ নভেম্বর ২০০৬)। "MTV and Nickelodeon launch in Pakistan"Variety। ১৩ মে ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. "Pakistan suspends Nickelodeon's licence for airing Indian content"দি ইকোনমিক টাইমস। ২ নভেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০২২ 
  3. Nick Pakistan - Urdu dubbing - Starts 1st April (Promo) (ইউটিউব) (উর্দু ভাষায়)। zord। ২৯ মার্চ ২০২২। 
  4. "Pemra suspends licence of Nickelodeon channel for airing Indian content"ডন। ৩১ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০২২ 
  5. "SHC Restores Nickelodeon License in Pakistan"। প্রোপাকিস্তানি। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০২২ 
  6. "PEMRA imposes Rs500,000 fine on Nickelodeon over this cartoon"ডন ইমেজেস। ১৭ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০২২ 
  7. "PEMRA fines Nickelodeon Rs500,000 for airing 'indecent' cartoon"দুনিয়া নিউজ। ১৭ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০২২ 
  8. "Shows - Nick Pakistan"। ৩১ অক্টোবর ২০১২। ৩১ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  9. "Shows - Nick Pakistan"। ১৬ মার্চ ২০১২। ১৬ মার্চ ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  10. "Shows - Nick Pakistan"। ২০ জুন ২০১১। ২০ জুন ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  11. "Nick, MTV Travel to Pakistan"। ২১ নভেম্বর ২০০৬। সংগ্রহের তারিখ ১০ জানুয়ারি ২০১৮ 
  12. "Shows - Nick Pakistan"। ১৫ জুলাই ২০১৩। ১৫ জুলাই ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০২২