নিউ‌ ইউটোপিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নিউ ইউটোপিয়া প্রিন্সিপালিটি

নিউ ইউটোপিয়ার জাতীয় পতাকা
পতাকা
নিউ ইউটোপিয়ার Crest
Crest
সরকারি ভাষাEnglish
জাতীয়তাসূচক বিশেষণNew Utopian
সাংগঠনিক কাঠামোসাংবিধানিক রাজতন্ত্র
• রাজকুমারী
এলিজাবেথ হেন্ডারসন
দাবিকৃত আয়তন
• মোট
৩২২ বর্গকিলোমিটার (১২৪ বর্গমাইল)
দাবিকৃত জিডিপি (মনোনীত)আনুমানিক
• মোট
$100,000
অভিপ্রেত মুদ্রাNew Utopian Crown (UTC)[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]
সময় অঞ্চলUTC
ওয়েবসাইট
www.new-utopia.com

নিউ ইউটোপিয়া, আনুষ্ঠানিকভাবে নিউ ইউটোপিয়া প্রিন্সিপালিটি, হল একটি ক্ষুদ্রজাতি যা হলো ক্যাইবিয়ান সাগরে কেম্যান দ্বীপ এর কছে অবস্থিত সমুদ্র থেকে উত্থিত দাবিহীন ভূ-খণ্ড যা মিসটেরিওসা উপকূল নিজেদের বলে দাবি করে। ১৩ এপ্রিল ১৯৯৯ এ প্রথম এ ভূ খণ্ডের দাবি করা হয়েছিল আমেরিকান ব্যবসায়ী হাওয়ার্ড টার্নি ("প্রিন্স লাজারাস") দ্বারা ; প্রকল্পটি সম্প্রতি পুনরুদ্ধার করা হয়েছে (২০১৭ সালের প্রথম দিকে)।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রকল্পটি ১৯৯৫ সালে পাওয়া গিয়েছিল যখন লাজারাস লং, যিনি নিউ ইউটোপিয়ার প্রতিষ্ঠাতা, যখন এই ক্যারিবিয়ান সাগরের এই অঞ্চলে দাবিহীন অগভীর উপকূলে পৌছেছিলেন। এরপরে তিনি জাতিসংঘের কাছে একটি দাবি দায়ের করেছিলেন।

লং বিশ্বজুড়ে বিনিয়োগকারীদের থেকে $১০০ মিলিয়ন ডলার সংগ্রহ করেছিলেন যার অধিকাংশ এছেছিল আমেরিকানদের কাছ থেকে এসেছিল। তারপর, আমেরিকান নিরাপত্তা ও বিনিয়োগ কমিশন (ইউএস এসইসি) নিউ ইউটোপিয়াকে "প্রতারণামূলক দেশব্যাপী ইন্টারনেট স্কিম" হিসাবে আখ্যায়িত করেছে, [১] এবং অভিযোগ করেছিলেন যে লং "অন্যান্য বিষয়গুলির মধ্যে প্রকল্পের নির্মাণের অবস্থা, প্রকল্পের সাথে সম্পর্কিত সংস্থাগুলি, বিনিয়োগের সুরক্ষা এবং তার কার্যক্রমের বিষয়ে কমিশনের তদন্তের স্থিতি সম্পর্কিত" বিষয়বস্তুতে ভুল ব্যাখ্যা এবং ভ্রান্তির সৃষ্টি করেছেন। [২] লংয়ের বিরুদ্ধে এসইসির মামলাটি ('এসইসি বনাম লাজারাস লং') লংয়ের বিরুদ্ধে রায় দেয়। লাজার লং ৮৮ বছর বয়সে এপ্রিল মাসে মারা যান।[৩]

নিউ ইউটোপিয়া প্রকল্পটি লাজার লংয়ের মেয়ে এলিজাবেথ হেন্ডারসন ২০১৭ সালের প্রথম দিকে পুনরায় শুরু করেছিলেন, যিনি ২০২১ সালের মধ্যে প্রকল্পটি শেষ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। [৩]

কাঠামো[সম্পাদনা]

সামাজিক মডেল এবং বাণিজ্য ব্যবস্থা অত্যধিক-পুঁজিবাদী হবে, যা আয়ান রান্ড, নেপোলিয়ন হিল, রবার্ট হেইনলিন, ডেল কার্নেগী, এবং অ্যাডাম স্মিথ এর লেখার উপর ভিত্তি করে করা হবে ।[৪] লং আরো প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে এই ক্ষুদ্র জাতির মায়ো ক্লিনিক থকে ভালো একটি ক্লিনিক, মন্টে কার্লো ক্যাসিনো এর আদলে একটি ক্যাসিনো, এবং "একটি চুড়ান্ত বিলাসবহুল স্পা" থকবে [৪] বাসিন্দারা যে ৬৪২ টি অ্যাপার্টমেন্ট এবং কনডমিনিয়াম নির্মিত হবে তার মধ্যে একটিতে বাস করবে.[৫] এটি করের স্বর্গরাজ্য হবে যেখানে বাসিন্দারা সকল আমদানিকৃত ভোগ্যপণ্যের উপর ২০% কর দিয়ে সকল সুবিধা পাবেন। [৫]

প্রতিষ্ঠাতা[সম্পাদনা]

নিউ ইউটোপিয়া তৈরির আগে, হাওয়ার্ড টার্নির একজন এন্টি এইজিং ডাক্তার দ্বারা হিউম্যান গ্রোথ হরমোন (এইচজিএইচ) সাথে পরিচিত হয়েছিলেন। ফলাফল থেকে তিনি এতটাই মুগ্ধ হয়েছিলেন যে তিনি হরমোনের সমর্থক হয়ে গিয়েছিলেন এবং ১৯৯৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে তিনি মেক্সিকোতে প্লেয়া দেল কারমেন -তে এল ডোরাডো ক্লিনিক নামে একটি দীর্ঘায়ুদের স্পা তৈরি করেছিলেন। ১৯৯৫ সালে সে তার নাম বদলে রাখেন লাজার লং যা হলো হেনলিনের উপন্যাসগুলির একটা চরিত্র যে বিভিন্ন ধরনের পুনর্জীবিকরণের চিকিৎসার মধ্য দিয়ে যায় একশ বছর বাঁচার আশায় ঈবং অবশেষে অমর হয়ে যায়।এছাড়াও ১৯৯৫ সালের দিকে তিনি স্থানীয় কর্মকর্তাদের দুর্নীতির কারণে এল দুরাদো ক্লিনিকে এইচজিএইচ ইনজেকশন বন্ধ করেছিলেন এবং তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চলে এসেছিলেন। কয়েক বছর পরে তাকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও এইচজিএইচ ইঞ্জেকশন বন্ধ করতে হয়েছিল যখন অবৈধ খেলাধুলায় ডপিং এর কারণে ডাক্তাররা এটি নির্ধারণ করা বন্ধ করেছিলেন। তারপরে তিনি নিউ ইউটোপিয়াকে তহবিল দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন, এমন একটি জায়গা যেখানে সরকার তাকে কী করতে পারে এবং কী করতে পারে তা সরকার তাকে বলতে পারবে না।কিন্তু ১৯৯৯ সালে এসইসি তার বন্ড অফার বন্ধ করে দেয় কারণ তাদের সাথে বন্ডগুলি নিবন্ধিত হয়নি।[৬] তিনি তার বাকী জীবন নিউ ইউটোপিয়া তৈরিতে উত্সর্গ করেছিলেন।

লাজারাস লং, ৮০ বছর বয়সে ২৬ এপ্রিল ২০১২ সালে মৃত্যুবরণ করেন। [৭]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "EXHIBIT: Fake Nations", Quatloos.com. Retrieved 30 May 2007.
  2. US SEC ruling, Litigation Release No. 16425 / February 4, 2000. Securities and Exchange Commission v. Lazarus R. Long (a/k/a Howard Turney individually and doing business as New Utopia,) USDC/NDOK/TULSA CA No. 99CV 0257BU(M)
  3. >"Principality Of New Utopia"Principality Of New Utopia। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-১৬ 
  4. Wheeler W. Dixon (২০০৬), Visions of Paradise: Images of Eden in the Cinema (illustrated সংস্করণ), Rutgers University Press, পৃষ্ঠা 40–41, আইএসবিএন 9780813537986 
  5. John R. Wennersten (২০০৮), Leaving America: The New Expatriate Generation, Greenwood Publishing Group, পৃষ্ঠা 47–48, আইএসবিএন 9780313345067 
  6. Arlene Weintraub (২০১১), Selling the Fountain of Youth: How the Anti-Aging Industry Made a Disease Out of Getting Old-And Made Billions, ReadHowYouWant.com, পৃষ্ঠা 10–11, 13–14, 21–23, 28, আইএসবিএন 9781458732309 
  7. The Independent, "Prince Lazarus rules the waves", Tim Hulse, 30 May 1998

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]