নিউজিল্যান্ড স্পোর্টস হল অব ফেম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

নিউজিল্যান্ড স্পোর্টস হল অব ফেম সাংগঠনিকভাবে নিউজিল্যান্ডের সেরা ক্রীড়া তারকাদের ঘোষণা করে। ১৯৯০ সালে নিউজিল্যান্ডের সার্ধ্বশতবার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধনের পর থেকে অদ্যাবধি বিভিন্ন ক্রীড়ায় প্রতিনিধিত্বকারী ১৬০জন খেলোয়াড়কে হল অব ফেমে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। প্রতি দ্বিতীয় বৎসরে নিয়মিতভাবে খেলোয়াড়দেরকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।

১৯৯৯ সালের পর থেকে ডুনেডিনের রেলওয়ে স্টেশন বিল্ডিংয়ে এর অবস্থান। ঐখানে নিউজিল্যান্ডের ক্রীড়ায় অসামান্য অবদানকারীদের উল্লেখযোগ্য মুহুর্ত যাদুঘরে তুলে ধরা হয়। এরপূর্বে ওয়েলিংটনে হল অব ফেমটি ছিল। হল অব ফেমের বর্তমান প্রধান নির্বাহী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ক্রীড়া লেখক রন পালেনস্কি।

পরিচ্ছেদসমূহ

অন্তর্ভূক্ত সদস্য[সম্পাদনা]

নিম্নবর্ণিত ব্যক্তি ও দলকে নিউজিল্যান্ড স্পোর্টস হল অব ফেমে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে:[১]

প্রশাসন[সম্পাদনা]

অ্যাথলেটিক্স[সম্পাদনা]

বিমান চালনা[সম্পাদনা]

ব্যাডমিন্টন ও টেনিস[সম্পাদনা]

  • জেফ রবসন

বাস্কেটবল[সম্পাদনা]

  • স্ট্যান হিল

বিলিয়ার্ডস[সম্পাদনা]

বোলস[সম্পাদনা]

মুষ্টিযুদ্ধ[সম্পাদনা]

ক্যানোয়িং[সম্পাদনা]

ক্রিকেট[সম্পাদনা]

ক্রিকেট ও রাগবি ইউনিয়ন[সম্পাদনা]

সাইকেল চালনা[সম্পাদনা]

প্রতিবন্ধী ক্রীড়া[সম্পাদনা]

অশ্বারোহণ[সম্পাদনা]

গল্ফ[সম্পাদনা]

হারনেস রেসিং[সম্পাদনা]

হকি[সম্পাদনা]

জেটবোটিং[সম্পাদনা]

মোটরস্পোর্ট[সম্পাদনা]

পর্বতারোহণ[সম্পাদনা]

বহুক্রীড়া[সম্পাদনা]

নেটবল[সম্পাদনা]

নেটবল ও সফটবল[সম্পাদনা]

নৌকা চালনা[সম্পাদনা]

রাগবি লীগ[সম্পাদনা]

রাগবি লীগ ও ইউনিয়ন[সম্পাদনা]

রাগবি ইউনিয়ন[সম্পাদনা]

রাগবি ও অ্যাথলেটিক্স[সম্পাদনা]

শিরিং[সম্পাদনা]

স্কিয়িং[সম্পাদনা]

ফুটবল[সম্পাদনা]

সফটবল[সম্পাদনা]

  • কেভিন হারলিহি
  • বিল ম্যাসি
  • ১৯৮২ সালের মহিলা সফটবল দল

সফটবল ও ফুটবল[সম্পাদনা]

ক্রীড়া সম্প্রচার[সম্পাদনা]

স্কোয়াশ[সম্পাদনা]

সাঁতার[সম্পাদনা]

টেনিস[সম্পাদনা]

থ্রোব্রেড রেসিং[সম্পাদনা]

ভারোত্তোলন[সম্পাদনা]

কাঠ কাটা[সম্পাদনা]

কুস্তি[সম্পাদনা]

পালতোলা নৌকা চালনা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "New Zealand Sports Hall of Fame Inductees"। New Zealand Sports Hall of Fame। ২৭ জুন ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ অক্টোবর ২০১৫ 
  2. Burgess, Michael (৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭)। "Lisa Carrington queen of sport with Halberg Awards wins"The New Zealand Herald। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  3. Dawson, Mark (১০ ফেব্রুয়ারি ২০১২)। "Salute to rowing legend"Wanganui Chronicle। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০১৫