নাহিদ আবিদি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নাহিদ আবিদী
Dr. Naheed Abidi (2014).jpg
জন্ম১৯৬১
ভারত
পেশাভারতীয় শিক্ষাবিদ ও লেখক
দাম্পত্য সঙ্গীএহতেশাম আবিদী
সন্তানএক ছেলে এক মেয়ে
পুরস্কারপদ্মশ্রী

নাহিদ আবিদী একজন ভারতীয় লেখক এবং সংস্কৃত ভাষার পণ্ডিত।[১] সাহিত্যে তার অসামান্য অবদানের জন্য ভারত সরকার ২০১৪ সালে তাকে ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার পদ্মশ্রী প্রদানের মাধ্যমে সম্মানিত করে।[২]

জীবনী[সম্পাদনা]

নাহিদ আবিদী বলেছেন, আমাকে পদ্মশ্রী পুরষ্কারে ভূষিত করার মাধ্যমে যেন সংস্কৃত জগৎকে সম্মান দেওয়া হল এবং এটি মুসলমানদের সংস্কৃত শিক্ষার জন্য উদ্বুদ্ধ করবে। আমি সংস্কৃত ও পারস্যের বিদ্বানদের কাছে অত্যন্ত কৃতজ্ঞ, যারা আমাকে উভয় ধর্মের মধ্যকার বন্ধনকে উন্মোচিত করতে উৎসাহিত করেছিলেন। সংস্কৃত একটি সমৃদ্ধ ভাষা, যাতে সমাজে সম্প্রীতি এবং শান্তির বাণী প্রচারের গুণ রয়েছে।[৩]

নাহিদ আবিদি ১৯৬১ সালে ভারতের উত্তর প্রদেশের মির্জাপুরে[৪] এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।[৫] ছাত্র জীবনে তিনি সংস্কৃতকে তার পাঠ্য বিষয় হিসাবে বেছে নেন এবং এ বিষয়েই কমলা মহেশ্বরী ডিগ্রি কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রি এবং মির্জাপুরের কে. ভি. ডিগ্রি কলেজ থেকে এমএ ডিগ্রি অর্জন করেন।[৫]

তিনি শহরের খ্যাতনামা আইনজীবী এহতেশাম আবিদির সাথে বিবাহের পরে সংস্কৃত পাণ্ডিত্যের প্রাচীন আসন বারাণসীতে চলে আসেন।[৩][৫] হিন্দু পুঁথি গরুড় পুরাণে বারাণসীকে পবিত্র বলে গণ্য করা হয়।[৬] সেখানে তিনি মহাত্মা গান্ধী কাশী বিদ্যাপীঠ (এম.জি.কে.ভি.) নামক একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন এবং সেখান থেকে ডক্টরেট ডিগ্রী (পিএইচডি) অর্জন করেন। এরপর ১৯৯৩ সালে তিনি তার থিসিসটি বৈদিক সাহিত্য মেইন আশভিনিয়ন কা স্বরূপ শিরোনামে প্রকাশ করেন।[৭]

পুরস্কার ও স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

সাহিত্যে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ২০১৪ সালে ভারত সরকার নাহিদ আবিদিকে পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত করে।[২] এছাড়াও তিনি লখনৌ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক সম্মান সূচক ডি.লিট (হোনরিস কাউসা) ডিগ্রি লাভ করেন।[৫] ২০১৪ সালের ৯ সেপ্টেম্বর আবিদি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে তার সাথে সাক্ষাত করেন এবং তার নিজের লেখা দুটি বই প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দেন।[৮] মোদী তার গুগল প্লাস পৃষ্ঠায় একটি ছবি পোস্ট করে এই বৈঠকের বিষয়টি জানিয়েছিলেন[৯] এবং বৈঠকের ভিডিও প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছিল।[১০] ২০১৬ সালে লখনৌতে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে তিনি ইউপি সরকার কর্তৃক যশ ভারতী পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছিলেন।[৪]

সাহিত্যে অবদান[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Elets Online"। Elets Online। ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৪ 
  2. "Padma Awards Announced"Circular। Press Information Bureau, Government of India। ২৫ জানুয়ারি ২০১৪। Archived from the original on ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৩ আগস্ট ২০১৪ 
  3. Singh, Binay (৩০ জানুয়ারি ২০১৪)। "Sanskrit has a special place in the heart of Padma Shri awardee Naheed Abidi"Times of India। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৭ 
  4. Singh, Binay (২১ মার্চ ২০১৬)। "Sanskrit scholar Dr Naheed Abidi gets Yash Bharati award"The Times of India 
  5. "TOI"। TOI। ৩০ জানুয়ারি ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৪ 
  6. "Garuḍa Purāṇa XVI 114"। সংগ্রহের তারিখ ৯ নভেম্বর ২০১২ 
  7. "One India"। One India। ১৩ জুন ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৪ 
  8. "DNA India"। DNA India। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৪ 
  9. "Modi Google Plus"। Google Plus। ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৪ 
  10. "Narendra Modi"। Narendra Modi। ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]