নাসির উল মুলক মসজিদ

স্থানাঙ্ক: ২৯°৩৬′৩১″ উত্তর ৫২°৩২′৫৪″ পূর্ব / ২৯.৬০৮৬১° উত্তর ৫২.৫৪৮৩৩° পূর্ব / 29.60861; 52.54833
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নাসির-উল-মুল্ক মসজিদ
Nasir ol Molk Mosque (31233739431).jpg
ধর্ম
অন্তর্ভুক্তিশিয়া ইসলাম
প্রদেশফর্স প্রদেশ
অবস্থাসক্রিয়
অবস্থান
অবস্থানইরান শিরাজ, ফার্স, ইরান
পৌরসভাশিরাজ শহরিস্তান
নাসির উল মুলক মসজিদ ইরান-এ অবস্থিত
নাসির উল মুলক মসজিদ
ইরানের মধ্যে প্রদর্শিত
ভৌগোলিক স্থানাঙ্ক২৯°৩৬′৩১″ উত্তর ৫২°৩২′৫৪″ পূর্ব / ২৯.৬০৮৬১° উত্তর ৫২.৫৪৮৩৩° পূর্ব / 29.60861; 52.54833
স্থাপত্য
ধরনমসজিদ
স্থাপত্য শৈলীইরানি স্থাপত্য
সম্পূর্ণ হয়১৮৮৮
ওয়েবসাইট
http://nasiralmulk.ir/

নসীর-উল-মুল্ক মসজিদ (ফার্সি: مسجد نصیر الملک‎‎ Masjed-e Nasir ol-Molk), যা গোলাপি মসজিদ (مسجد صورتی Masjed-e Surati) নামেও পরিচিত, হল ইরানের শিরাজ শহরের একটি ঐতিহ্যবাহী মসজিদ। এটি শাহ চেরাগ মসজিদ সংলগ্ন গওদ-এ-আরবান এলাকায় অবস্থিত। এটি ইরানে কাজার শাসনামলে তৈরি হয়েছিল।

মসজিদটির সম্মুখভাগে বিস্তৃত রঙিন কাঁচ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে এবং অন্যান্য ঐতিহ্যবাহী উপাদান যেমন পঞ্জ কোসে (“পঞ্চ খিলানাকৃতি”) নকশার প্রদর্শন বিদ্যমান। এর অভ্যন্তরীণ নকশায় প্রচুর সংখ্যক গোলাপি রঙের টালি ব্যবহারের কারণে জনপ্রিয় সংস্কৃতিতে এটিকে ‘গোলাপী মসজিদ’ হিসাবে অবিহিত করা হয়।[১][২]

মসজিদটি অনেক রঙিন কাচ দিয়ে সাজানো হয়েছে। নকশার কারুকাজ অতুলনীয়। মসজিদের ভেতরের জলাশয় সকলের প্রশংসা অর্জন করেছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

এই মসজিদ নির্মিত হয়েছে কাজার  যুগে। বর্তমানে নাসির উল মুলক এর এনডাউমেন্ট ফাউন্ডেশন এর মাধ্যমে মসজিদটির রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়। ধারণা করা হয় যে ১৮৭৬ থেকে ১৮৮৮ সালের মধ্যে  মির্জা হাসান আলী (নাসির উল মুলক) এর আদেশে মসজিদটি নির্মাণ করা হয়। তিনি কাজার শাসকদের মধ্যে অন্যতম। [৩] ইরানী স্থপতি মোহাম্মদ হাসান-ই-মেমার এবং মোহাম্মদ রেজা কাশি-সাজ-ই-শিরাজ এই মসজিদের নকশা তৈরী করেন।[৪]

রক্ষণাবেক্ষণ[সম্পাদনা]

এই মসজিদের পুন:প্রতিষ্ঠা, সুরক্ষা এবং রক্ষণাবেক্ষণ নাসির উল মুলক মসজিদের এনডাউমেন্ট ফাউন্ডেশন  এর মাধ্যমে করা হয়। এই ধারা এখনো অব্যাহত আছে।

গ্যালারি[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

উইকিমিডিয়া কমন্সে নাসির উল মুলক মসজিদ সম্পর্কিত মিডিয়া দেখুন।

আছে। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]