নাসিমা খান মন্টি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নাসিমা খান মন্টি
নাসিমা মন্টি
Nasima Khan Monty.jpg
২০২২ সালে নাসিমা খান মন্টি
জন্ম
নাসিমা

২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৭
জাতীয়তাবাংলাদেশী
অন্যান্য নামমন্টি
নাগরিকত্ববাংলাদেশী
শিক্ষাস্নাতক (সম্মান)
স্নাতকোত্তর
মাতৃশিক্ষায়তনঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাসাংবাদিকতা
কর্মজীবন১৯৯৮-বর্তমান
নিয়োগকারীপ্রধান সম্পাদক
প্রতিষ্ঠানআমাদের অর্থনীতি
পরিচিতির কারণবাংলাদেশের নারী সাংবাদিক
আদি নিবাসঢাকা
দাম্পত্য সঙ্গীনাঈমুল ইসলাম খান
পুরস্কারবাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশনের পুরস্কার-২০১৭

নাসিমা খান মন্টি (জন্ম: ২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৭) বাংলাদেশি নারী সাংবাদিক ও লেখক। তিনি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা আমাদের অর্থনীতির সম্পাদক। তৃণমূল পর্যায়ের সাংবাদিকতা থেকে উঠে আসা একজন সংবাদ ব্যক্তিত্ব ও সম্পাদক হিসেবে পরিচিত। [১] সাংবাদিকতা ও অনলাইন গণমাধ্যমে বিশেষ ভূমিকা রাখায় বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষে ৭ অক্টোবর ২০১৭ তারিখে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল মন্টিকে সম্মাননা প্রদান করেন। [২][৩][৪]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৯৭ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালে তিনি দৈনিক আজকের কাগজের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি হিসেবে সাংবাদিকতা শুরু করেন (১৯৯৭-১৯৯৮)। তিনি হাতে কলমে কাজ শিখার পাশাপাশি চলচ্চিত্র এবং গণমাধ্যম বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রিও অর্জন করেছেন। মিডিয়া বিষয়ক গবেষণা ও প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সেন্টার ফর ডেভেলপমপেন্ট জার্নালিজম অ্যান্ড কমিউনিকেশন (বিসিডিজিসি)-এর সঙ্গেও তিনি জড়িত। [২][৫]। এরপর তিনি কয়েক বছর বাংলাদেশের বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানের এটিনএন নিউজের বার্তা বিভাগে কাজ করেছেন। এখান থেকে বেরিয়ে আমাদের সময় ডট কমের সম্পাদক হিসেবে নিযুক্ত হন। বর্তামানে তিনি ইংরেজি দৈনিক আওয়ার টাইম ও বাংলা দৈনিক আমাদের নতুন সময়ের প্রধান সম্পাদক হিসেবে কাজ করছেন। সাংবাদিকতার পাশাপাশি সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ-সিপিডিতে কাজ করেছেন। [৬][৭]

শিক্ষা জীবন[সম্পাদনা]

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে জনপ্রশাসন বিষয়ে স্নাতক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নারী শিক্ষা বিভাগে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। নাসিমা খান মন্টি আমাদের অর্থনীতির সম্পাদক। আমাদের নতুন সময়ের প্রধান সম্পাদক। আওয়ার টাইমের এডিটর-ইন-চার্জ এবং আমাদের সময়. কমের সম্পাদক। ১৯৭৭ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি তার জন্ম। ছাত্রজীবনেই সাংবাদিকতাকে পেশা হিসেবে গ্রহণের পর বিভিন্ন সময়ে তিনি প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করছেন। [৩][৮]

প্রশিক্ষণ ও গবেষণা[সম্পাদনা]

নাসিমা খান মন্টি সাংবাদিক এবং সংবাদপত্র সংক্রান্ত বেশকিছু জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। তিনি বাংলাদেশি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিপিডিতেও কাজ করেন এবং একাধিক গবেষণাকাজে নেতৃত্ব দিয়েছেন। একাধিক বিষয়ে তার গবেষণা কর্ম রয়েছে। তিনি একাধিক আন্তর্জাতিক ফোরামে অংশ নিয়েছেন। গণমাধ্যমে কাজের অবদানস্বরুপ কয়েকটি পুরস্কার পেয়েছেন। আবার কয়েকটি পুরস্কার প্রদান কমিটিতে জুরি হিসেবেও আছেন। [২]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

অনলাইন সাংবাদিকতা বিশেষ অবদান রাখায় ৭ অক্টোবর ২০০৭ তারিখে বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশনের পুরস্কার অর্জন করেন। [৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সময়ের সাহসী নারী নাসিমা খান মন্টি"। প্রিন্ট সংস্করণ। দৈনিক যুগান্তর। ১৪ মে ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৯ 
  2. "Nasima Khan Monty: A new lighthouse in women journalism"দ্য আওয়ার টাইম। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। ২১ জুন ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৯ 
  3. "Nasima Khan Monty: A multi-dimensional personality"দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট (বাংলাদেশ)। ৩ জুন ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৯ 
  4. "NTV Online awarded as best online portal in Bangladesh"এনটিভি। ৭ অক্টোবর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৯ 
  5. "নাসিমা খান মন্টি : নারী সাংবাদিকতার নয়া বাতিঘর"। আমাদের সময় ডট কম। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১৯ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. "নারী সাংবাদিকতায় নাসিমা খান মন্টি"দৈনিক মানবজমিন। ৫ মে ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৯ 
  7. "নাসিমা খান মন্টি : নারীর জন্য কঠিন সাংবাদিকতা"জাগো নিউজ। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৯ 
  8. মন্টির, সাক্ষাতকার। "'সাংবাদিকদের প্রয়োজন সহযোগিতা'"বাংলা ট্রিবিউন। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৯