নাদিয়া খান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নাদিয়া খান
نادیہ خان
জন্ম২২ মে, ১৯৬১
জাতীয়তাপাকিস্তানি
পেশাঅভিনেত্রী, টেলিভিশন উপস্থাপিকা, ব্লগার
কর্মজীবন১৯৯৬–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীফয়স মুমতাজ রাও (বি. ২০২১)
ওয়েবসাইটOutstyle.com

নাদিয়া খান (জন্ম: ২২ মে ১৯৬১) হলেন একজন পাকিস্তানি টেলিভিশন অভিনেত্রী, উপস্থাপিকা এবং প্রযোজক। তিনি সকালবেলার টিভি অনুষ্ঠান নাদিয়া খান শো উপস্থাপনা এবং তার ইউটিউব চ্যানেল আউটস্টাইলের জন্য সর্বাধিক পরিচিত।[১][২] তিনি পিটিভি ধারাবাহিক বন্ধনে তার ভূমিকার জন্যও সুপরিচিত। তিনি‘‘ আইসি হ্যায় তানহাইতে ’ কিনজা চরিত্রের জন্য সমালোচকদের প্রশংসা পেয়েছিলেন। ২০১৯ সালে তিনি ‘ কাম জারফ ’ছবিতে আইমা এবং ‘ডলি ডার্লিং’-এ ডলি চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন।[৩]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

নাদিয়া খান বেলুচিস্তানের কোয়েটায় একটি জাতিগত পাঠান পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি ছোট থাকাকালে পাঞ্জাবের রাওয়ালপিন্ডিতে চলে গিয়েছিলেন এবং রাওয়ালপিন্ডিতেই তার কর্মজীবন শুরু করেছিলেন।[৪][৫]

পুরস্কার এবং স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

  • ২০০৭ সালে জাং ;গ্রুপ অফ নিউজ পেপারস তাকে পাকিস্তানের "ওপরাহ উইনফ্রে " নামে অভিহিত করেছিল।[৬]

পিটিভি পুরস্কার[সম্পাদনা]

বিজয়ী
  • ১৯৯৭: সেরা অভিনেত্রী; বাঁধন [৭]

মাসালা লাইফস্টাইল পুরস্কার[সম্পাদনা]

বিজয়ী

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "We must teach young girls to aspire beyond marriage: Nadia Khan | The Express Tribune"The Express Tribune। ১১ মার্চ ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২ নভেম্বর ২০১৮ 
  2. "'Baat Cheet' with Fahim Burney, Nadia Khan"The Nation। ১ অক্টোবর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২ নভেম্বর ২০১৮ 
  3. Haq, Irfan Ul (৮ ডিসেম্বর ২০১৮)। "Nadia Khan's new TV project is a game show where you can win diamonds or a Mercedes"Images। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০১৯ 
  4. Nadia Khan Biography. Tv.com.pk. Retrieved 17 November 2017.
  5. Nadia Khan – The Express Tribune Blog. The Express Tribune. Retrieved 17 November 2017.
  6. "Nadia Khan Anchor Person/ Actress/ Producer Dunya TV / Geo News"। Urduwire.com। সংগ্রহের তারিখ ২৩ অক্টোবর ২০১২ 
  7. "Nadia Khan | Fashion47"। Fashion47.pk। ১৪ নভেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১২ 
  8. "Masala Lifestyle Awards – The Winners"। Masala.com। ৫ ডিসেম্বর ২০০৮। ১৪ আগস্ট ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ অক্টোবর ২০১২