নাদা হাফফাদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

নাদা হাফফাদ হচ্ছেন বাহরাইনের মন্ত্রীসভার প্রথম মহিলা মন্ত্রী যখন ২০০৪ সালে তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন, সেপ্টেম্বর ২০০৭ পর্যন্ত এই পদে তিনি দায়িত্ব পালন করেন।[১] পূর্বে তিনি বাহরাইনের সংসদের উচ্চকক্ষ পরামর্শদায়ক কাউন্সিলের দায়িত্ব পালন করেন।

জীবনী[সম্পাদনা]

হাফফাদ মিশরে মেডিসিন বিষয়ে অধ্যয়ন করেন এবং বাহরাইনে চিকিৎসায় অনুশীলন শুরু করার আগে আয়ারল্যান্ডের রয়েল কলেজ অব সার্জনস থেকে শিক্ষালাভ করেন। হাফফাদ ১৯৮৪ সালে ফ্যামিরি মেডিসিন অনুশীলন করার জন্য বাহরাইনে ফিরে আসেন। এ সময় নাদা হাফফাদ আরব উপসাগরীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল কলেজের লেকচারার হিসেবে কাজ করেন এবং পরিবার ও মাতৃস্বাস্থ্যের বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সাথে পরামর্শ করেন। একজন ডাক্তার ও প্রশাসন উভয় হিসেবেই তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে কাজ করেন। হামাদ বিন ঈসা আল খলিফার সিংহাসনে আরোহণের পর, হাফফাদ ২০০০ সালে জাতীয় অ্যাকশন চার্টারের জন্য সুপ্রিম কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০১ সালে, তিনি নারী পরিষদের সুপ্রিম কাউন্সিলের সাথে যোগ দেন এবং সভাপতি হন। পরের বছর, হামাদ বিন ঈসা আল খলিফার শূরা কাউন্সিলের সদস্য হিসাবে হাফফাদ নিযুক্ত হন। আগের বিরোধীরা ডাক্তারদের বিরোধিতায় সরকারের সংস্কারের মাধ্যমে জোর করে ব্যর্থ হওয়ার পর হাফফাদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

২০০৭ সালের সেপ্টেম্বরে হাফফাদকে মন্ত্রিসভা পুনর্নির্ধারণে প্রতিস্থাপন করা হয় সরকার ইসলামপন্থী-শাসিত সংসদে সমালোচকদের দমন করতে চেয়েছিল এবং এমপিদের সাথে সংঘর্ষে জড়িত হওয়া মন্ত্রীদের সরিয়ে দেয়।[২] স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কাজ তদন্তের জন্য সংসদীয় কমিশন গঠনের পর এপ্রিল ২০০৭ সালে হাফফাদ মূলত পদত্যাগ করেছিলেন। কানাডিয়ান কাউন্সিল ফর হেলথ অ্যাক্রেডিটেশন কর্তৃক বাহরাইনের স্বাস্থ্যসেবাগুলির একটি অডিটের পর কমিশনকে (যার মধ্যে ছিলেন মোহাম্মদ খালিদ ও জসিম আল সাঈদী) ত্বরান্বিত করা হয় এবং মনে করা যে মন্ত্রণালয়ের কর্মীরা মৌলিক নিরাপত্তা নির্দেশনাগুলো এড়িয়ে চলেছে।[৩] তবে হাফফাদ, বাহাফিন মেডিকেল সোসাইটির সমর্থন লাভ করেছিল, যা সংসদীয় তদন্তের বিরোধিতা করে এবং বিশ্বাস করে যে এটি রাজনৈতিকভাবে অনুপ্রাণিত ছিল, একজন কর্মকর্তা বলেছিলেন: "তদন্ত কমিটি মন্ত্রণালয় এর অনিয়ম এবং ভুলত্রুটিগুলো তদন্ত করছে নাহ। পরিবর্তে, এটি মন্ত্রীকে নিশানা করে রেখেছে। বিভিন্ন জিনিষগুলি উন্নত করার জন্য তার প্রচেষ্টা প্রশংসনীয় এবং তার বিরুদ্ধে যে কোনও অপরাধ আমাদের কাছে অগ্রহণযোগ্য"[৪]

মন্ত্রণালয় ছাড়ার পর, হাফফাদ শূরা কাউন্সিলে ফিরে যান, যেখানে তিনি আর্থিক ও অর্থনৈতিক বিষয়ক কমিটির দায়িত্ব পালন করেন। বাহরাইনের শিয়া সম্প্রদায়ের একজন সদস্য , তিনি বাহরাইনের সুপ্রিম কাউন্সিল ফর উইমেনের নারীর অধিকারের জন্য সক্রিয় প্রচারক ছিলেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Apps - Access My Library - Gale"www.accessmylibrary.com। সংগ্রহের তারিখ ৮ মে ২০১৭ 
  2. [১][স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. "Health report reveals 'risks'"Gulf Daily News। সংগ্রহের তারিখ ৮ মে ২০১৭ 
  4. "MPs defiant despite minister's threat"Gulf Daily News। সংগ্রহের তারিখ ৮ মে ২০১৭