নাগবল্লী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

নাগবল্লী
Mussaenda
Mussaenda frondosa.jpg
Mussaenda frondosa
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Plantae
(শ্রেণীবিহীন): Angiospermae
(শ্রেণীবিহীন): Eudicots
(শ্রেণীবিহীন): Asterids
বর্গ: Gentianales
পরিবার: Rubiaceae
গণ: Mussaenda
L., 1753
প্রজাতি: Mussaenda frondosa
দ্বিপদী নাম
Mussaenda frondosa
প্রতিশব্দ[১]
  • Gardenia frondosa (L.) Lam.
  • Mussaenda belilla Buch.-Ham.
  • Mussaenda dovinia Buch.-Ham.
  • Mussaenda flavescens Buch.-Ham.
  • Mussaenda formosa L. nom. illeg.
  • Mussaenda fruticosa L.
  • Mussaenda ingrata Wall. ex Hook.f.
  • Mussaenda macrophylla Kurz nom. illeg.
  • Mussaenda sumatrensis B.Heyne ex Roth
  • Mussaenda tomentosa Wight ex Hook.f. nom. inval.
  • Mussaenda villosa Schltdl. ex Hook.f. nom. illeg.

মুসেন্ডা বা নাগবল্লী (বৈজ্ঞানিক নাম:Mussaenda frondosa)[২] Rubiaceae পরিবারের[৩] মুসেন্ডা[৪] গণের লাল ও সাদা রঙের আলঙ্কারিক গুল্ম। প্রচলিত ইংরেজি নাম Dwarf Mussaenda, White wing ইত্যাদি। রোদ বা আংশিক ছায়ায় এ গাছ তাড়াতাড়ি বেড়ে উঠে। নাগবল্লী বর্ণবৈচিত্র্য তৈরিতে আদর্শ বাগানের জন্য উত্তম। [৫]

আদি নিবাস[সম্পাদনা]

নাগবল্লী বাংলাদেশ ও ভারতের প্রজাতি। এটি ক্রান্তীয় আফ্রিকারও গাছ।[৫] তবে এদের দেশীয়করণ হয়েছে নেপাল, শ্রীলঙ্কা, কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন এবং ইন্দোনেশিয়ায় বিভিন্ন জায়গায়।

আকার[সম্পাদনা]

ঝোপাল ছোট আকৃতির চিরসবুজ গাছ। সাধারণত দুই থেকে তিন ফুট উঁচু হতে পারে। পাতার রং উজ্জ্বল সবুজ, প্রায় চার সেন্টিমিটার লম্বা, হলুদ রঙের ফুল[৫]

বংশবৃদ্ধি[সম্পাদনা]

নাগবল্লীর বংশবৃদ্ধি সাধারণত কলমে হয়ে থাকে।[৫]


তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The Plant List: A Working List of All Plant Species"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০১৫ 
  2. L., 1753 In: Sp. Pl. : 177
  3. WCSP: World Checklist of Selected Plant Families
  4. Roskov Y., Kunze T., Orrell T., Abucay L., Paglinawan L., Culham A., Bailly N., Kirk P., Bourgoin T., Baillargeon G., Decock W., De Wever A., Didžiulis V. (ed) (২০১৪)। "Species 2000 & ITIS Catalogue of Life: 2014 Annual Checklist."। Species 2000: Reading, UK.। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৪ 
  5. বর্ণিল নাগবল্লী,মোকারম হোসেন, দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ১৩-১০-২০১২ খ্রিস্টাব্দ।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]