নাঈমুল ইসলাম খান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নাঈমুল ইসলাম খান
Nayeemul-Jan2013.jpg
২০০৯-এ বাংলাদেশি সাংবাদিক নাঈমুল ইসলাম খান
জন্ম (1958-01-21) ২১ জানুয়ারি ১৯৫৮ (বয়স ৬১)
বাসস্থানঢাকা
জাতীয়তাবাংলাদেশী
নাগরিকত্বপাকিস্তান(১৯৭১ সালের পূর্বে)
বাংলাদেশ
শিক্ষাঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
যেখানের শিক্ষার্থীকুমিল্লা জিলা স্কুল
পেশাপত্রিকার সম্পাদক ও সাংবাদিক
কার্যকাল১৯৮২-বর্তমান
নিয়োগকারী'সম্পাদক
প্রতিষ্ঠান'আমাদের অর্থনীতি' আমাদের নতুন সময়
পরিচিতির কারণসংবাদ ব্যক্তিত্ব
উল্লেখযোগ্য কর্ম
দৈনিক আজকের কাগজকে আধুনিক পদ্ধতিতে প্রকাশ
আদি নিবাসকুমিল্লা
দাম্পত্য সঙ্গীতসলিমা নাসরিন (১৯৯০–১৯৯১)
নাসিমা খান মন্টি (বি. ১৯৯৩)
সন্তানতিন কন্যা
পিতা-মাতানুরুল ইসলাম খান
নুরুন নাহার খান
ওয়েবসাইটnayeemulislamkhan.com

নাঈমুল ইসলাম খান (জন্ম ১৯৫৮) বাংলাদেশের একজন সংবাদ ব্যক্তিত্ব। তিনি ১৯৮২ সাল থেকে বাংলাদেশী সাংবাদিকতায় সক্রিয় রয়েছেন। তিনি বর্তমানে বাংলা ভাষার দৈনিক আমাদের নতুন সময় এবং ইংরেজি ভাষার দৈনিক দ্য আওয়ার টাইমসের সম্পাদক। [১][২] তিনি ১৯৯০ সালে শুরু হওয়া দৈনিক আজকের কাগজকে আধুনিক পদ্ধতিতে উপস্থাপনা প্রকাশের জন্যে পরিচিত হয়েছেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] তিনি ২০০৩ সালে দৈনিক আমাদের সময়ের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ছিলেন। এছাড়া ২০০৭ সাল থেকে বাংলাদেশের বিভিন্ন বেসরকারি টেলিভিশনের টকশোতে কথা বলেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

নাঈমুল ২১ জানুয়ারি ১৯৫৮ সালে কুমিল্লায় জন্মগ্রহণ করেন, তার পিতা নুরুল ইসলাম খান ছিলেন রাজনীতিবিদ ও আইনজীবী। তার মা নূরুন নাহার খানের ৬ সন্তানের মধ্যে তিনি বড়। কুমিল্লা জিলা স্কুলে পড়াশোনা করেন এবং সেখান থেকে এসএসসি পাস করেন। তারপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যান এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতায় তার স্নাতক ও স্তাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি বাংলাদেশ সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড জার্নালিজম নিয়ে কাজ করেন। ২০০৭ সালে তিনি সাংবাদিকতা ও মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে ঢাকা স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে যোগ দেন। তিনি আমাদের অর্থনীতির সম্পাদক নাসিমা খান মন্টিকে বিয়ে করেন।

সাংবাদিকতায় কর্মজীবন[সম্পাদনা]

নাঈমুল প্রথম ১৯৮২ সালে কয়েক মাসের জন্য প্রকাশিত মাসিকা পত্রিকা সময় সম্পাদনা করে। পরবর্তীতে এটি ‘খবরের কাগজ' হিসেবে পরিবর্তন করা হয়। এ পত্রিকাটি ১৯৮৭ সালে সাপ্তাহিক হিসেবে শুরু হয়।[৩] ১৯৯০ থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত সম্পাদক হিসাবে আজকের কাগজে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০২ সালে তিনি উপদেষ্টা সম্পাদক হিসেবে নিয়োগ আজকের কাগজে নিয়োগ পান। ২০০৭ সালে এটি বন্ধ হয়ে যায়। ১৯৯২ সালে তিনি আরেকটি বাংলা ভাষার দৈনিক ভোরের কাগজ প্রতিষ্ঠা করেন, যা পরে মতিউর রহমানের মাধ্যমে সম্পাদিত হয়। আজকের কাগজভোরের কাগজ একই সংবাদ শৈলীতে প্রকাশ হতো। ১৯৯২ সালে ভোরের কাগজে থেকে তিনি পদত্যাগ করেন এবং বাংলাদেশ সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট নামে একটি সংগঠন পরিচালনা করেন। [৪] ২০০৩ সালে তিনি নুতুনধারা শিরোনামে আরেকটি দৈনিক প্রকাশের চেষ্টা করেন। । [৫] ২০০৭ সালে তিনি দৈনিক আমাদের সময় সম্পাদনা শুরু করেন, কিন্তু ২০১২ সালে আদালতের আদেশে তার প্রকাশক পদ বাতিল হয়।[৬]

আক্রমন[সম্পাদনা]

১১ মার্চ ২০১৩ সালে তারিখে একটি সামাজিক অনুষ্ঠান থেকে বাড়ি ফেরার পথে ককটেল নিক্ষেপ করা হয়। এতে তিনি ও তার স্ত্রী আহত হন এবং তাদেরকে চিকিৎসার জন্য তাকে ও তার স্ত্রীকে হাসপাতালে যেতে হয়েছিল। আক্রমণের উৎস অজানা থেকে যায়। সাংবাদিকদের সংগঠনগুলো দাবি করেছেন তিনি টেলিভিশন টকশোতে কথা বলেন তাই তার ওপর এ হামলা হয়েছে।[২][৭][৮]

প্রকাশিত গ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • বাংলাদেশ প্রেস প্রেস ফ্রিডম ২০০৫
  • সংবাদপত্রে স্টানিয়ার সরকার বিষয়ে সেরা লেখা সংকলন (সংবাদপত্রের স্থানীয় সরকার সম্পর্কিত সেরা নিবন্ধসমূহের সংকলন)
  • বাংলাদেশের ১০ শহরে সাংবাদিকতায় নারারী
  • মাধ্যম ২০০৪
  • স্থানীয় সরকার ও সাংবাদিকতা
  • সংবাদপত্রে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ২০০৩
  • নোবিশি প্রোটিবডন
  • লিঙ্গ, প্রচার মাধ্যম ও সাংবাদিকতা
  • বাংলাদেশের সংবাদপত্রে স্মরণীয় পরিবর্তন
  • বাংলাদেশ সাংবাদিকতা পর্যালোচনা : নারী ও মিডিয়া
  • অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. [Amader Orthoneeti has been being published from Dhaka since 2008.
  2. "In Bangladesh, press attacked with explosives"Committee to Protect Journalists। ৪ মার্চ ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মার্চ ২০১৩ 
  3. Khoborer Kagoj published a weekly column by Mymensingh-based poet and gynaecologist Taslima Nasreen.
  4. "Drug traffickers target provincial newspaper "Andoloner Bazar", journalist found dead"IFEX.org। ৮ আগস্ট ২০০২। ১৬ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ এপ্রিল ২০১৩ 
  5. [১][অকার্যকর সংযোগ]
  6. "আমাদের সময়ের সম্পাদক ও প্রকাশকের পদ হারালেন নাঈম"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মে ২০১৯ 
  7. Gaydazhieva, Stanislava (১৩ মার্চ ২০১৩)। "IFJ speaks in defence of attacked Bangladeshi editor"New Europe। ১৫ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মার্চ ২০১৩ 
  8. "Journalist Naimul Islam Khan injured"bdnews24.com। ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মার্চ ২০১৩