নাইটস ক্রিকেট দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভিকেবি নাইটস
নাইটস ক্রিকেট দল লোগো.svg
কর্মীবৃন্দ
অধিনায়কদক্ষিণ আফ্রিকা ওয়ার্নার কোৎসি
কোচদক্ষিণ আফ্রিকা নিকি বোয়ে
বিদেশী খেলোয়াড়জ্যামাইকা আন্দ্রে রাসেল
দলীয় তথ্য
রঙ     নীল      স্বর্ণালী
প্রতিষ্ঠাকাল২০০৩
স্বাগতিক ভেন্যুম্যানগং ওভাল, ডায়মন্ড ওভাল
ধারণক্ষমতা২০,০০০
অফিসিয়াল ওয়েবসাইটনাইটস

First-class

টি২০আই কিট

ভিকেবি নাইটস দক্ষিণ আফ্রিকার বিশেষ প্রাধিকারপ্রাপ্ত ক্রিকেট দল। ফ্রি স্টেটগ্রিকুয়াল্যান্ড ওয়েস্টের প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট অঞ্চলকে একীভূত করে এ দলটি গঠিত হয়েছে। পূর্বে দলটি ডায়মন্ড ঈগলস নামে প্রতিযোগিতায় অবতীর্ণ হয়েছিল। ব্লুমফন্তেইনের ম্যানগং ওভাল ও কিম্বার্লীর ডায়মন্ড ওভালে অতিথি দলগুলোর সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। সানফয়েল সিরিজ, মোমেন্টাম ওয়ান ডে কাপর‍্যাম স্ল্যাম টি২০ চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতায় দলটি অংশ নেয়।

পোষাক সরবরাহ[সম্পাদনা]

মোমেন্টাম ওয়ান ডে কাপ প্রতিযোগিতায় নাইটস দল গাঢ় নীল শার্ট ও সোনালী রঙের ট্রাউজার পরিহিত অবস্থায় খেলে। র‍্যাম স্ল্যাম টি২০ চ্যালেঞ্জে গাঢ় নীল শার্টের সাথে সোনালী রঙের ছটা ও সোনালী ট্রাউজারের গাঢ় নীলের ছটা পরিহিত অবস্থায় খেলতে নামে। বর্তমানে টিকে স্পোর্ট তাদের পোশাক সরবরাহের দায়িত্ব পালন করছে।

চ্যাম্পিয়ন্স লীগ টি২০[সম্পাদনা]

২০০৯ সালের স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক প্রো২০ প্রতিযোগিতায় ডায়মন্ড ঈগলস দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে। ফলশ্রুতিতে, ২০০৯ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লীগ টুয়েন্টি২০ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করে। বি গ্রুপে নিউ সাউথ ওয়েলস ব্লুজ ও সাসেক্স শার্কসের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবতীর্ণ হয়। প্রথম খেলায় নিউ সাউথ ওয়েলসের বিপক্ষে ১০০ রান তুলতে পারেনি ও ৯১/৯ রান তুলে। তবে, দ্বিতীয় খেলায় সাসেক্স শার্কসের সাথে টাই করে। সাসেক্সের ১১৯/৭-এর বিপরীতে ঈগলস ১১৯/৪ তুলে। সুপার ওভারে ঈগলস জয় পায়। সুপার ওভারে ঈগলস ৯/১ তুলে। অন্যদিকে, সাসেক্স কর্নেলিয়াস ডি ভিলিয়ার্সের প্রথম দুই বলে কুপোকাত হয়। রাইলি রুশো ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার লাভ করে।

পরবর্তী লিগ এ রাউন্ডে নিউ সাউথ ওয়েলস ব্লুজ, সমারসেট স্যাবার্স এবং ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর মুখোমুখি হয়। ব্লুজের কাছে আবারও পরাজিত হয় ও সমারসেট স্যাবার্সের বিপক্ষে জয়ী হয়। অবশ্যই জয়ী হবার স্বপ্ন নিয়ে ত্রিনিদাদের বিপক্ষে পরাজিত হয়। ঐ খেলায় আবারও সিজে ডি ভিলিয়ার্স বেশ ভালোমানের ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন করেন। সেমি-ফাইনালে প্রবেশ করতে না পারলেও ১২ দলের ঐ প্রতিযোগিতায় তারা সপ্তম স্থান অধিকার করে।

সম্মাননা[সম্পাদনা]

  • সুপারস্পোর্ট সিরিজ (১) - ২০০৭-০৮; যৌথভাবে (১) - ২০০৪-০৫
  • এমটিএ চ্যাম্পিয়নশীপ (২) - ২০০৪-০৫, ২০০৫-০৬, ২০১০-১১
  • প্রো২০ সিরিজ (২) - ২০০৩-০৪, ২০০৫-০৬

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  • South African Cricket Annual – various editions
  • Wisden Cricketers' Almanack – various editions

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]