নাইজেরিয়ার ভূগোল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নাইজেরিয়ার অবস্থান
নাইজেরিয়ার জলবায়ু শ্রেণিবিন্যাস মানচিত্র (কপিন পদ্ধতি)

নাইজেরিয়া পশ্চিম আফ্রিকার একটি দেশ। নাইজেরিয়া, পশ্চিমে প্রজাতান্ত্রিক বেনিন, পূর্বে চাদ এবং ক্যামেরুন এবং উত্তরে নাইজার-এর সাথে স্থল সীমানা ভাগ করে নিয়েছে। এর দক্ষিণ-পূর্ব সীমানায়, এখনও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত নয়, এমন স্ব-ঘোষিত রাষ্ট্র আম্বাজোনিয়া অবস্থিত। দক্ষিণ দিকের গিনি উপসাগর-এর উপকূলে অবস্থিত লেক চাদ হ'ল দেশটির উত্তর-পূর্ব সীমানা। দক্ষিণ-পূর্ব দিকের সীমানাতেও রয়েছে আম্বাজোনিয়া নামের বিচ্ছিন্ন রাষ্ট্রটি।[১] নাইজেরিয়ার উল্লেখযোগ্য ভৌগোলিক বৈশিষ্ট্যের মধ্যে রয়েছে অ্যাডামাওয়া উচ্চভূমি, মাম্বিলা মালভূমি, জোস মালভূমি, ওবুদু মালভূমি, নাইজার নদী, রিভার বেন্যু এবং নাইজার বদ্বীপ

আলোচ্য বিষয়বস্তু মরসুমী স্যাঁতসেঁতে এবং খুব আর্দ্র জলবায়ু হলেই নাইজেরিয়ার নাম সেখানে অনিবার্যভাবে এসে পড়বে। নাইজেরিয়ার জলবায়ুর ধরণ চার রকমের। নাইজেরিয়ার দক্ষিণ অংশ থেকে নাইজেরিয়ার মধ্যবর্তী অঞ্চল হ'য়ে নাইজেরিয়ার উত্তর অংশ-এ প্রতিটি জলবায়ুর ধরন আলাদা আলাদা পৃথক করে চেনা যায়।

নাইজেরিয়ায় প্রাপ্ত জলবায়ুর ধরণ [সম্পাদনা]

দক্ষিণ-পূর্ব নাইজেরিয়ায় বৃষ্টির দিন।

দেশের দক্ষিণাঞ্চলে দেখা যায় ক্রান্তীয় মৌসুমী জলবায়ু, যা কোপিন জলবায়ু শ্রেণিবিন্যাস-এ "এএম" ব'লে পরিচিত। এই জলবায়ু দক্ষিণ আটলান্টিক মহাসাগর থেকে উদ্ভূত মৌসুমী বায়ু দ্বারা প্রভাবিত। এর ফলে একটি উষ্ণ আর্দ্র সামুদ্রিক বায়ু এখানে অবতরণ করে। এর উষ্ণতা এবং উচ্চ আর্দ্রতার কারণে প্রচুর বৃষ্টিপাত ঘটে। এটি বাতাসে থাকা জলীয় বাষ্পের দ্রুত ঘনীভবনের ফলে ঘটে।[২]

ক্রান্তীয় মৌসুমি জলবায়ুতে তাপমাত্রার পরিসর খুব অল্প। তারপরে তাপমাত্রার পরিসর সারা বছর ধরে প্রায় স্থির থাকে। যেমন উদাহরণ হিসাবে বলা যায়, নাইজেরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলের ওয়ারি শহরটিতে সবচেয়ে উষ্ণতম মাসে সর্বোচ্চ ২৮ °সে (৮২.৪ °ফা) রেকর্ড থাকে এবং শীতলতম মাসে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকে ২৬ °সে (৭৮.৮ °ফা)। ওয়ারি শহরের তাপমাত্রার পার্থক্য ২ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড (৫ ডিগ্রি ফারেনহাইট) এর বেশি নয়।

নাইজেরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে ভারী ও প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়। নিরক্ষীয় বলয়-এর সান্নিধ্যে থাকার কারণে এখানের ঝড়গুলি সাধারণত পরিচলন প্রকৃতির হয়ে থাকে। এই অঞ্চলের বার্ষিক বৃষ্টিপাতের পরিমান খুব বেশি থাকে। তা সাধারণত হয় ২,০০০ মিমি (৭৮.৭ ইঞ্চি) এর উপরে। এই পরিমাণ হ'ল সারা বিশ্বজুড়ে ক্রান্তীয় অতিবৃষ্টি অরণ্য জলবায়ুর একটি উল্লেখযোগ্য অংশ। নাইজার বদ্বীপ অঞ্চলের আশেপাশে নাইজেরিয়ার উপকূলীয় অঞ্চলে ৪,০০০ মিমি (১৫৭.৫ ইঞ্চি) এর উপর বৃষ্টিপাত হয়। দক্ষিণ নাইজেরিয়ার নাইজার বদ্বীপের উপকূলে বনি শহরে বার্ষিক বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ৪,০০০ মিমি (১৫৭.৫ ইঞ্চি) এর বেশি হয়। দক্ষিণ-পূর্ব দিকের বাকি অংশগুলিতে প্রতি বছর ২,০০০ থেকে ৩,০০০ মিমি (১১৮.১ ইঞ্চি) এর মধ্যে বৃষ্টিপাত থাকে।

নাইজেরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে দুবার সর্ব্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের সময় চিহ্নিত করা যায়। এই সময়ের মাঝে একটি করে স্বল্প শুকনো মরসুম দেখা যায়। প্রথম বর্ষার মরসুম শুরু হয় মার্চ মাসের দিকে এবং চলে জুনের শেষ পর্যন্ত। তখনই বৃষ্টিপাতের সর্ব্বোচ্চ মাত্রায় গিয়ে পৌঁছোয়। তারপর আগস্ট মাসের দিকে বৃষ্টির ছোট্ট একটি চ্ছেদ পড়ে এবং সেটি হয় আগস্টের দু'শ তিন সপ্তাহ ধরে। একে বলা হয় আগস্ট বিরতি (আগস্ট ব্রেক)। সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে এই বিরতির পর আবার সংক্ষিপ্ত বর্ষা শুরু হয় এবং চালু থাকে অক্টোবরের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত। এই শেষ পর্বেই আবার বৃষ্টিপাতের সর্ব্বোচ্চ মাত্রায় গিয়ে পৌঁছোয়। অক্টোবর মাসে স্বল্প বর্ষার সমাপ্তির পর শুরু হয় দীর্ঘ শুকনো মরসুম। এই মরসুম শুরু হয় অক্টোবরের শেষ থেকে মার্চ মাসের শুরু পর্যন্ত। ডিসেম্বরের শুরু থেকে ফেব্রুয়ারির শেষের মধ্যে স্থায়ী হয় সর্ব্বোচ্চ শুকনো মরশুম।[৩]

ক্রান্তীয় সাভানা জলবায়ু বা ক্রান্তীয় সিক্ত এবং শুষ্ক জলবায়ু অঞ্চলটি সুবিস্তৃত। বেশিরভাগ পশ্চিম নাইজেরিয়া থেকে মধ্য নাইজেরিয়া পর্যন্ত দক্ষিণ নাইজেরিয়া থেকে নাইজেরিয়ার কেন্দ্রীয় অংশের ক্রান্তীয় অতিবৃষ্টি অরণ্য জলবায়ুর সীমানা তার অন্তর্গত।

নিরক্ষরেখা থেকে দূরত্বের কারণে একটি সর্বোচ্চ গ্রীষ্ম (সামার ম্যাক্সিমাম) নামে পরিচিত গ্রীষ্ম সহ এই ক্রান্তীয় সাভানা জলবায়ুতে ভালভাবে চিহ্নিত বর্ষা এবং শুষ্ক মরসুম দেখা যায়। সারা বছরের তাপমাত্রা থাকে ১৮ °সে (৬৪ °ফা) এর উপরে। নাইজেরিয়ার রাজধানী আবুজা শহরটি মধ্য নাইজেরিয়ায় অবস্থিত এবং তার তাপমাত্রার ব্যাপ্তি ১৮.৪৫ °সে (৬৫.২১ °ফা) থেকে ৩৬.৯ °সে (৯৮.৪ °ফা) পর্যন্ত। সেপ্টেম্বরে এখানে একক বৃষ্টিপাত ম্যাক্সিমা-সহ বাৎসরিক বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ১,৫০০ মিমি (৫৯.১ ইঞ্চি)।[৪]

এই জলবায়ুতে একটি শুষ্ক মরসুম দেখা যায়। মধ্য নাইজেরিয়ার ক্রান্তীয় সাভানা জলবায়ু ডিসেম্বর থেকে মার্চ পর্যন্ত শুরু হয়। সে সময় হারম্যাটান বাতাস-সহ গরম এবং শুষ্ক পরিবেশ থাকে এবং সাহারা মরুভূমির ধূলিকণা ভরা একটি মহাদেশীয় ক্রান্তীয় (সিটি) এয়ারমাস পুরো সময় জুড়ে সেখানে বিরাজ করে।

এপ্রিলে উত্তর দিকে ঘুরে যাওয়া ইন্টারট্রপিকাল কনভার্জেন্স জোন (আইটিসিজেড)-এর জন্য দক্ষিণ গোলার্ধ-এ অবস্থিত পশ্চিম আফ্রিকা জুড়ে মূলত স্কোয়াল রেখায় প্রাক-বর্ষার পরিচলন মেঘের প্রবল বৃষ্টিপাত দেখা দেয়। মূলত দুটি প্রভাবশালী এয়ারম্যাসের মিথস্ক্রিয়ার ফলে গঠিত উত্তরের পূবালী বাতাস নামেও এই রেখাটি পরিচিত। এটিই আবার নাইজেরিয়ায় উপকূলবর্তী ক্রান্তীয় (দক্ষিণ দিকের পশ্চিমা বাতাস) এবং মহাদেশীয় গ্রীষ্মমণ্ডল (উত্তর দিকের পূবালী বাতাস) নামে পরিচিত।[৫] সেটি আসে জুলাই মাসে যখন দক্ষিণ আটলান্টিক মহাসাগর থেকে প্রবল আদ্রতাপূর্ণ মৌসুমী বাতাস মধ্য নাইজেরিয়ায় এসে পোঁছোয়। তখন তার জেরে প্রচন্ড মেঘ ও ভারী বৃষ্টিপাত ঘটে। তখন সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এটি নিত্যদিনেরই ঘটনা হতে পারে। তারপর বর্ষা ধীরে ধীরে দক্ষিণ দিকে নাইজেরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে পশ্চাদপসরণ শুরু করে। মধ্য নাইজেরিয়ার বৃষ্টিপাতের পরিমাণ থাকে নাইজার বেন্যু নদীর নিন্ম অঞ্চলে ১,১০০ মিমি (৪৩.৩ ইঞ্চি) থেকে দক্ষিণ পশ্চিমের জোস মালভূমি খাড়া উঁচু পাহাড় বরবর ২,০০০ মিমি (৭৮.৭ ইঞ্চি) পর্যন্ত।

সাহেল জলবায়ু বা ক্রান্তীয় শুষ্ক জলবায়ু হ'ল নাইজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলের প্রধান প্রকৃতির জলবায়ু। বার্ষিক বৃষ্টিপাতের পরিমাণ নাইজেরিয়ার দক্ষিণ ও মধ্য অংশের তুলনায় কম। নাইজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলে বর্ষা মৌসুমটি তিন থেকে চার মাস (জুন-সেপ্টেম্বর) স্থায়ী হয়। বছরের বাকি সময়ে গরম এবং শুষ্ক থাকে। তখন সর্ব্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকে ৪০ °সে (১০৪.০ °ফা)। নাইজেরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলের ইয়োব রাজ্যের পটিসকামে নাইজেরিয়ার সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড হয় ২.৮ °সে (৩৭.০ °ফা)।

অ্যালপাইন জলবায়ু বা উচ্চভূমি জলবায়ু বা পার্বত্য জলবায়ু নাইজেরিয়ার উচ্চভূমি অঞ্চলে পাওয়া যায়। নাইজেরিয়ার অ্যালপাইন জলবায়ু সহ উচ্চভূমি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১,৫২০ মিটার (৪,৯৮৭ ফু) এরও বেশি উপরে অবস্থিত। ক্রান্তীয় অঞ্চলে তাদের অবস্থানের কারণে, এই উঁচু ক্রান্তীয় অঞ্চলটি নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু রেখায় পৌঁছানোর পক্ষে যথেষ্ট উচ্চতর। ফলে এই উচ্চভূমি, পর্বতমালা এবং মালভূমি অঞ্চল এই উচ্চতার উপরে থেকে একটি শীতল পাহাড়ী জলবায়ু লাভ করেছে ব'লে দেখা যায়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Ngo, M. B. E. "Human Rights Issues in Cameroon in the Case of the Independentists Arrested in Nigeria and Extradited to Cameroon." Human Rights Issues in Cameroon in the Case of the Independentists Arrested in Nigeria and Extradited to Cameroon (October 21, 2019) (2019).
  2. "Monsoon - meteorology"britannica.com 
  3. "Archived copy"। ২০১১-০৫-১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৫-২৭ 
  4. http://iahs.info/redbooks/a281/iahs_281_277.pdf
  5. Adedoyin J. A. (১৯৮৯)। "Initiation of West African squall lines"। Meteorology and Atmospheric Physics41: 99–103। ডিওআই:10.1007/BF01043455 

উৎস[সম্পাদনা]