নরোদম রানারিধ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মহামান্য
সামডেচ ক্রম প্রেহ

নরোদম রানারিধ
នរោត្ដម រណឫទ្ធិ
Ranariddh self portrait.jpg
জাতীয় পরিষদের ৩য় সভাপতি
কাজের মেয়াদ
২৫ নভেম্বর, ১৯৯৮ – ১৪ মার্চ, ২০০৬
প্রধানমন্ত্রীহুন সেন
উপরাষ্ট্রপতিহেং সামরিন
গুন হেল
পূর্বসূরীচি সিম
উত্তরসূরীহেং সামরিন
কম্বোডিয়ার ৩৫তম প্রধানমন্ত্রী
প্রথম কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
২ জুলাই, ১৯৯৩ – ৬ জুলাই, ১৯৯৭
রাষ্ট্রশাসকনরোদম সিহানুক
পূর্বসূরীহুন সেন
উত্তরসূরীআং হুত
ফুনকিনপেক পার্টির সভাপতি
দায়িত্বপ্রাপ্ত
অধিকৃত অফিস
১৯ জানুয়ারি, ২০১৫
পূর্বসূরীনরোদম অরুণরশ্মি
কাজের মেয়াদ
ফেব্রুয়ারি, ১৯৯২ – ১৮ অক্টোবর, ২০০৬
পূর্বসূরীহায়েক তিওলং
উত্তরসূরীকিও পুথ রশ্মি
নরোদম রানারিধ পার্টির সভাপতি
কাজের মেয়াদ
নভেম্বর, ২০০৬ – অক্টোবর, ২০০৮
পূর্বসূরীপদ সৃষ্ট
উত্তরসূরীচিম সিক লেং
কাজের মেয়াদ
ডিসেম্বর, ২০১০ – আগস্ট, ২০১২
পূর্বসূরীচিম সিক লেং
উত্তরসূরীফেং হেং
কমিউনিটি অব রয়্যালিস্ট পিপলস পার্টির সভাপতি
কাজের মেয়াদ
১৬ মার্চ, ২০১৪ – ১৭ জানুয়ারি, ২০১৫
পূর্বসূরীপদ সৃষ্ট
উত্তরসূরীপদ বিলুপ্ত
কেমপং চামের
সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
২ জুলাই, ১৯৯৩ – ১২ ডিসেম্বর, ২০০৬
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (১৯৪৪-০১-০২) ২ জানুয়ারি ১৯৪৪ (বয়স ৭৪)
নম পেন, কম্বোডিয়া
রাজনৈতিক দলফুনকিনপেক পার্টি (১৯৮৩-২০০৬; ২০১৫-বর্তমান)
অন্যান্য রাজনৈতিক দলকমিউনিটি অব রয়্যালিস্ট পিপলস পার্টি (২০১৪-১৫)
নরোদম রানারিধ পার্টি (২০০৬-০৮; ২০১০-১২)
দাম্পত্য সঙ্গীইং ম্যারি
(বি. ১৯৬৮; বিচ্ছেদ. ২০১০)
ওক ফালা
(বি. ২০১০–বর্তমান)
সন্তাননরোদম চক্রবুত
নরোদম সিহরিদ
নরোদম রত্না দেবী
নরোদম সথিয়ারিধ
নরোদম রানাভং
পিতামাতানরোদম সিহানুক
ফাত কানহোল
প্রাক্তন শিক্ষার্থীপ্রভেন্স বিশ্ববিদ্যালয়
ধর্মবৌদ্ধ ধর্ম
বংশনরোদম বংশ
ওয়েবসাইটOfficial website

নরোদম রানারিধ (খ্‌মের: នរោត្តម រណឫទ្ធិ; জন্ম: ২ জানুয়ারি, ১৯৪৪) নম পেনে জন্মগ্রহণকারী কম্বোডিয়ার রাজপুত্র, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও আইনজীবী। ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৭ মেয়াদে কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। কম্বোডিয়ার প্রয়াত রাজা নরোদম সিহানুকের দ্বিতীয় পুত্র ও বর্তমান রাজা নরোদম শিয়ামনি’র সৎ ভাই তিনি।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

সিহানুকের প্রথম স্ত্রী[১] ও ব্যালে নর্তকী ফাত কানহোলের গর্ভে রানারিধের জন্ম।[২][৩] তিন বছর বয়সে ১৯৪৭ সালে তাঁর মা পুণঃবিবাহ চাপ হুত নামের এক মেজরকে বিয়ে করলে নরোদম কেতকানায়া ও নরোদম সোভানা’র কাছে শৈশবকাল অতিবাহিত করেন।[৪] নরোদম স্কুলে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনান্তে নম পেনের লিস ডেকার্টসে অধ্যয়ন করেন।[৫] এ সময় তিনি রাজা সুরামারিত ও রাণী কোসামাকের সাথে নৈকট্যপূর্ণ সম্পর্ক রাখেন কিন্তু বাবার কাছ থেকে দূরে রাখেন নিজেকে।[৬] প্রভেন্স বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেন। আইন গবেষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন ও ফ্রান্সে বক্তব্য দেন।

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

১৯৮১ সালে সিহানুক ফুনকিনপেক দল গঠন করেন। কিন্তু, খেমার রুজদের সাথে সম্পর্ক থাকায় তিনি পিতার অনুরোধকে অস্বীকার করেন।[৭] পরবর্তীতে ১৯৮৩ সালে ফুনকিনপেক নামীয় ঐ রাজনৈতিক দলে যোগ দেন ও সিহানুকের ব্যক্তিগত প্রতিনিধি হিসেবে মনোনীত হন।[৮] ১৯৮৫ সালে আর্মি ন্যাশিওন্যাল সিহানুকিস্তের ইন্সপেক্টর জেনারেল হন।[৯] পরবর্তীতে চিফ-অব-স্টাফ এবং কমান্ডার-ইন-চিফের পদোন্নতি পান।[১০] ১৯৮৯ সালে ফুনকিনপেকের মহাসচিব হলে সিহানুক সভাপতির পদ থেকে নিজেকে দূরে রাখেন।[১১] ১৯৯১ সালে প্যারিসে কম্বোডিয়া-ভিয়েতনাম যুদ্ধের বিষয়ে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এতে কম্বোডিয়ার সুপ্রিম ন্যাশনাল কাউন্সিলের পক্ষে তিনিও অন্যতম স্বাক্ষরদাতা হন।[৯] ১৯৯২ সালে দলের সভাপতির দায়িত্ব পান রানারিধ।[১২]

প্রধানমন্ত্রীত্ব গ্রহণ[সম্পাদনা]

১৯৯৩ সালের কম্বোডিয়ার সাধারণ নির্বাচনে দল অধিকসংখ্যক আসন পাওয়া স্বত্ত্বেও জোট সরকার গঠন করতে হয়।[১৩][১৪] ঐ সরকারে তিনি প্রথম প্রধানমন্ত্রী ও হুন সেনকে দ্বিতীয় প্রধানমন্ত্রী মনোনীত হন।[১৫]

১৯৯৬ থেকে রানারিধ ও হুন সেনের মধ্যে সম্পর্কের তিক্ততা বৃদ্ধি পেতে থাকে।[১৬][১৭] আগস্ট, ১৯৯৭ সালে সেনা সমর্থিত কম্বোডিয়ান পিপলস পার্ট (সিপিপি) ও ফুনকিনপেকের মধ্যে সংঘর্ষের প্রেক্ষিতে প্রথম প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে উৎখাত হন।[১৮] চোরাচালান ও খেমার রুজদের সাথে যোগসাজসে দেশে অস্থিরতা সৃষ্টির কারণে ৩৫ বৎসরের কারাদণ্ডে দোষীসাব্যস্ত করা হয়। পরবর্তীতে সিহানুকের সাধারণ ক্ষমায় মার্চ, ১৯৯৮ সালে কম্বোডিয়ায় প্রত্যাবর্তন করেন।[১৯][২০]

১৯৯৮ সালের নির্বাচনে ফুনকিনপেককে নেতৃত্ব দেন ও সিপিপি’র কাছে পরাজিত হন। নির্বাচনের ফলাফলকে তিনি প্রত্যাখ্যান করেন।[২১] এরপর সিপিপি’র সাথে জোট সরকার গঠন করেন। নভেম্বর, ১৯৯৮ সালে জাতীয় পরিষদের সভাপতি হন।[২২]

রাজ সিংহাসন বিতর্ক[সম্পাদনা]

সিহানুকের ক্যান্সারের[২৩] চিকিৎসা শেষে নভেম্বর, ১৯৯৩ সালে উত্তরাধিকারী নিয়ে বিতর্কের সূচনা ঘটে।[২৪] ২০০১ সালের পূর্ব-পর্যন্ত কম্বোডিয়ার রাজা হিসেবে সিহানুকের সম্ভাব্য উত্তরাধিকারী হিসেবে তাঁকে গণ্য করা হতো। দুইটি প্রতিবেদনে জানা যায়, সিংহাসনে বসার তাঁর আগ্রহ ছিল না।[২৪][২৫] জাতীয় পরিষদের সভাপতি হিসেবে সিংহাসন কাউন্সিলের নয় সদস্যের একজন ছিলেন। কিন্তু শিয়ামনিকে সিহানুকের স্থান দেয়া হয়।[২৬][২৭]

অবসর ও প্রত্যাবর্তন[সম্পাদনা]

মার্চ, ২০০৬ সালে জাতীয় পরিষদের সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দেন। অক্টোবর, ২০০৬ সালে ফুনকিনপেকের সভাপতি থেকেও তিনি দূরে সরে যান। পরের মাসেই রানারিধ নিজস্ব দল নরোদম রানারিধ পার্টি (এনআরপি) গঠন করেন। দুইটি ফৌজদারী অপরাধে ৩৫ বৎসরের কারাদণ্ডে দোষীসাব্যস্ত করায় তিনি মালয়েশিয়া চলে যান।[২৮] মার্চ, ২০০৭ সালে তাঁকে তাঁর অনুপস্থিতিতে বিচারকার্য পরিচালিত হয়। পরবর্তীতে সেপ্টেম্বর, ২০০৮ সালে শিয়ামনি তাঁকে দোষমুক্ত ঘোষণা করেন। কম্বোডিয়ায় ফিরে আসার পর রাজনীতি থেকে নিজেকে অবসরের ঘোষণা দেন।[২৯] ডিসেম্বর, ২০০৮ সালে সুপ্রিম প্রিভি কাউন্সিলের সভাপতি হিসেবে মনোনীত হন।[৩০] ডিসেম্বর, ২০১০ সালে অবসর ভেঙ্গে এনআরপিকে নেতৃত্ব দেন।[৩১] এরপর তিনি ফুনকিনপেকের সাথে এনআরপিকে একীভূত করার চেষ্টা চালান। এতে ব্যর্থ হয়ে তিনি দ্বিতীয়বারের মতো অবসর নেন।[৩২] মার্চ, ২০১৪ সালে অবসর ভেঙ্গে কমিউনিটি অব রয়্যালিস্ট পিপলস পার্টি (সিআরপিপি) গঠন করেন।[৩৩] জানুয়ারি, ২০১৫ সালে রানারিধ সিআরপিপি’র বিলুপ্তি ঘোষণা দেন ও হুন সেনের অনুরোধক্রমে ফুনকিনপেকে ফিরে আসেন।[৩৪] এরপর থেকে তিনি ফুনকিনপেকের সভাপতি হিসেবে পুণঃনির্বাচিত হন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

১৯৬৮-এর শুরুর দিকে প্রথমা স্ত্রী মুসলিম বংশোদ্ভূত ইং ম্যারি’র সাথে পরিচিত হন।[৩৫][৩৬] সেপ্টেম্বর, ১৯৬৮ সালে রাজপ্রাসাদে তাঁদের বিবাহকার্য সম্পন্ন হয়।[৩৭] এ সংসারে তিন সন্তান রয়েছে। মার্চ, ২০০৬ সালে ওক ফালা’র সাথে সম্পর্ক গড়ার কারণে তাঁদের মধ্যকার বিবাহ-বিচ্ছেদের সূচনা ঘটে।[৩৮] জুন, ২০১০ সালে বিবাহ-বিচ্ছেদ ঘটে।[৩৯]

ওক ফালা’র সংসারে দুই পুত্র রয়েছে।[৪০][৪১] রাজা সিসোওয়াথের বংশোদ্ভূত ফালা ধ্রুপদী নর্তকী ছিলেন।[৪২] ২০০২ সালে রাজা বরি নামের একটি চলচ্চিত্র পরিচালনার সময় রানারিধের সাথে তাঁর পরিচয় ঘটে।[৪৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Mehta (2001), p. 3
  2. Mehta (2001), p. 1
  3. Mehta (2001), p. 2
  4. Mehta (2001), p. 4
  5. Mehta (2001), p. 7
  6. Mehta (2001), p. 6
  7. Mehta (2001), p. 66
  8. Mehta (2001), p. 67
  9. Narong (2005), p. 204
  10. Mehta (2001), p. 184
  11. Mehta (2001), p. 82
  12. Widyono (2008), p. 154
  13. Widyono (2008), p. 124
  14. Mehta (2001), p. 104
  15. Widyono (2008), p. 129
  16. Jason Barber (২৬ জুলাই ১৯৯৬)। "Hun Sen takes hard line at party summit"Phnom Penh Post। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  17. Brad Adams (২৮ জুলাই ১৯৯৬)। "Cambodia: July 1997: Shock and Aftermath"Human Rights Watch। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  18. Peou (2000), p. 298
  19. Robert Birsel (২৪ মার্চ ১৯৯৮)। "Pardon for Ranariddh revives peace hopes"Manila Standard। পৃষ্ঠা 15। সংগ্রহের তারিখ ৩০ অক্টোবর ২০১৫ 
  20. Widyono (2008), p. 266
  21. Post Staff (৩১ জুলাই ১৯৯৮)। "NEC investigates allegations of fraud"Phnom Penh Post। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  22. Widyono (2008), p. 267-8
  23. Mehta (2001), p. 175
  24. Bronwyn Curran (৩ ডিসেম্বর ১৯৯৩)। "Wither the throne?"Phnom Penh Post। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৫ 
  25. Jason Barber (২২ মার্চ ১৯৯৬)। "Royal trumps on the table, aces up the sleeve"Phnom Penh Post। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ জানুয়ারি ২০১৫ 
  26. LOR CHANDARA (১৪ নভেম্বর ২০০১)। "Prince Opts For Politics, Not Throne"The Cambodia Daily। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  27. Yun Samean (১৫ অক্টোবর ২০০৪)। "Throne Council Selects Sihamoni to be the Next King"The Cambodia Daily। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জানুয়ারি ২০১৫ 
  28. Summers (2003), p. 237
  29. Cat Barton and Vong Sokheng (৩ অক্টোবর ২০০৮)। "Ranariddh quits politics"Phnom Penh Post। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  30. Neth Pheaktra and Brendan Brady (১১ ডিসেম্বর ২০০৮)। "Ranariddh appointed King Sihamoni's new top adviser: Palace"Phnom Penh Post। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  31. Neth Pheaktra and Sebastian Strangio (২০ ডিসেম্বর ২০১০)। "Ranariddh speaks out"Phnom Penh Post। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  32. Vong Sokheng and Bridget Di Certo (১৩ আগস্ট ২০১২)। "Royal exits Cambodia's politics again"Phnom Penh Post। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  33. HUL REAKSMEY AND COLIN MEYN (১৭ মার্চ ২০১৪)। "Ranariddh Plays to Old Politics With New Party"The Cambodia Daily। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  34. T. Mohan (৪ জানুয়ারি ২০১৫)। "Presidency of Funcinpec: Inevitable Says Prince Ranariddh"Khmer Times। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  35. Mehta (2001), p. 24
  36. Widyono (2008), p. 153
  37. Mehta (2001), p. 22
  38. Widoyono (2008), p. 278
  39. Vong Sokheng (১০ জুন ২০১০)। "Ranariddhs reach a settlement"Phnom Penh Post। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  40. YUN SAMEAN (১৮ ডিসেম্বর ২০০৬)। "Princess Marie: Ranariddh Broke 'Mistress Law'"The Cambodia Daily। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  41. Norodom (2014), p. 10
  42. YUN SAMEAN (২ মার্চ ২০০৬)। "Mistress Cited In Firing of F'pec Official"The Cambodia Daily। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  43. BRIAN CALVERT (৬ মে ২০০২)। "Culture Central to Prince's First Film"The Cambodia Daily। ১৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১৫ 

গ্রন্থপঞ্জী[সম্পাদনা]

রাজনৈতিক দপ্তর
পূর্বসূরী
হুন সেন
কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী
১৯৯৩-১৯৯৭
উত্তরসূরী
আং হুত
পূর্বসূরী
চি সিম
কম্বোডিয়ার জাতীয় পরিষদের সভাপতি
১৯৯৮-২০০৬
উত্তরসূরী
হেং সামরিন
পার্টির রাজনৈতিক কার্যালয়
পূর্বসূরী
নরোদম অরুণরশ্মি
ফুনকিনপেক পার্টির সভাপতি
২০১৫–বর্তমান
নির্ধারিত হয়নি
নতুন অফিস কমিউনিটি অব রয়্যালিস্ট পিপলস পার্টির সভাপতি
২০১৪-২০১৫
পদ বিলুপ্ত
সিআরপিপি’র সাথে একীভূত
নতুন অফিস নরোদম রানারিধ পার্টির সভাপতি
২০০৬-২০০৮
উত্তরসূরী
চিম সায়েক লেং
পূর্বসূরী
হায়েক তিওলং
ফুনকিনপেক পার্টির সভাপতি
১৯৯২-২০০৬
উত্তরসূরী
কিও পুথ রশ্মি