নরফুক, ভার্জিনিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

নরফোক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের একটি স্ব-শাসিত শহর। ২০১০ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী এর জনসংখ্যা ছিল ২,৪২,৮০৩।[১] ২০১৯ সালে এর প্রাক্কলিত জনসংখ্যা ২,৪২,৭৪২। এটি জনসংখ্যায় ভার্জিনিয়ার তৃতীয় বৃহত্তম ও যুক্তরাষ্ট্রের ৯১-তম বৃহত্তম শহর।

নরফোক শহরটি হ্যাম্পটন রোড মেট্রোপলিটন এলাকার প্রধান শহর। শহরটি পশ্চিমে এলিজাবেথ নদী ও উত্তরে চেসাপিক উপসাগর দ্বারা বেষ্টিত।

সামরিক কার্যপরিচালনা ও পরিবহন- উভয় ক্ষেত্রেই নরফোক শহরের বিশেষ গুরুত্ব বিদ্যমান। ১৮৯০ সালে নরফোক আটলান্টিক ও ড্যানভিল রেলসড়কে সর্বশেষ গন্তব্য হিসেবে সংযুক্ত হয়।[২] পৃথিবীর সবচেয়ে বড় নৌঘাঁটি "নরফোক নৌ স্টেশন" এখানেই অবস্থিত। এছাড়াও নরফোক শহরে ন্যাটোর একটি কার্যালয় রয়েছে। এছাড়াও এখানে নরফোক দক্ষিণাঞ্চলীয় রেলপথের বাণিজ্যিক কার্যালয় অবস্থিত, যদিও এর কার্যক্রম ভবিষ্যতে জর্জিয়ার আটলান্টা শহরে স্থানান্তরিত হবে। আমেরিকার পতাকাবাহী নৌজাহাজসমূহের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ববাহী মায়ের্স্ক লাইন লিমিটেড-ও এখানে কার্যক্রম পরিচালনা করে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৬১৯ সালে ভার্জিনিয়া উপনিবেশের গভর্নর স্যার জর্জ ইয়ার্ডলি উপনিবেশের উন্নত এলাকাগুলোর স্বার্থে চারটি অঞ্চল স্থানীয় শাসনের আওতাভুক্ত করেন। এগুলোর প্রতিটিকে বলা হতো "সিটিজ"(Citties)। নরফোক এলিজাবেথ সিটিজ এর অন্তর্গত ছিল।

১৬৩৪ সালে রাজা প্রথম চার্লস ভার্জিনিয়াকে কতগুলো শায়ারে বিভক্ত করেন। তখন এলিজাবেথ সিটিজ এলিজাবেথশায়ারে পরিণত হয়। ইংল্যান্ডের নরফোক শহরের কিংস লিনের বাসিন্দা অ্যাডাম থরোগুড ১৬২২ সালে ভার্জিনিয়ায় অভিবাসী হন। তিনি ১০৫-জন ব্যক্তিকে এখানে বসতি স্থাপনে সফলভাবে উদ্বুদ্ধ করেন। এর ফলশ্রুতিতে ১৬৩৬ সালে লিনহ্যাভেন নদীর তীরে তাকে বিপুল পরিমাণ জমি প্রদান করা হয়।

অ্যাডাম থরোগুড তার জন্মস্থান নরফোকের নামানুসারে নবগঠিত কাউন্টির নাম "নিউ নরফোক কাউন্টি" করার প্রস্তাব উত্থাপন করেন। এক বছর পরে এটি দুভাগে বিভক্ত হয়- ঊর্ধ্ব নরফোক ও নিম্ন নরফোক।[৩]

সপ্তদশ শতাব্দীর শেষভাগে নরফোকে একটি দুর্গ নির্মিত হয়। তারা পৌহাটান কনফেডারেসির আদিবাসী বাসিন্দাদের কাছ থেকে ১০,০০০ পাউন্ড তামাকের বিনিময়ে ৫০ একর জমি ক্রয় করেন। ১৬৮০ সালে ভার্জিনিয়া বিধানসভা "নরফোক কাউন্টি শহর" প্রতিষ্ঠা করে। [৪]১৬৯১ সালে নিম্ন নরফোক কাউন্টি চেসাপিক কাউন্টি ও প্রিন্সেস অ্যান কাউন্টিতে বিভক্ত হয়।

১৭০৫ সালে নরফোক স্থানীয় শাসনের আওতাভুক্ত হয়। ১৭৩০ সালে এখানে একটি তামাক পরিদর্শনকেন্দ্র নির্মিত হয়। ১৭৩৬ সালে রাজা দ্বিতীয় জর্জ নরফোকের রাজকীয় অনুমোদন প্রদান করেন।[৫] ১৭৭৫ সালের মধ্যে নরফোক ভার্জিনিয়ার সবচেয়ে সমৃদ্ধিশালী শহরে পরিণত হয়। আমেরিকান স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় এটি ব্রিটিশ রাজতন্ত্রীদের অন্যতম প্রাণকেন্দ্র হয়ে ওঠে। ভার্জিনিয়ার ঔপনিবেশিক রাজধানী উইলিয়ামসবুর্গ শহর থেকে পলায়নের পর গভর্নর জন মারে নরফোকে ঔপনিবেশিক আধিপত্য পুনঃপ্রতিষ্ঠার চেষ্টা করেন। কিন্তু কর্নেল উডফোর্ডের নেতৃত্বে একদল সৈন্য তাকে ক্ষমতাচ্যুত করে। এভাবেই ভার্জিনিয়ার ১৬৮ বছরের ঔপনিবেশিক শাসনের পরিসমাপ্তি ঘটে। [৬]

১৭৭৬ সালের নববর্ষের দিন মাররে ও তার বাহিনী কামান দাগিয়ে শহরের দুই-তৃতীয়াংশ (৮০০টি) ভবন সম্পূর্ণ ধ্বংস করে। পরের মাসে কৌশলগত কারণে স্বাধীনতাপন্থীরা বাকি ভবনগুলো ধ্বংস করে দেয়। [৭] শুধু সেন্ট পিটার্স এপিস্কোপাল চার্চ ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা পায়। তবে এর দেয়ালে আজও গোলার চিহ্ন রয়ে গেছে। [৮]

স্বাধীনতাযুদ্ধের পরে নরফোক ও তার বাসিন্দাদের অনেক কষ্ট করতে হয়। ১৮০৪ সালে আবারো একটি ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড সংঘটিত হয়। ১৮২০ সালে আমেরিকার দক্ষিণাঞ্চলে দীর্ঘস্থায়ী মন্দা দেখা দেয়। অনেকেই তখন পশ্চিমে পিয়েডমন্ট শহর, কেন্টাকি ও টেনেসিতে চলে যান।

ভার্জিনিয়ায় ক্রীতদাসপ্রথা বিলোপের জন্য বেশ কিছু প্রস্তাব উত্থাপিত হয়। ১৮৩২ সালে টমাস জেফারসন র‍্যান্ডল্ফ ক্রীতদাসপ্রথা বিলোপের দাবিনামা উপস্থাপন করেন। কিন্তু ক্রীতদাসের চাহিদা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাওয়ায় সে প্রস্তাব হালে পানি পায়নি।

আমেরিকান ঔপনিবেশিকীকরণ সমিতি মুক্ত কৃষ্ণাঙ্গ ও দাসদের লাইবেরিয়ায় পুনর্বাসনের উদ্যোগ গ্রহণ করেন। ভার্জিনিয়ানর্থ ক্যারোলাইনা প্রদেশের অনেক মুক্ত কৃষ্ণাঙ্গ ও দাস নরফোক বন্দর থেকে লাইবেরিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। লাইবেরিয়ার প্রথম রাষ্ট্রপতি জোসেফ জেনকিনস রবার্টস এখানেই জন্মগ্রহণ করেন ও বেড়ে ওঠেন।[৯]

১৮৫৫ সালের ৭ জুন ১৮৩ ফুট নৌজাহাজ বেঞ্জামিন ফ্র্যাঙ্কলিন হ্যাম্পটন রোডসে মেরামত কাজের জন্য আগমন করে। জাহাজটি এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ যায়, যেখানে ইতোপূর্বে পীতজ্বর মহামারি দেখা গিয়েছিল। নরফোকেও ক্রমশ পীতজ্বর রোগী শনাক্ত হতে থাকে। ৮ জুলাই একজন পীতজ্বরে মৃত্যুবরণ করেন। আগস্ট মাসে প্রতিদিন-ই কেউ না কেউ মৃত্যুবরণ করছিলেন। এমতাবস্থায় এক-তৃতীয়াংশ অধিবাসী শহর ছেড়ে পালিয়ে যায়। নিকটস্থ পোর্টসমাউথ শহরেও পীতজ্বর মহামারি ছড়িয়ে পড়ে। সেপ্টেম্বরে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৫,০০০। ঐ মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে নরফোক ও পোর্টসমাউথ শহরে পীতজ্বরে ১,৫০০ জন মারা যান।[১০] শেষাবধি এতে ৩,২০০ জন ব্যক্তি মারা যান।[১১]

১৮৬১ সালে নরফোকের ভোটাররা ইউনিয়ন থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার পক্ষে রায় দেন। ১৮৬২ সালে ভার্জিনিয়া ইউনিয়ন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ঐ বছর বসন্তে লৌহনির্মিত জাহাজ ইউএসএস মনিটর ও সিএসএস ভার্জিনিয়ার মধ্যে যুদ্ধ হয়। যুদ্ধটি অমীমাংসিতভাবে শেষ হলেও এটি নৌযুদ্ধের গতিপথ পরিবর্তন করে দেয়। তখন থেকেই যুদ্ধগুলো ধাতু দ্বারা সুরক্ষিত করা শুরু হয়।[১২]

১৮৬২ সালের মে মাসে নরফোক শহরের মেয়র উইলিয়াম ল্যাম্ব ইউনিয়ন জেনারেল জন ই উল ও তার সেনাবাহিনীর নিকট আত্মসমর্পণ করেন।

ভূগোল[সম্পাদনা]

আদমশুমারি ব্যুরোর তথ্যানুযায়ী, নরফোকের আয়তন ৯৬ বর্গমাইল। এর ৫৪ বর্গমাইল স্থল ও ৪২ বর্গমাইল জল।[১৩]

জলবায়ু[সম্পাদনা]

নরফোকের জলবায়ু আর্দ্র উপক্রান্তীয় ধরনের। বছরে গড়ে ৩৫ দিন তাপমাত্রা ৯০ ডিগ্রি ফারেনহাইট বা এর বেশি হয়।[১৪] জুলাই সবচেয়ে উষ্ণতম মাস;এ সময় নরফোকে ৭৯.৬ ডিগ্রি গড় তাপমাত্রা ফারেনহাইট বিরাজ করে। আগস্ট নরফোকের আর্দ্রতম মাস।

জনমিতি[সম্পাদনা]

২০১০ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী নরফোকের জনসংখ্যা ২,৪২,৮০৩। এখানে ৫১,৮৯৮টি পরিবার বসবাস করে। শহরের জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গকিলোমিটারে ১,৬৮৪.৪ জন। বাসিন্দাদের ৪৭.১% শ্বেতাঙ্গ, ৪৩.১% আফ্রিকান আমেরিকান, ০.৫% আদিবাসী আমেরিকান, ৩.৩% এশীয় ও ০.২% প্রশান্ত মহাসাগরীয়। এদের ৬.৬% হিস্পানিক অথবা লাতিনো।

পরিবারগুলোর গড় আয় ৩৬,৮৯১ ডলার। পুরুষদের গড় আয় ২৫,৮৪৮ ডলার ও নারীদের গড় আয় ২১,৯০৭ ডলার। শহরের মাথাপিছু আয় ১৭,৩৭২ ডলার। ১৫.৫% পরিবার ও ১৯.৪% বাসিন্দা দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করে। এদের ২৭.৯% এর বয়স ১৮ এর নিচে ও ১৩.২% এর বয়স ৬৫ এর সমান বা বেশি।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Norfolk city QuickFacts from the US Census Bureau"web.archive.org। ৭ জানুয়ারি ২০১৪। 
  2. "Norfolk, Franklin & Danville Railroad: Map/Photos/History"American-Rails.com 
  3. "The Origin of Norfolk's Name"web.archive.org। ১০ সেপ্টেম্বর ২০০৭। 
  4. http://www.norfolkhistorical.org/highlights/07.html
  5. http://www.norfolkhistorical.org/highlights/09.html
  6. "Colonial Williamsburg"www.colonialwilliamsburg.org 
  7. http://www.norfolkhistorical.org/insights/2001_spring/nightmare.html
  8. "HMS_OTTER"web.archive.org। ১৩ মে ২০০৮। 
  9. "African American Registry: Joseph Roberts, Liberia's first President!"web.archive.org। ২৩ নভেম্বর ২০০৭। 
  10. "yftoc.html"www.usgwarchives.net 
  11. "Wayback Machine" (PDF)web.archive.org। ১৫ ডিসেম্বর ২০১৩। 
  12. "Battle of the Monitor and the Merrimack C.S.S. Virginia Civil War Naval Battle"americancivilwar.com 
  13. https://www.census.gov/geographies/reference-files/time-series/geo/gazetteer-files.html
  14. Team, National Weather Service Corporate Image Web। "National Weather Service Climate"w2.weather.gov