নবেন্দু ঘোষ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নবেন্দু ঘোষ
জন্ম( ১৯১৭ -০৩-২৭)২৭ মার্চ ১৯১৭
ঢাকা, ব্রিটিশ ভারতের শাসনামলে (বর্তমানে বাংলাদেশের রাজধানীতে)
মৃত্যু১৫ ডিসেম্বর ২০০৭(2007-12-15) (বয়স ৯০)
কলকাতা
জাতীয়তাভারত
অন্য নামমুকুল; নবেন্দু ভূষণ ঘোষ
পেশাগ্রন্থাগার, চলচ্চিত্র নাট্যকার

নবেন্দু ঘোষ (২৭ মার্চ, ১৯১৭ - ১৫ ডিসেম্বর ২০০৭) বাংলা সাহিত্যে একজন ভারতীয় লেখক ও চিত্রনাট্যকার। তিনি ধ্রুপদী বলিউডের চলচ্চিত্রগুলি যেমন সুজাতা, বন্দিনী, দেবদাস, মাঝলি দিদি, অভিমান এবং তিশ্রী কসম (৩টি দিব্যি) এর মত চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য লেখেন। তিনি বাপ বেটি, শতরঞ্জি এবং রাজাজানির মত চলচ্চিত্রের জন্য গল্প লিখেছেন। তিনি দো বিঘা জমিন, তিশ্রী কসমলুুকোচুরিতে সংক্ষিপ্ত পরিসরে অভিনয় করেছেন। পরবর্তীতে তার কর্মজীবনে তিনি চারটি চলচ্চিত্র পরিচালনা করেন।

জীবনী[সম্পাদনা]

নবেন্দু ঘোষ ১৯১৭ সালের ২৭ মার্চ ঢাকাতে (বর্তমানে বাংলাদেশ) জন্মগ্রহণ করেন। ১২ বছর বয়সেই তিনি জনপ্রিয় মঞ্চাভিনেতা হয়ে যান। তিনি উদয়শঙ্কর শৈলীতে প্রশংসিত নৃত্য করার মাধ্যমে ১৯৩৯ থেকে ১৯৪৫ পর্যন্ত বেশ কয়েকটি পদক জিতে নেন। ১৯৪৪ সালে তিনি সরকারী চাকরীচ্যুত হন। কারণ ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস এর জন্য "ডাক দিয়ে যাই" নামক ভারত ছাড় আন্দোলন এর পক্ষে উপন্যাস লেখেন। এ উপন্যাসটি তাকে খ্যাতি এনে দিয়েছিল এবং ১৯৪৫ সালে তিনি কলকাতায় স্থানান্তরিত হন। তিনি খুব দ্রুতই বাংলা সাহিত্যের প্রগতিশীল তরুণ লেখকদের মধ্যে স্থান লাভ করেন।

তিনি ১৫ ডিসেম্বর ২০০৭ তারিখে মারা যান। তাঁর দুই পুত্র ও এক কন্যা আছে। তারা হলেন ড দীপঙ্কর এবং চলচ্চিত্র নির্মাতা শুভঙ্কর, এবং কন্যা রত্নত্তোমা সেনগুপ্ত (চলচ্চিত্র উৎসব কারিকর, লেখক, এবং সাবেক দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়ার চলচ্চিত্র সাংবাদিক)। ১৯৯৯ সালে তাঁর স্ত্রী কনকলতা মারা যান। [১]

তাঁর আত্মজীবনী, "একা নৌকার যাত্রী" ২০০৮ এর মার্চে প্রকাশিত হয়েছিল। [২] তাঁর পুত্রবধূ, ডাঃ সোমা ঘোষ একজন প্রশংসিত শাস্ত্রীয় গায়ক, এবং ২০১২ সালে পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত হন।[৩]

তার জন্মশতবার্ষিকী স্মরণে, তাঁর বিজ্ঞান কথাসাহিত্য আমি ও আমি (১৯৯৯) ইংরেজিতে অনুবাদ হিসেবে ২৫ মার্চ ২০১৭ তারিখে প্রকাশ পায়। বইটির ইংরেজিতে নাম ছিল মি এণ্ড আই। এই অনুবাদ নবেন্দু ও তার পৌত্র দেবত্তম সেনগুপ্ত যুগ্নভাবে করেন। [৪]

চলচ্চিত্রপরিচিতি[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্রনির্মাণ
পরিচালক
  • ত্রিশাগ্নি (১৯৮৮)
  • নেত্রহীন সাক্ষী (১৯৯২)
  • লাদকিয়ান (1997)
  • আনমোল রতন: অশোক কুমার (প্রামাণ্যচ্চিত্র ১৯৯৫)

পুরস্কার[সম্পাদনা]

তথ্যসুত্র[সম্পাদনা]

  1. "Obituary – Nabendu Ghosh"। Sify Movies। ২২ জানুয়ারি ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৩ 
  2. "Frames from the past: For the love of words"। The Telegraph। ২৩ মার্চ ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৩ 
  3. "BISMILLAH KHAN SAAB IS 100 AND LIVES THROUGH HIS SHEHNAI!"Spicy Stars Mumbai (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৬-১০-২০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১১-২৯ 
  4. "Me and I"Amazon India। ২৫ মার্চ ২০১৭। 
  • Gulzar; Govind Nihalani, Saibal Chatterjee, Encyclopædia Britannica (India) (২০০৩)। Encyclopedia of Hindi Cinema। Popular Prakashan। পৃষ্ঠা 554। আইএসবিএন 8179910660 
  • Mukul (2010), 20-minute documentary by Subhankar Ghosh.

বহিঃস্থ সংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:FilmfareAwardBestScreenplay