দ্রুপদ বরগোহাঁই

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(দ্রুপদ বরগোহাইঁ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
দ্রুপদ বরগোহাঁই
সংসদ সদস্য, রাজ্যসভা
কাজের মেয়াদ
৩ এপ্রিল ১৯৯৮ - ২ এপ্রিল ২০০৪
সংসদীয় এলাকাআসাম
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম(১৯৪১-১১-০৭)৭ নভেম্বর ১৯৪১
শিবসাগর, আসাম, ভারত
মৃত্যু১০ এপ্রিল ২০১৯(2019-04-10) (বয়স ৭৭)
জাতীয়তাভারতীয়
রাজনৈতিক দলভারতের কমিউনিস্ট পার্টি
বাসস্থানশিবসাগর
শিক্ষাশিবসাগর কলেজ
পেশারাজনীতিবিদ

দ্রুপদ বরগোহাঁই (৭ নভেম্বর ১৯৪১ - ১০ এপ্রিল ২০১৯) [১] একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ ছিলেন।[২] তিনি আসাম রাজ্যের বামপন্থীদের একজন প্রবীণ নেতা ছিলেন।[৩][৪] ২০১৪ সাল পর্যন্ত তিনি কমিউনিস্ট পার্টি অফ ইন্ডিয়া (সিপিআই) এর আসাম স্টেট কাউন্সিলের সেক্রেটারি ছিলেন, এই পদটি তিনি ১৯৮৭ সাল থেকে অধিষ্ঠিত ছিলেন।[২][৫] ২০১০ সাল পর্যন্ত তিনি অল ইন্ডিয়া কিসান সভার (কৃষক আন্দোলন) আসাম রাজ্য পরিষদের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।[৬]

জীবনের প্রথমার্ধ[সম্পাদনা]

দ্রুপদ বোরগোহাইন ১৯৪১ সালের ৭ নভেম্বর (অক্টোবর বিপ্লবের বার্ষিকী) জন্মগ্রহণ করেন।[২][৭] তিনি শিবসাগর জেলার মাদুরী গ্রামে থাকতেন।[৮] তিনি ছিলেন মানিক চন্দ্র বর্গোহাইন ও রূপেশ্বরী বর্গোহাইনের পুত্র। তিনি নাজিরা হাই স্কুল এবং শিবসাগর কলেজে পড়াশোনা করেছেন। তিনি বিএ (সম্মান) ডিগ্রি লাভ করেন। পেশায় একজন শিক্ষক, তিনি মাদুরি মিডল ভার্নাকুলার স্কুলে ১৯৬০-১৯৬১ সালে কাজ করেছিলেন। তিনি ১৯৬১ সালের অক্টোবর থেকে ১৯৬৩ সালের জানুয়ারির মধ্যে চাকিমুখ মধ্য ইংরেজি স্কুলে এবং তারপর ১ ফেব্রুয়ারি ১৯৬৩ থেকে ৩১ ডিসেম্বর ১৯৮২ পর্যন্ত নাজিরা উচ্চ মাধ্যমিক মাল্টিপারপাস স্কুলে শিক্ষকতা করেন।

যুব আন্দোলন[সম্পাদনা]

তিনি ১৯৬৩ সালের এপ্রিল মাসে সিপিআই পার্টির সদস্য হন। তিনি ১৯৬৫ থেকে ১৯৭৭ সালের মধ্যে সর্বভারতীয় যুব ফেডারেশনে সক্রিয় ছিলেন, এর জাতীয় কাউন্সিলে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি ১৯৬৫ থেকে ১৯৬৮ সালের মধ্যে AIYF-এর আসাম স্টেট কাউন্সিলের যুগ্ম সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন, তারপর আসাম রাজ্য পরিষদের সভাপতি হন।[২]

পার্টি পুরোটাইমার[সম্পাদনা]

বোরগোহাইন ১৯৮২ সালে রাজনৈতিক পুরো সময়কার হওয়ার জন্য তার শিক্ষকতার চাকরি থেকে পদত্যাগ করেন।[২] তিনি ১৯৮৩ সালের আসাম বিধানসভা নির্বাচনে নাজিরা আসনে সিপিআই প্রার্থী হিসাবে দাঁড়িয়েছিলেন। তিনি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের হিতেশ্বর শইকীয়ার কাছে পরাজিত হয়ে ২,৪৬০ ভোট (নির্বাচনের ভোটের ১৮.৮৩%) নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন।[৯]

সংসদ সদস্য এবং রাজ্য বিধায়ক[সম্পাদনা]

বরগোহাঁই ১৯৯৮ সালের এপ্রিল থেকে ২০০৪ সালের এপ্রিলের মধ্যে রাজ্যসভার (ভারতের সংসদের উচ্চকক্ষ) সদস্য ছিলেন।[১০] তিনি ২০০৪ সালের সাধারণ নির্বাচনে যোরহাট লোকসভা আসনে প্রার্থী হিসাবে দাঁড়িয়েছিলেন। বোরগোহাইন ১,৭২,৩৩২ ভোট (নির্বাচনের ভোটের ২৫.৮৪%) নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন।[১১]

বরগোহাঁই ২০০৬ সালের আসাম বিধানসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। তিনি নাজিরা আসনে জয়ী হন, রাজ্য সরকারের তাঁত ও বস্ত্রমন্ত্রী কংগ্রেস পার্টির প্রার্থী হেমপ্রভা শইকীয়াকে পরাজিত করেন।[১২] বরগোহাঁই পেয়েছেন ৩৭,৬২৩ ভোট (৪৪.৬২%)।[১৩]

বরগোহাঁই ২০০৯ সালের সাধারণ নির্বাচনে যোরহাট আসন থেকে আবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তিনি ৭৪,১৮৫ ভোট (৯.৭২%) নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন।[১৪] তিনি নাজিরা বিধানসভা বিভাগে ২২.২১% ভোট পেয়েছেন, তবে যোরহাট বিধানসভা বিভাগে ভোটের মাত্র ৩.৮%।[১৫] বরগোহাঁই ২০১১ সালের নির্বাচনে নাজিরা বিধানসভা আসন থেকে হেরে যান। তিনি কংগ্রেস পার্টির দেবব্রত শইকীয়ার কাছে পরাজিত হয়ে ১৮,৭০০ ভোট (২২.৫৮) নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন।[১৬]

২০১৪ নির্বাচন[সম্পাদনা]

সিপিআই ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে যোরহাট আসনে তাদের প্রার্থী হিসাবে বোরগোহাইনকে লঞ্চ করেছিল।[৩][৪] তার প্রার্থিতা ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির সমর্থন পায়।[১৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Veteran Communist Leader Drupad Borgohain Dies. He Was 78
  2. India. Parliament. Rajya Sabha (১৯৯৮)। Who's who। Rajya Sabha Secretariat.। পৃষ্ঠা 70। 
  3. The Statesman. 16th LS polls: Mounting challenges for Assam sitting MPs
  4. NetIndia123. Jorhat: Handique eyeing 7th term in quadrangular fight
  5. The Sentinel. Assam should be declared as a Tribal State : Drupad Borgohain ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১৬-০৩-০৩ তারিখে
  6. New Age Weekly. Assam AIKS Conference Call For More Struggles ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৭ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে
  7. Linda K. Fuller (১ জানুয়ারি ২০০৪)। National Days/national Ways: Historical, Political, and Religious Celebrations Around the World। Greenwood Publishing Group। পৃষ্ঠা 300। আইএসবিএন 978-0-275-97270-7 
  8. Election Commission of India. Members of Rajya Sabha
  9. Election Commission of India. STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 1983 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF ASSAM
  10. Communist Party of India, Maharashtra State Council. CPI Rajyasabha Members from 1952 to upto date. ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৭ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে
  11. Election Commission of India. STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTIONS, 2004 TO THE 14th LOK SABHA – VOLUME I (NATIONAL AND STATE ABSTRACTS & DETAILED RESULTS)
  12. Frontline. Coalition concerns
  13. Election Commission of India. STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 2006 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF ASSAM
  14. Election Commission of India. General Elections, 2009 (15th LOK SABHA) – 25 – CONSTITUENCY WISE DETAILED RESULTS ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২ আগস্ট ২০১৩ তারিখে
  15. Election Commission of India. GENERAL ELECTIONS – INDIA, 2009 – Details for Assembly Segments of Parliamentary Constituencies
  16. Election Commission of India. STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 2011 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF ASSAM
  17. The Telegraph. Assam options open: Yechury

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]