দাঁড়াশ সাপ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

দাঁড়াশ সাপ
Zamenis longissimus.jpg
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: এনিমেলিয়া
পর্ব: কর্ডাটা
শ্রেণী: রেপটিলা
বর্গ: স্কোয়ামাতা
পরিবার: কলুব্রিডি
উপপরিবার: কলুব্রিনি
গণ: বিভিন্ন

দাঁড়াশ সাপ (English: Rat snake)  Colubridae গোত্রের বিষহীন সাপ Coluber mucosus। এদের দেহের রং হালকা বাদামি বা হলুদ বাদামি কিংবা জলপাই বাদামি। সাপটিকে  গোখরা সাপ বলে ভ্রম হতে পারে। এ কারণে সাপটি মানুষের হাতে বেশি মারাও পড়ে। এদের মাথায় সাধারণত কোনো ফণা থাকে না এবং মাথা গোখরা সাপের মাথার তুলনায় বেশ সরু। লম্বায় সাধারণত দুই মিটার, তবে কোনো কোনোটি তিন মিটার বা ততোধিক লম্বা হতে পারে। দাঁড়াশ সাপ গাছ বেয়ে উঠতে দক্ষ, সাঁতার কাটতে, ডুব দিয়ে থাকতে এবং দ্রুত ছুটতে পারে। ধরা পড়ার পর কিছুটা মারমুখি দেখালেও পরে খুব সহজেই পোষ মেনে যায়।  ইঁদুর, ছুঁচো, ব্যাঙ ইত্যাদি খেয়ে দাঁড়াশ সাপ জীবনধারণ করে। শিকার ধরামাত্রই গিলতে শুরু করে।[১]

এ অঞ্চলে কেবল এ সাপই ‘যুদ্ধ নাচ’ (combat dance) দেখায়। প্রতিদ্বন্দতী দুটি পুরুষ সাপের মধ্যে এ লড়াইয়ে এরা পরস্পর দেহের অর্ধেক রশির মতো পেঁচিয়ে মাটির সমান্তরালে অথবা কিছুটা উপরে থাকে। গ্রামাঞ্চলের বেশির ভাগ মানুষ একে গোখরা ও দাঁড়াশের মধ্যে যৌনমিলনের দৃশ্য মনে করে। দাঁড়াশ প্রায় এক ডজন আঠালো ডিম পাড়ে এবং দুই মাসের মধ্যে ডিম ফুটে বাচ্চা বের হয়।স্ত্রী সাপ প্রায় দু’মাস ডিমের চারপাশে কুন্ডলী পাকিয়ে অবস্থান করে।[১]

এদের চামড়ার যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে। কোরিয়ান ও চীনারা দাঁড়াশ সাপের মাংস খেতে পছন্দ করে।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "দাঁড়াশ সাপ - বাংলাপিডিয়া"bn.banglapedia.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-২৮