দক্ষিণ সুদান জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
দক্ষিণ সুদান
দলের লোগো
ডাকনামউজ্জ্বল তারা
অ্যাসোসিয়েশনদক্ষিণ সুদান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
কনফেডারেশনক্যাফ (আফ্রিকা)
প্রধান কোচবেসং আশু
অধিনায়কজুমা জেনারো
সর্বাধিক ম্যাচজুমা জেনারো (২৮)
শীর্ষ গোলদাতাজেমস মোগা (৬)
মাঠজুবা স্টেডিয়াম
ফিফা কোডSSD
ওয়েবসাইটssfaonline.com
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৬১ বৃদ্ধি ৭ (৩১ মার্চ ২০২২)[১]
সর্বোচ্চ১৩৪ (নভেম্বর ২০১৫)
সর্বনিম্ন২০৫ (সেপ্টেম্বর ২০১৩)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৭৮ বৃদ্ধি ৪ (৩০ এপ্রিল ২০২২)[২]
সর্বোচ্চ১৭১ (২০১৬)
সর্বনিম্ন১৮৮ (নভেম্বর ২০১৮)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 দক্ষিণ সুদান ২–২ উগান্ডা 
(জুবা, দক্ষিণ সুদান; ১০ জুলাই ২০১২)
বৃহত্তম জয়
 দক্ষিণ সুদান ৬–০ জিবুতি 
(জুবা, দক্ষিণ সুদান; ২৮ মার্চ ২০১৭)
বৃহত্তম পরাজয়
 মোজাম্বিক ৫–০ দক্ষিণ সুদান 
(মাপুতো, মোজাম্বিক; ১৮ মে ২০১৪)

দক্ষিণ সুদান জাতীয় ফুটবল দল (ইংরেজি: South Sudan national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে দক্ষিণ সুদানের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম দক্ষিণ সুদানের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা দক্ষিণ সুদান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ২০১২ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং একই বছর হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা আফ্রিকান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্য হিসেবে রয়েছে।[৩] ২০১২ সালের ১০ই জুলাই তারিখে, দক্ষিণ সুদান প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; দক্ষিণ সুদানের জুবায় অনুষ্ঠিত দক্ষিণ সুদান এবং উগান্ডার মধ্যকার উক্ত ম্যাচটি ২–২ গোলে ড্র হয়েছে।

৭,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট জুবা স্টেডিয়ামে উজ্জ্বল তারা নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় দক্ষিণ সুদানের রাজধানী জুবায় অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন বেসং আশু এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন আল ওয়াদির গোলরক্ষক জুমা জেনারো

দক্ষিণ সুদান এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সেও দক্ষিণ সুদান এপর্যন্ত একবারও অংশগ্রহণ করতে সক্ষম হয়নি।

দোমিনিক আবুই, জুমা জেনারো, জাকারিয়া বেনাসিও আকোল, জেমস মোগা এবং জোসেফ কুচের মতো খেলোয়াড়গণ দক্ষিণ সুদানের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১৫ সালের নভেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে দক্ষিণ সুদান তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (১৩৪তম) অর্জন করে এবং ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ২০৫তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে দক্ষিণ সুদানের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ১৭১তম (যা তারা ২০১৬ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ১৮৮। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৩১ মার্চ ২০২২ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৫৯ বৃদ্ধি  ইন্দোনেশিয়া ১০০১.৬১
১৬০ হ্রাস  নতুন ক্যালিডোনিয়া ৯৯৯.৭
১৬১ বৃদ্ধি  দক্ষিণ সুদান ৯৯৮.৪৫
১৬২ বৃদ্ধি  পাপুয়া নিউগিনি ৯৯৭.৬
১৬৩ অপরিবর্তিত  বার্বাডোস ৯৯৫.৯৪
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
৩০ এপ্রিল ২০২২ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৭৬ হ্রাস ১৮  গ্রেনাডা ১১২৭
১৭৭ হ্রাস  বেলিজ ১১০৯
১৭৮ বৃদ্ধি  দক্ষিণ সুদান ১১০৭
১৭৯ হ্রাস  ফিলিপাইন ১০৯২
১৮০ বৃদ্ধি  সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি ১০৮৭

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ সুদানের অংশ ছিল সুদানের অংশ ছিল
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪
ফ্রান্স ১৯৯৮
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২
জার্মানি ২০০৬
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০
ব্রাজিল ২০১৪ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
রাশিয়া ২০১৮ উত্তীর্ণ হয়নি
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২১

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৩১ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ৩০ এপ্রিল ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২২ 
  3. Okinyo, Collins (৯ মে ২০১২)। "Cecafa welcomes South Sudan"। SuperSport.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]