ত্রিনকোমালি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ত্রিনকোমালি
திருகோணமலை
ත්‍රිකුණාමලය
শহর
ত্রিনকোমালি
ত্রিনকোমালি উপকূল
ত্রিনকোমালি উপকূল
Trincomalee District A3.png
ত্রিনকোমালি শ্রীলঙ্কা-এ অবস্থিত
ত্রিনকোমালি
ত্রিনকোমালি
স্থানাঙ্ক: ৮°৩৪′০″ উত্তর ৮১°১৪′০″ পূর্ব / ৮.৫৬৬৬৭° উত্তর ৮১.২৩৩৩৩° পূর্ব / 8.56667; 81.23333
দেশশ্রীলঙ্কা
প্রদেশপূর্বাঞ্চলীয়
জেলাত্রিনকোমালি জেলা
জেলা সচিবালয়শহর
সরকার
 • ধরনত্রিনকোমালি পৌর সভা
আয়তন
 • মোট৭.৫ বর্গকিমি (২.৯ বর্গমাইল)
উচ্চতা৮ মিটার (২৬ ফুট)
জনসংখ্যা (২০১২)
 • মোট৯৯,১৩৫
সময় অঞ্চলশ্রীলঙ্কার আদর্শ সময় (ইউটিসি+৫ঃ৩০)

ত্রিনকোমালি হচ্ছে শ্রীলঙ্কার একটি উপকূলীয় শহর। শহরটি দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশে অবস্থিত। এখানকার অধিবাসীরা তামিল ভাষায় কথা বলে এবং তারা হিন্দু। ২০১২ সালের সরকারী পরিসংখ্যান অনুযায়ী এই শহরে মোট ৯৯,০০০ জন মানুষ ছিলো। এটি শ্রীলঙ্কার অন্যতম প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পর্যটনীয় স্থান। এটি একটি নৌবন্দর এবং এই নৌবন্দরটির গুরুত্ব শ্রীলঙ্কা নৌবাহিনীর ঘাঁটির কারণে। গড় বার্ষিক বৃষ্টিপাত এখানে ৬৪.৮ ইঞ্চি এবং গড় বার্ষিক তাপমাত্রা ২° সে। এখানে কৃষি কাজও হয়। বন্দর কর্তৃপক্ষ ভারতের সহায়তায় বন্দর অবকাঠামো তৈরি করেছিলো; এই শহর থেকে ধান, তামাক, কাঠ, শুকনো মাছ এবং হরিণের শিং এবং চামড়া বিদেশে রফতানি করা হয়। তামিল জনগণ দ্বারা প্রতিষ্ঠিত শ্রীলঙ্কার প্রথম শহর এই ত্রিনকোমালি।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

শহরটি খ্রিষ্টপূর্ব ২য় শতাব্দীতে একটি গ্রাম হিসেবে তৈরি হয়। শহরটির নাম তামিল ভাষায় 'তিরুকোনামালাই' যার অর্থ 'পবিত্র পাহাড়ের ঈশ্বর' থেকে এসেছে। ১৯৪৮ সালে ব্রিটিশদের কাছ থেকে শ্রীলঙ্কা স্বাধীন হবার পর এটি ধীরে ধীরে গ্রাম থেকে শহরে রূপান্তরিত হতে থাকে।