ড. বেলাল হোসেন (বিজ্ঞানী)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ড. বেলাল হোসেন বাংলাদেশের একজন বিজ্ঞানী এবং গবেষক। বেলাল হোসেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত আছেন। বেলাল হোসেন কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কেন্দুয়া গ্রামের মৃত আব্দুছ ছোবাহান ভূঁঞা ও দেলোয়ারা বেগমের প্রথম পুত্র। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মেরিন সায়েন্স অ্যান্ড ফিশারিজ বিভাগে স্নাতক, যুক্তরাজ্যের হাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স এবং ব্রুনাইর দারুসসালাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন। অস্ট্রেলিয়ান মিউজিয়াম রিসার্চ ইনস্টিটিউট থেকে তিনি পোস্ট ডক্টরাল গবেষণা সম্পন্ন করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

ড. বেলাল নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০০৮ সালে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করে বর্তমানে অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের রিসার্চ সেলের পরিচালক ( ভারপ্রাপ্ত ) হিসেবে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন। ইতোপূর্বে তিনি আরো দুবার উক্ত দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি মৎস্য ও সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগের দুবার বিভাগীয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

আবিষ্কার[সম্পাদনা]

ড. বেলাল হোসেন বাংলাদেশের একমাত্র বিজ্ঞানী যিনি পলিকীটের সম্পূর্ণ নতুন প্রাণির সন্ধান দিতে পেরেছেন। ড. বেলাল হোসেন মোট পাঁচটি প্রাণি আবিষ্কার করেন এবং এখনো তার গবেষণা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।এই প্রাণিগুলোর মধ্যে চারটিই অমেরুদন্ডী প্রাণি।এর মধ্যে দুইটি আবিষ্কার করেন ২০১৬ সালে প্রথমটি Nephtys bangladeshi এবং দ্বিতীয়টি Victoriopisa bruneiensis [১] বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চল থেকে Nephtys bangladeshi (ন্যাফটাইস বাংলাদেশি) নামে অমেরুদণ্ডী পলিকীটের নতুন একটি প্রজাতি আবিষ্কার করেন। ব্রুনাইর সমুদ্র এলাকা থেকে Victoriopisa bruneiensis (ভিক্টোরিওপিসা ব্রুনেইয়েনসিস) নামে অমেরুদণ্ডী Amphipod এর নতুন একটি প্রজাতি আবিষ্কার করেন।[২]

পরবর্তীতে আরো দুইটি অমেরুদন্ডী প্রাণি আবিষ্কার করেন Neumania nobiprobia (নিউমেনিয়া নোবিপ্রবিয়া) ও এবং দ্বিতীয়টি Arrenurus smiti (অ্যারেনুরাস স্মিতি)।[৩] দুটি প্রজাতির মধ্যে Neumania nobiprobia (নিউমেনিয়া নোবিপ্রবিয়া)-এর নামকরণ করেন নোয়াখালি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নামের সংক্ষিপ্ত রূপ নোবিপ্রবি-এর সঙ্গে মিল রেখে এবং দ্বিতীয় প্রাণীটির নামকরণ করা হয় নেদারল্যান্ডের বিখ্যাত একারোলজিস্ট হ্যারি স্মিথের নামে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]