ডেনিস ডায়ার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ডেনিস ডায়ার
ডেনিস ডায়ার.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামডেনিস ভিক্টর ডায়ার
জন্ম(১৯১৪-০৫-০২)২ মে ১৯১৪
ডারবান, নাটাল
মৃত্যু১৬ জুন ১৯৯০(1990-06-16) (বয়স ৭৬)
ডারবান, নাটাল
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ভূমিকাব্যাটসম্যান
সম্পর্কডেভিড ডায়ার (পুত্র), গ্রাহাম ডায়ার (পুত্র)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৬৩)
৫ জুলাই ১৯৪৭ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট১৬ আগস্ট ১৯৪৭ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৩৪
রানের সংখ্যা ৯৬ ১৭২৫
ব্যাটিং গড় ১৬.০০ ৩৭.৫০
১০০/৫০ ০/১ ৩/৭
সর্বোচ্চ রান ৬২ ১৮৫
বল করেছে - -
উইকেট - -
বোলিং গড় - -
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - -
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ২০/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১০ জুলাই, ২০২০

ডেনিস ভিক্টর ডায়ার (ইংরেজি: Dennis Dyer; জন্ম: ২ মে, ১৯১৪ - মৃত্যু: ১৬ জুন, ১৯৯০) নাটালের ডারবান এলাকায় জন্মগ্রহণকারী দক্ষিণ আফ্রিকান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৪০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়কালে অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে নাটাল দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, স্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন ডেনিস ডায়ার

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৩৯-৪০ মৌসুম থেকে ১৯৪৮-৪৯ মৌসুম পর্যন্ত ডেনিস ডায়ারের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। বেশ লম্বাটে ও শক্ত-মজবুত গড়নের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ছিলেন। ব্যতিক্রমধর্মী অপরিসীম ধৈর্য্যশক্তির অধিকারী হলেও সময়ের প্রয়োজনে আক্রমণধর্মী খেলাও উপহার দিতে সচেষ্ট থাকতেন। ডেনিস ডায়ার ডারবান হাই স্কুলের ছাত্র ছিলেন। মজবুত গড়নের ডানহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে অপরিসীম ধৈর্য্যের পরিচায়ক ছিলেন।[১]

১৯৩৯-৪০ মৌসুমে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে নাটালের পক্ষে অভিষেক ঘটে তার। অভিষেক খেলাতেই প্রতিপক্ষ ওয়েস্টার্ন প্রভিন্সের বিপক্ষে ১৮৫ রানের ইনিংস খেলে সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। ঐ খেলায় তার দল জয়লাভ করেছিল। তবে, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে পরবর্তী ছয় বছর তার খেলোয়াড়ী জীবন থেকে মূল্যবান সময় নষ্ট হয়ে যায়।[২] ১৯৪৬-৪৭ মৌসুমে ৪৮.৭৫ গড়ে ৫৮৫ রান তুলতে পেরেছিলেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে তিনটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন ডেনিস ডায়ার। সবগুলো টেস্টই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেছিলেন তিনি। ৫ জুলাই, ১৯৪৭ তারিখে ম্যানচেস্টারে স্বাগতিক ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ১৬ আগস্ট, ১৯৪৭ তারিখে ওভালে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৯৪৫-৪৬ ও ১৯৪৬-৪৭ মৌসুমে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে তুলতে সচেষ্ট হন। বেশ কয়েকটি শতরানের ইনিংস খেলেন। স্বাভাবিকভাবেই ১৯৪৭ সালে তাকে ইংল্যান্ড গমনার্থে দলে রাখা হয়। ব্রুস মিচেলের সাথে তাকে ব্যাটিং উদ্বোধনে নামানো হয়।[২]

সফরের শুরুতে তিনি বেশ দূর্বল ক্রীড়ানৈপুণ্য প্রদর্শন করেন। ফলশ্রুতিতে দলীয় অধিনায়ক অ্যালান মেলভিল স্বয়ং প্রথম দুই টেস্টে ব্যাটিং উদ্বোধনে নামতে বাধ্য হন। অবশেষে ডেনিস ডায়ারকে ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে অনুষ্ঠিত তৃতীয় টেস্টে নামানো হয়। তিন ঘণ্টাকাল ক্রিজে অবস্থান করে ৬২ রান তুলেন।[৩] এরফলে, সিরিজের শেষ দুই টেস্টেও তাকে দলে রাখা হয়। কিন্তু, তেমন কিছুই করতে পারেননি। বাদ-বাকী পাঁচ ইনিংসে মাত্র ৩৪ রান তুলতে সমর্থ হন।

সফরের শেষদিকে অ্যাপেন্ডিসাইটিসের কারণে তাকে জরুরীভাবে অস্ত্রোপচার করতে হয়। এ পর্যায়ে জানা যায় যে, সফরের অধিকাংশ সময়ই তিনি অসুস্থ অবস্থায় থাকতেন।[২] পরবর্তী দুই মৌসুমে আর মাত্র তিনটি খেলায় অংশ নেন।

অবসর[সম্পাদনা]

১৯৪৮-৪৯ মৌসুমে সফররত ইংরেজ দলের বিপক্ষে নাটালের সদস্যরূপে খেলেন। কিন্তু, ঐ মৌসুম শেষে অবসর গ্রহণ করেন তিনি।

ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত ছিলেন। ডেভিড ডায়ার ও গ্রাহাম ডায়ার তার সন্তান। উভয়েই নাটালসহ অন্যান্য দক্ষিণ আফ্রিকান দলের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছে। ১৬ জুন, ১৯৯০ তারিখে ৭৬ বছর বয়সে নাটালের ডারবান এলাকায় ডেনিস ডায়ারের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Christopher Martin-Jenkins, The Complete Who's Who of Test Cricketers, Rigby, Adelaide, 1983, p. 283.
  2. Wisden 1991, p. 1259.
  3. "3rd Test, South Africa tour of England at Manchester, Jul 5-9 1947"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২ জানুয়ারি ২০১৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]