ডিঙ্গকো সিং

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ডিঙ্গকো সিং
Ngangom Dingko Singh at the 13th Asian Games.jpg
১৩তম এশিয়ান গেমসে স্বর্ণপদক জয়ের পরে ডিঙ্গকো সিং.
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামডিঙ্গকো সিং
জাতীয়তা ভারত
জন্ম(১৯৭৯-০১-০১)১ জানুয়ারি ১৯৭৯
মণিপুর, India
মৃত্যু১০ জুন ২০২১(2021-06-10) (বয়স ৪২)
ওজন৫৪ কিলোগ্রাম (১১৯ পা)
সামরিক কর্মজীবন
আনুগত্য India
সার্ভিস/শাখা ভারতীয় নৌবাহিনী
পদমর্যাদাIndia-Navy-OR-9.svg Master Chief Petty Officer 1st Class
পুরস্কারপদ্মশ্রী
অর্জুন পুরস্কার
ক্রীড়া
ক্রীড়ামুষ্টিযুদ্ধ
ওজন শ্রেণীব্যান্টমওয়েট
পদকের তথ্য
 ভারত-এর প্রতিনিধিত্বকারী
Asian Games
স্বর্ণ পদক - প্রথম স্থান 1998 Bangkok Bantamweight

মাস্টার চিফ পেট্টি অফিসার ডিঙ্গকো সিং (জন্ম: ১লা জানুয়ারী ১৯৭৯ - ১০ই জুন ২০২১) একজন ভারতীয় মুষ্টিযোদ্ধা, যিনি ১৯৯৮ সালে ব্যাংককে এশিয়ান গেমসে স্বর্ণপদক জিতেছিলেন। তিনি উত্তর-পূর্ব ভারতের মণিপুর রাজ্যের অধিবাসী। [১] ২০১৩ সালে তিনি ভারত সরকার দ্বারা পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত হন [২]

অর্জনসমূহ[সম্পাদনা]

নাঙ্গাঙ্গোম ডিঙ্গকো সিং, সাধারণত 'ডিংকো সিং' নামে পরিচিত তিনি একজন ভারতীয় মুষ্টিযোদ্ধা এবং ভারতের অন্যতম সেরা বক্সার হিসাবে বিবেচিত। ১৯৯৭ সালে তিনি ব্যাঙ্ককের কিং কাপ জিতেছিলেন এবং ১৯৯৮ সালে ব্যাংকক এশিয়ান গেমসে ৫৪ কেজি বিভাগে স্বর্ণ জিতেছিলেন। তিনি ভারতীয় নৌবাহিনীর একজন সার্ভিস কর্মী। ১৯৯৮ সালে থাইল্যান্ডের ব্যাংকক এশিয়ান গেমসে বক্সিং ইভেন্টে স্বর্ণপদক অর্জনের জন্য তিনি সুপরিচিত।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

তিনি ১৯৭৯ সালের ১লা জানুয়ারি মণিপুরের পূর্ব ইম্ফল জেলার সেকতা নামে প্রত্যন্ত গ্রামে খুব দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। ডিংকোকে জীবনের প্রথম থেকেই প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হয়েছিল এবং অনাথআশ্রমে বড় হয়েছিলেন তিনি। বক্সিং থেকে অবসর নেওয়ার পরে তিনি ভারতীয় নৌসেনার অফিসার রূপে কাজ করতেন। ২০১৭ সালে লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত হন তিনি। দীর্ঘ রোগভোগের পরে মাত্র ৪২ বছর বয়সে ২০২১ সালের ১০ই জুন শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ভারতের এই অসাধারণ বক্সার।

আন্তর্জাতিক বক্সিং[সম্পাদনা]

১৯৯৭ সালে তিনি আন্তর্জাতিক বক্সিংয়ের অঙ্গনে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন এবং থাইল্যান্ডের ব্যাংককে অনুষ্ঠিত ১৯৯৭ এর কিং কাপ জিতেছিলেন। টুর্নামেন্ট জেতার পাশাপাশি ডিংকো সিংকেও এই টুর্নামেন্টের সেরা বক্সার হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছিল।

সুবর্ণ সুযোগ[সম্পাদনা]

তিনি ১৯৯৮ সালে ব্যাংককের এশিয়ান গেমসে অংশ নিয়ে ভারতীয় বক্সিং দলের জন্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। অজানা কারণে তাকে শেষ মুহুর্তে দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল এবং এই ঘটনায় ডিঙ্গকো ভেঙে পড়েন। অবশেষে তিনি নির্বাচিত হন এবং ইভেন্টটি তার ক্যারিয়ারের শীর্ষস্থানীয় হিসাবে প্রমাণিত হয়েছিল কারণ তিনি ৫৪ কেজি ব্যান্টমওয়েট বিভাগে স্বর্ণপদক জয়ের মাধ্যমে ইতিহাস সৃষ্টি করেছিলেন। 

পুরস্কার ও সম্মান[সম্পাদনা]

বক্সিং খেলাধুলায় তাঁর শ্রেষ্ঠত্ব এবং তাঁর নিরন্তর প্রচেষ্টা ও নিষ্ঠার দ্বারা জাতির প্রতি তাঁর অসাধারণ অবদানের স্মরণে তাকে ১৯৯৯ সালে মর্যাদাপূর্ণ অর্জুন পুরস্কার এবং পরে ২০১৩ সালে দেশের চতুর্থ সর্বোচ্চ অসামরিক পুরস্কার পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত করা হয়েছিল।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. S. Rifaquat, Ali (১৩ নভেম্বর ১৯৯৯)। "India's most volatile pugilist"The Tribune। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০০৯ 
  2. "Padma Awards Announced" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। Ministry of Home Affairs। ২৫ জানুয়ারি ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জানুয়ারি ২০১৩