টোগোতে ইসলাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
উত্তর টোগোর মসজিদ

টোগোর মুসলমানরা জাতীয় জনসংখ্যার ৩০% উপর এর প্রতিনিধিত্ব করে।[১] পশ্চিম আফ্রিকার অনেক দেশে যেসময়ে ইসলাম এসেছিল প্রায় সেই সময়ে টোগোতেও আসে। টোগো মুসলমানদের বেশীরভাগ এর মালিকি মাজহাবের সুন্নি সম্প্রদায়ভুক্ত।[২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ইসলাম প্রথমে সাহারার দক্ষিণে লবণ ও সোনার ব্যবসায়ের পথ ধরেই প্রবর্তিত হয়েছিল। ইসলামীকৃত বারবার এবং টুয়ারেগ ব্যবসায়ীরা আন্তঃসাহারীয় বাণিজ্য রুটগুলি ভ্রমণ করেছিলেন। সময় পার হওয়ার সাথে সাথে মুসলিম আলেম ও পণ্ডিতগণ― তাদের বিশ্বাস শিক্ষা দিয়ে এবং পথে পথে উপাসনা স্থল স্থাপন করে― ব্যবসায়ীদের সাথে তাদের ভ্রমণে সঙ্গী হন। হাউসা এবং ফুলানি নামে একটি ঐতিহ্যবাহী যাযাবর গোষ্ঠী, তাদের মুসলিম বিশ্বাসকে বর্তমান গিনি, সিয়েরা লিওন এবং লাইবেরিয়ার মতো জায়গাগুলিতে নিয়ে পুরো পশ্চিম আফ্রিকা জুড়ে ভ্রমণ করেছিল।

জনমিতি[সম্পাদনা]

টোগোতে মুসলমানের সংখ্যার উপর নির্ভর করে উত্সের উপর নির্ভর করে। সিআইএ ওয়ার্ল্ড ফ্যাক্টবুক এই সংখ্যাটি ২০% বলে উপস্থাপন করে। পিউ রিসার্চ সেন্টারের একটি সমীক্ষা ২০০৯ সালের হিসাবে জনসংখ্যার ১২.২% বা ৮০৯,০০০ জন বলে একটি অনুমান করে।[৩]

উল্লেখযোগ্য মুসলমান[সম্পাদনা]

মন্তব্য[সম্পাদনা]

  1. "Togolese Muslims begin spiritual preparations for Ramadan"www.aa.com.tr। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৯-১১ 
  2. "Togo"The World Factbook। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৯-১১ 
  3. Miller, Tracy, সম্পাদক (অক্টোবর ২০০৯), Mapping the Global Muslim Population: A Report on the Size and Distribution of the World’s Muslim Population (PDF), Pew Research Center, ২০০৯-১০-১০ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০১-০১