টার্টল্‌স ক্যান ফ্লাই

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
টার্টল্‌স ক্যান ফ্লাই
টার্টল্‌স ক্যান ফ্লাই (২০০৪).jpg
ইউএস প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পোস্টার
পরিচালক বাহমান ঘোবাধি
প্রযোজক
  • বাবাক আমিনি
  • হামিদ ঘোবাধি
  • হামিদ গাভামি
  • বাহমান ঘোবাধি
রচয়িতা বাহমান ঘোবাধি
শ্রেষ্ঠাংশে
  • সোরান ইব্রাহিম
  • আভাজ লতিফ
সুরকার হোসাইন আলিজাদেহ
চিত্রগ্রাহক শাহরিয়াহ অআসাদি
সম্পাদক
  • মোস্তফা কেগেপুশ
  • হেইধ সেফিয়ারি
প্রযোজনা
কোম্পানি
মিজ ফিল্ম কো.
বাক ফিল্ম
পরিবেশক আইএফসি ফিল্মস (ইউএস)
মুক্তি
  • ১০ সেপ্টেম্বর ২০০৪ (২০০৪-০৯-১০) (টরন্টো)
  • ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৫ (২০০৫-০২-১৮) (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র)
  • ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০০৫ (২০০৫-০২-২৩) (ফ্রান্স)
দৈর্ঘ্য ৯৭ মিনিট[১]
দেশ ইরান, ফ্রান্স, ইরাক
ভাষা কুর্দি
আয় $১,০৭৫,৫৫৩

টার্টল্‌স ক্যান ফ্লাই (ফার্সি: لاک پشت ها هم پرواز می کنند‎‎ Lakposhthâ ham parvaz mikonand, কুর্দি: Kûsî Jî Dikarin Bifirin তুর্কী: Kaplumbağalar Da Uçar) ২০০৪ সালের কুর্দি যুদ্ধ নাট্য চলচ্চিত্র। রচনা, প্রযোজনা এবং পরিচালনা করেছেন বাহম্যান ঘোবাদি

সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন হোসাইন আলিজাদেহসাদ্দাম হোসেইনের পতনের পর এটি ইরাকে নির্মিত প্রথম চলচ্চিত্র।

কাহিনীসংক্ষেপ[সম্পাদনা]

ইরাক- তুর্কি সীমান্তে একটি কুর্দি শরণার্থী শিবিরকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে । ১৩ বছরের ছেলে “স্যাটেলাইট” যে স্থানীয় গ্রাম্য এলাকায় ডিশ এন্টেনা স্থাপন এর জন্য সুপরিচিত এবং সে স্থানীয় শিশুদের নেতা । সে স্থানীয় শিশুদের নিয়ে খুব বিপদজনক কিন্তু প্রয়োজনীয় কাজ মাইনফিল্ডের মাইন অপসারণের কাজ শুরু করে । এই শিশুদের মধ্যে বেশিরভাগ শিশুই কোন না কোনভাবে শারীরিকভাবে আঘাতপ্রাপ্ত । এরপর স্যাটেলাইট স্থানীয় বাজারে অবিস্ফোরিত মাইন বিক্রয়ের ব্যবসা শুরু করে এবং সে একটি অনাথ মেয়ে এগ্রিন এর প্রেমে পড়ে যার একটি প্রতিবন্ধী কিন্তু মমতাময়ী ভাই আছে এবং একটি অন্ধ শিশু সন্তান আছে । এগ্রিন যুদ্ধ সৈনিকদের দ্বারা গনধর্ষণের শিকার হয় এবং তার ফলস্বরূপ সেই শিশুটি তার গর্ভে আসে । এগ্রিন কোনভাবেই তার অতীতের ট্রমা থেকে বের হয়ে আসতে পারে না যখন তার সামনে তার বাবা-মাকে মেরে ফেলা হয় এবং তাকে গনধর্ষণ করা হয়।

অভিনয়ে[সম্পাদনা]

  • সোরান ইব্রাহিম — স্যাটেলাইট
  • আজিল জিবারি — শিরখু
  • আভাজ লতিফ — আগ্রিন
  • হাইরেশ ফয়সাল রহমান — হ্যাঙ্গাভ
  • অবদুল রহমান করিম — রিগা

সমালোচকদের প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্রটি মূলত ইতিবাচক পর্যালোচনা অর্জন করেছে। পর্যালোচনা ভিত্তিক ওয়েবসাইট রটেন টম্যাটোস-এ ৭২টি পর্যালোচনার ভিত্তিতে ৭.৮/১০ গড়ে ছবিটির রেটিং স্কোর ৮৮% এবং ওয়েবসাইটের পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে, "সাদ্দামের পতনের পর ইরাকের পটভূমিতে নির্মিত টার্টল্‌স ক্যান ফ্লাই অসাধারণ, স্পর্শকাতর ও গীতসুলভ হিসেবে প্রশংসিত।"[২] মেটাক্রিটিক-এ ৩২টি পর্যালোচনার ভিত্তিতে এর রেটিং ৮৫/১০০, যা মূলত "বিশ্বব্যাপী সমাদৃত" নির্দেশ করে।[৩]

পুরস্কার[সম্পাদনা]

বছর পুরস্কার বিভাগ প্রাপক এবং মনোনীত ফলাফল
২০০৪ সান সেবাস্তিয়ান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব গোল্ডেন সিশেল, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বিজয়ী
২০০৪ শিকাগো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব বিশেষ জুরি পুরস্কার বিজয়ী
২০০৪ সাও পাওলো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব আন্তর্জাতিক বিচারক এবং দর্শক পুরস্কার উদাহরণ বিজয়ী
২০০৪ ইসফাহান ইন্টারন্যাশনাল ফেস্টিভাল অব ফিল্মস ফর চিল্ডরেন গোল্ডেন বাটারফ্লাই বিজয়ী
২০০৫ বার্লিন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব গ্লাস বিয়ার, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র এবং শান্তি চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ী
২০০৫ মেক্সিকো সিটি আন্তর্জাতিক সমসাময়িক চলচ্চিত্র উৎসব লা পিয়েজা পুরস্কার, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বিজয়ী
২০০৫ রটারডাম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব দর্শক পুরষ্কার উদাহরণ বিজয়ী
২০০৫ তিবলিসিতে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব গোল্ডেন প্রমিথিউস, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বিজয়ী
২০০৫ ত্রোমসো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব অররা পুরস্কার বিজয়ী
২০০৫ ফেস্ত্রোইয়া - ত্রইয়া আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব গোল্ড ডলফিন বিজয়ী
২০০৫ সানডেন নির্বাচন উদাহরণ উদাহরণ বিজয়ী
২০০৭ সিলভার স্কেলেটন অ্যাওয়ার্ড হার্ভেস্ট মনিলিট ফেস্টিভাল বিজয়ী

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "TURTLES CAN FLY (15)"British Board of Film Classification (ইংরেজি ভাষায়)। ২৯ নভেম্বর ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জুন ২০১৩ 
  2. "Turtles Can Fly"রটেন টম্যাটোস। ফ্যান্ডেঙ্গো। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১৮ 
  3. "Turtles Can Fly"মেটাক্রিটিক। সিবিএস ইন্টারঅ্যাক্টিভ ইনকরপোরেটেড। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]