টর্ট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

টর্ট এর উদ্ভব মূলত ল্যাটিন শব্দ Toram থেকে, যার অর্থ দাঁড়ায় ভুল, অর্থাৎ যে দেওয়ানি ভুল আমল যোগ্য। বাংলাদেশে টর্ট কি, তা সম্পর্কে যথাযথভাবে কোথাও, অর্থাৎ সংবিধানে বা কোন আইনে উল্লেখ করা নেই। তবে, বাংলাদেশ সহ আমদের এই ভারতীয় উপমাহাদেশের যতগুলো দেশ ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের অন্তর্গত ছিল, সকল দেশের আইন ব্যাবস্থায় কমন ল-এর প্রভাব দেখা যায়। বাংলাদেশ-ও এর ব্যাতিক্রম নয়। টর্ট এর উৎপত্তি ইংল্যান্ডে, তাই এর সরাসরি উল্লেখ বাংলাদেশের সংবিধান বা কোন আইনে না থাকলেও, এখতিয়ারভুক্ত আদালতে এর আমলযোগ্যতা রয়েছে।

টর্ট সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট কোন সংজ্ঞা এখনো পর্যন্ত দেওয়া সম্ভব হয়নি। এটি মুলত ধারনা এবং লিগ্যাল ম্যাক্সিমের উপর ভিত্তি করে বর্তমান রয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত স্যালমন্ডের অভিমতটি সর্বাধিক গ্রহণযোগ্য হিসেবে বিবেচিত, যেখানে তিনি বলেছেন,

Tort is a civil wrong for which the remed is a common law action for unliquidated damages, and which is not exclusively the brance of a contrat, or, the breach of a trust, or, other merely equitable obligation.

যার অর্থ দাঁড়ায়,

টর্ট এমন এক প্রকারের প্রতিকার যা দেওয়ানি ক্ষতিসাধনের দরুন প্রদান করা হয়; যা পারতপক্ষে চুক্তিভঙ্গ, বিশ্বাসভঙ্গ বা এই জাতীয় ন্যায়সম্মত দায়ের অন্তর্গত নয়।