জ্বালা গুট্টা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জ্বালা গুট্টা
আইবিএল-এর একটি খেলায় জ্বালা
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (1983-09-07) ৭ সেপ্টেম্বর ১৯৮৩ (বয়স ৩৭)
ওয়ারধা, মহারাষ্ট্র, ভারত
বাসস্থানহায়দ্রাবাদ, তেলঙ্গানা, ভারত
উচ্চতা১.৮৩ মি (৬ ফু ০ ইঞ্চি)[১]
ওজন৬০ কেজি (১৩০ পা; ৯.৪ স্টো)
দেশ ভারত
খেলোয়াড়ী জীবনের দৈর্ঘ্য২০০১–বর্তমান
যে হাতে খেলেনবাঁ
মিশ্র দ্বৈত/মেয়েদের দ্বৈত
মর্যাদাক্রমে সর্বোচ্চ স্থান(in XD) (আগস্ট ২০১০)
১০ (in WD) (২০ আগস্ট ২০১৫)
মর্যাদাক্রমে বর্তমান স্থান১৪ (in WD) (৫ মে ২০১৬)
বিডব্লউএফ প্রোফাইল

জ্বালা গুট্টা (জন্ম ৭ সেপ্টেম্বর ১৯৮৩) একজন বাঁহাতি ভারতীয় ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়। তার জন্মস্থান ওয়ার্ধা। জ্বালা গুট্টা খুব কম বয়স থেকে ব্যাডমিন্টন খেলা শুরু করেন। তার বাবা ভারতীয় এবং মা চীনা। তিনি ভারতের সবচেয়ে সফল পারদর্শী দ্বৈত খেলোয়াড় এবং ১৯৯০ এর দশকের শেষের দিক থেকে ২০১৭সাল অবধি আন্তর্জাতিক আবর্তে দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তিনি ১৪ বার জাতীয় ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগীতা জিতেছেন। ২০০০ সাল থেকে উনি ভারতের হয়ে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করছেন।তার কর্মজীবনের প্রারম্ভে শ্রুতি কুরিয়েনের সাথে খেলেছেন, কিন্তু অশ্বিনী পনন্পা' জুটির সাথে আরও বেশি আন্তর্জাতিক সাফল্য পান। অশ্বিনী পোনাপ্পার সাথে জুটি বেঁধে খেলে উনি ২০১৫ সালে বিশ্বের প্রথম ১০টি জুটির মধ্যে উঠে আসেন। গুট্টা, পোনাপ্পার সঙ্গে মহিলা জুটিতে এবং ভি ডিজুর সাথে মিশ্র জুটিতে লন্ডনে অলিম্পিকে দুটি ইভেন্টের জন্য যোগ্যতা অর্জনকারী প্রথম ভারতীয় ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়। গুট্টা তার দক্ষ বাম হাতি স্ট্রোক-খেলার জন্য পরিচিত এবং একটি ফোরহ্যান্ড সার্ভিস ব্যবহার করা খুব কমসংখ্যক ডাবলস খেলোয়াড়দের মধ্যে একজন।

লন্ডনে ২০১১ বিডব্লিউএফ ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে অসংখ্য পদকসহ ব্রোঞ্জ মেডেল ভারতীয় ব্যাডমিন্টনের জন্য জিতেছেন এবং ২০১০ ও ২০১৪ সালে কমনওয়েলথ গেমসে স্বর্ণ ও রৌপ্য পদক পেয়েছে মহিলা দ্বৈত ইভেন্টে, যা এই শৃঙ্খলায় দেশের জন্য প্রথম। অন্যান্য কৃতিত্বের মধ্যে নতুন দিল্লিতে ২০১৪ থমাস ও উবার কাপে ঐতিহাসিক ব্রোঞ্জ পদক প্রাপ্তি, একই বছরে ব্যাডমিন্টন এশীয় চ্যাম্পিয়নশিপের ব্রোঞ্জ পদক এবং অনেক বড় আন্তর্জাতিক ইভেন্টের সেমি ফাইনাল এবং ফাইনালে উপস্থিতি বিশেষ করে ২০০৯ বিডব্লিউএফ সুপার সিরিজের মাস্টার্স ফাইনাল, পাশাপাশি ভি ডিজুর সঙ্গে দেশের জন্য যে কোন শৃঙ্খলার মধ্যে প্রথম।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Jwala Gutta"BWF। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৬