জোসেফিন বেকার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
জোসেফিন বেকার
Baker Banana.jpg
জোসেফিন বেকার তার বিখ্যাত কলানৃত্য সাজে
প্রাথমিক তথ্য
জন্ম নাম ফ্রেদা জোসেফিন ম্যাকডোনাল্ড
জন্ম (১৯০৬-০৬-০৩)জুন ৩, ১৯০৬
সেন্ট লুইস, মিসৌরি, যুক্তরাষ্ট্র[১][২]
মৃত্যু এপ্রিল ১২, ১৯৭৫(১৯৭৫-০৪-১২) (৬৮ বছর)
প্যারিস
ধরন ক্যাবারে, মিউজিক হল, ফ্রেন্স পপ গান, ফ্রেন্স জ্যাজ
পেশা(সমূহ) নৃত্যশিল্পী, শিল্পী, অভিনেত্রী, আফ্রিকান-আমেরিকান গণ অধিকার আন্দোলন, গুপ্তচর
বাদ্যযন্ত্রসমূহ ভোকাল
কার্যকাল ১৯২১-১৯৭৫
লেবেল কলম্বিয়া, মার্কারী, আরসিএ ভিক্টর
ওয়েবসাইট জোসেফিন বেকার

জোসেফিন বেকার (জুন ৩, ১৯০৬ - এপ্রিল ১২, ১৯৭৫) ছিলেন আমেরিকান বংশদ্ভুত ফ্রেন্স নৃত্যশিল্পী, সঙ্গীত শিল্পী ও অভিনেত্রী। তার আসল নাম ফ্রেদা জোসেফিন ম্যাকডোনাল্ড। তিনি ১৯০৬ সালে মিসৌরির সেন্ট লুইসে জন্মগ্রহন করেন ও ১৯৩৭ সালে ফ্রান্সের নাগরিকত্ব পান। ফ্র্যান্স ও ইংরেজি দুই ভাষাতেই অনর্গল কথা বলতে পারা বেকার আন্তর্জাতিক সংঙ্গীত ও রাজনৈতিক অঙ্গনে ছিলেন অন্যতম নারী। বিভিন্ন সময় তাকে কয়েকটি ডাকনাম প্রদান করা হয়েছিল। যেগুলোর মধ্যে “ব্রোঞ্জ ভেনাস”, “দ্য ব্ল্যাক পার্ল” ও “ক্রিউল দেবী”।

বেকার প্রথম আমেরিকান-আফ্রিকান অভিনেত্রী, যিনি মেজর মোশন পিকচারে অভিনয় করেন, জুজু (১৯৩৪) এবং আমেরিকা সেন্ট্রাল হলে অভিনয় করে বিশ্বব্যাপী খ্যাতি লাভ করেন।[৩] এছাড়াও তিনি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ফ্র্যান্স রেসিস্টেন্সকে সহযোগিতা করে খ্যাতি লাভ করেন। এজন্য তাকে ফ্রান্স মিলিটারি সম্মান, “ক্রোইক্স ডি গ্যারি” প্রদান করা হয়। গন অধিকার আন্দোলনের সময় মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র ১৯৬৮ সালে গুপ্তহত্যার শিকার হয়ে নিহত হওয়ার পর তাকে রাজা করেট্টা স্কট তাকে ব্যাক্তিগত ভাবে আন্দোলনে নেতৃত্ত দিতে বলেছিলেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

বেকার ফ্রেদা জোসেফিন নাম নিয়ে সেন্ট লুইসে জন্মগ্রহন করেন। তার বাবার নাম ক্যারি ম্যাকডোনাল্ড।[১][২] কিন্তু তার পিতার নাম নিয়ে বিতর্ক আছে কেউ কেউ মনে করে, এডি কারসন ছিলেন তার প্রকৃত পিতা।[৪] বেকারের পালিত পুত্র জেইন ক্লাউড বেকার এক জীবনীতে দাবি করেন,

১৮৮৬ সালের দিকে বেকারের মা ও ক্যারি ছিলেন আরকানসাসের লিটল রকে বসবাস করা রিচার্ড ও এলভিরা ম্যাকডোল্ডেনের পরিবারের পালিত সন্তান।[৬] তারা দুজনেই ছিলেন, আফ্রিকান ও আমেরিকান বংশদ্ভুত দাস। আট বছর বয়সে বেকারকে একজন ইংরেজ মহিলার কাছে পাঠানো হয়। কিন্তু বেকার সেখান থেকে চলে যান কারণ, লন্ড্রিতে বেশি পরিমানে সাবান দেওয়ায় সেই মহিলা বেকারের হাত পুড়ে দেন। বেকার সেখান থেকে অন্য একটি মহিলার কাছে গিয়ে কাজ নেন।

বেকার ১২ বছর বয়সে স্কুল ত্যাগ করেন ও সেন্ট লুইসের বস্তিতে পথশিশু হয়ে বেরে উঠেন। তিনি বস্তির খুপরী ঘরে থাকতেন ও ডাস্টবিনে খাবার খুঁজতেন। স্ট্রিট ড্যান্সার হিসেবে নেচে তিনি সবার দৃষ্টি আকর্ষন করেন এবং ১৫ বছর বয়সে সেন্ট লুইস ভ্যাদিভেলী প্রদর্শনীতে নাচার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর সাংস্কৃতিক বিপ্লবের সময় তিনি নিউইর্কের দিকে চলে যান। সেখানে তিনি প্লেনটেশন ক্লাব ও কোরাস লাইনে নাচতেন।[৭] তিনি সাধারনত কোরাস লাইনের সর্বশেষ নর্তকী হিসেবে নাচতেন। এভাবে একসময় বেকার ভ্যাদীভ্যালীর কোরাস লাইনের সবচেয়ে দামী নর্তকী হয়ে উঠেন।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Josephine Baker (Freda McDonald) Native of St. Louis, Missouri" 
  2. "V & A - About Art Deco - Josephine Baker"। Victoria and Albert Museum। 
  3. A Biography of Josephine Baker
  4. "About Josephine Baker: Biography"Official site of Josephine Baker। The Josephine Baker Estate। ২০০৮। সংগৃহীত ২০০৯-০১-১২ 
  5. Baker, Jean-Claude; Chase, Chris (১৯৯৩)। Josephine: The Hungry Heart (First সংস্করণ)। New York: Random House। আইএসবিএন 0-679-40915-7  |coauthors= প্যারামিটার অজানা, উপেক্ষা করুন (সাহায্য)
  6. Jacob M. Appel St. James Encyclopedia of Popular Culture, May 2, 2009. Baker biography
  7. 'Underneath a Harlem Moon ... The Harlem to Paris Years of Adelaide Hall' by Iain Cameron Williams. Published 2003, Continuum Int. Publishing, আইএসবিএন ০-৮২৬৪-৫৮৯৩-৯:

গ্রন্থপুঞ্জি[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]