জোয়ান আলকোভার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জোয়ান আলকোভার
Joan Alcover Maspons.svg
জন্মজোয়ান আলকোভার আই মেসপনস
(১৮৫৪-০৫-০৩)৩ মে ১৮৫৪
পালমা দে ম্যাজোর্কা, স্পেন
মৃত্যু২৫ ফেব্রুয়ারি ১৯২৬(1926-02-25) (বয়স ৭১)
পালমা দে ম্যাজোর্কা, স্পেন
পেশাআইনজীবী, রাজনীতিবিদ, কবি
ভাষাকাতালানস্প্যানিশ
জাতীয়তাস্প্যানিশ
উল্লেখযোগ্য রচনাবলিলা বালাঙ্গুয়েরা (ম্যালোর্কা স্তবগান)
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারফ্লোরাল গেমস
দাম্পত্যসঙ্গীরোসা পুজল গুয়ার্খ
মারিয়া দেল হ্যাঁরো রোঁসেলো
সন্তানপিরে, তেরেসা, গাইতেঁ
মারিয়া, পাঁউ

জোয়ান আলকোভার ই মেসপন্স (কাতালান উচ্চারণ: [ʒuˈan əɫkoˈve]) (১৮৫৪ - ১৯২৬) একজন স্প্যানিশ ব্যালেরিক লেখক, কবি, রচনাবিদ এবং রাজনীতিবিদ ছিলেন।

আত্মজীবনী[সম্পাদনা]

আলকোভার একটি প্রভাবশালী পরিবারের ছেলে ছিলেন। তিনি ব্যালেরিক ইনস্টিটিউটে স্নাতক পাস করেন। এরপর বার্সেলোনায় আইন বিষয়ে পড়াশোনা করেন। ১৮৭৮ সালে তিনি আইনজীবি হন এবং মাজোর্কায় দিরে আসেন। সেখানে এসে তিনি সেখানকার বিচার কাঠামোতে তিনি নানা অবস্থানে কাজ করেন। একসঙ্গেই, তিনি তার বন্ধু অ্যান্টনি মাউরার স্বাধীনতার দলে যুদ্ধরত ছিলেন যখন তিনি। তিনি জানতেন যে তার রাজনীতি তাকে আদালত থেকে বহিষ্কারের মত চরম অবস্থায় নিয়ে যায়। মাদ্রিদে কিছুকাল থাকার পর তিনি ব্যালেরিক দ্বীপে ফিরে আসেন এবং সমস্ত রাজনীতি বিষয়ক কাজ থেকে দূরে থাকেন।

শুরু থেকেই তিনি পড়াশোনার প্রতি আগ্রহী ছিলেন এবং পরবর্তীতে তার পেশাগত জীবনে তিনি লেখালেখির প্রতি আগ্রহী ছিলেন। ১৮ বছর বয়সে তিনি এল আইসলেনো, মুসিও ব্যালের বা রেভিস্তা ব্যালের-এর মত ম্যাগাজিনে কাতালানস্প্যানিশ ভাষায় কবিতা লিখতেন। যাই হোক, তার সাহিত্যানুরাগ বার্সেলোনায় থাকাকালীন আরো জোরাল হয় যেখানে তিনি রেনেজেঁসার বিভিন্ন সাহিত্য বিষয়ক কর্মসূচীর (ম্যাগাজিন, সাহিত্য প্রতিযোগীতা, সম্মেলন, পড়া ইত্যাদি) সাথে যুক্ত ছিলেন। ২৩ বছর বয়সে তিনি বার্সেলোনার জোস ফ্লোরাল-এ [ফ্রোরাল খেলা] অসাধারণ পুরস্কার পান।

জোয়ান আলকোভার কবি হিসেবে স্বীকৃতি পাবার পথে ছিলেন এবং তিনি খুব শীঘ্রই সাহিত্যানুরাগী ব্যক্তি হিসেবে চিহ্নিত হ্ন, যিনি সামাজিক মর্যাদা লাভের জন্য লিখতেন। ধীরে ধীরে তিনি কাতালান লেখা শুরু করলেন এবং সেই সাথে তিনি স্প্যানিশ কবিতা লেখেন। তার প্রথম কবিতার বই পোসিয়াস [কবিতা] (১৮৮৭), নুয়েভাস পোসিয়াস [নতুন কবিতা] (১৮৯২), পোয়েমাস ইয়ে আরমোনিয়াস [কবিতা এবং ছন্দ] (১৮৯৪) এবং মেটেওরসপোয়েমাস, আপোলোজোস ইয়ে কুয়েন্তোস [উল্কা. কবিতা, নীতিকাহিনী এবং গল্প] (১৯০১) তার বহুভাষাবিদ হবার ইচ্ছারই প্রতিচ্ছবি যদিও তন্মধ্যে কাতালান শিরোনামযুক্ত প্রথম দুটো লেখা ছিল। তবে অন্য দুটি শিরোনাম স্প্যানিশে লেখা ছিল। এটি একটি রোমান্টিক কবিতা যা অন্য কবি যেমন বেকুয়ার বা ক্যামপোয়ামার-এর অনুকরণে লেখা হয়। তার কবিতার ভঙ্গিমা অসাধারণ ছিল। তিনি অধিক অলঙ্কৃত এবং নিদারুণ আত্মম্ভরিতাপূর্ণ লেখা পরিহার করতে চাইতে। তার সব লেখাই প্রায় সমালোচক কর্তৃক প্রশংসিত হত।

তবে দুর্ভাগ্য তার জীবন এবং সাহিত্য জীবনে একটি নিষ্পত্তিমূলক কাজ করে। ১৮৮৭ সালে তার বিয়ের ছয় বছরের মাথায় আলকোভার তার পত্নীকে, রোজা পুজোল গুয়ার্খকে হারায়। এই দম্পতির তিন সন্তানঃ পেরে, তেরেসা এবং গাইতে ছিল। ১৮৯১ সালে তিনি আবারও বিয়ে করেন, মারিয়া দেল হ্যারো রোসেলিকে। এই দম্পতির মারিয়া এবং পাই নামের দুটি সন্তান ছিল। পাঁচ সন্তানের মধ্যে মাত্র একজন, তার সর্বকনিষ্ঠ সন্তানই তার সাথে ছিল। ১৯০১ সালে তেরেসা যক্ষায়, ১৯০৫ সালে পেরে টাইফয়েডে, ১৯১৯ সালে মারিয়া ও গাইতেঁ একইদিনে মারা যায়। পরপর এরুপ শোকাতুর ঘটনা তার নার্ভাস ব্রেকডাউন ঘটায় যা তার অন্তঃগবেষণা, আরো প্রাকৃতিক এবং দায়িত্বমূলক প্রকাশকে আরো উচ্চতা দেয়। তার কবিতা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণভাবে পরিবর্তিত হতে থাকে এবং তিনি তার নিজের মাধ্যমে লিখতে থাকেন। ১৮৯৯ ও ১৯০৩ সালের মধ্যে আলকোভর দ্বিধাবোধ করতে থাকে, সে কি স্প্যানিশে লেখা চালিয়ে যাবে, নাকি কাতালানে ফিরে আসবে? এরপর পরই তিনি নকাতালানে লিখতে শুরু করেন।

প্রকৃতপক্ষে তার পরিপার্শ্বের বিষয় তার জীবনের অন্য দিককে পেরিয়ে গেল। এই সময়ের মাজোর্কায় রোমান্টিক লেখা প্রায় নেই হয়ে যেত লাগল। দ্বীপটি আধুনিক হতে লাগল। সাংস্কৃতিক বন্ধন ক্যাটালোনিয়া এবং রাজনীতির ক্যাটালানিজম ঐ দ্বীপে অভিক্ষিপ্তাবস্থা লাভ করে। এই সব তার সাহিত্যের ঘরানাকে আরো বড় করে তুলতে বাধ্য করল। তিনি আরো প্রশস্ত আন্দোলনে যোগ দিলেন, মূলত তার বন্ধু সান্তিয়াগো রাসিনোল এবং জোসেপ কার্নারের সাথে বন্ধুত্বের ফলে। এগুলো তাকে শিল্প এবং সাহিত্যের বিষয়ে আরো গভীরতর উপলব্ধি এনে দিল যা আর সরল বা বিনোদনমূলক ছিল না বরং একটি সামাজিক যোগদান ছিল। তিনি বিশ্বাস করতেন যে কবিতার অনুরণন থাকা উচিত এবং এর কোন নির্দিষ্ট প্রয়োজনীয়তা বা উদ্দেশ্য থাকা চাই যার কাছ থেকে এটি আত্মবিশ্বাস লাভ করবে এবং যাকে এটি সহায়তা করবে।

১৯০৪ সালে তিনি বার্সেলোনার বিজ্ঞান সমিতির হিউম্যাবিতযাকিও দ্য ল'আর্ত [শিল্পের মানবিক রুপ] নামক এক সম্মেলনের আয়োজন করেন। এই সম্মেলনেই তিনি গীতধর্মী সংমিশ্রনের ব্যাপারে ঘোষণা দেন। এই কথায় তিনি কবির কাজ শুধু সৌন্দর্যধর্মী অধিক পরিষ্কার এবং বুদ্ধিমান প্রকাশ-এই মতের অত্যন্ত সুন্দরভাবে বিরোধিতা করেন। তিনি কারচুপি ভিত্তিক বুদ্ধিমান কবিতার এবং তথাকথিত সাহিত্য বিদ্যালয়ের এবং মতের বিরোধিতা করেন। তিনি জোয়ান মার্গেলের ন্যায় নিজেকে অর্ধ-স্বতস্ফুর্তঘরাণার কবি হিসেবে চিহ্নিত করেন। শতাব্দির পরিবর্তনের ন্যায় জীবন এবং সত্যের বিষয়ে আলকোভার একধরনের কবির ন্যায় ধরন বেছে নেয় যা জীবনের অভিজ্ঞতাকে দৃঢ়ভাবে বন্ধনযুক্ত করে রাখবে এবং পাঠকের চেতনার সাথে গভীরভাবে সংযুক্ত থাকবে।

যে বইটি তার গীতধর্মী মতের উদাহরণ সবচেয়ে সুন্দরভাবে দেয় তা হল কাপ আল তার্দ [যখন দেরি হচ্ছে] (১৯০৯)। এটি সম্পূর্ণভাবে ক্যাটালানে লেখা হয়েছিল। এই ধরনের সমষ্টিগত অসংযুক্ত কবিতার ক্ষেত্রে আমরা দেখতে পাই বিভিন্ন লোকের গীতধর্মী কন্ঠবিভাজন যা মাজোর্কার নানা ভূদৃশ্য দেখায়। এটি মূলত তাদের রক্তাক্ত অবস্থা, অনুভূতি, চিন্তা এবং কবির চিন্তাধারা দেখানোর একটি প্রচেষ্টা। আলকোভার বিখ্যাত কবি বালাঙ্গুয়েরার মত বিখ্যাত কবিতা থেকে ধরন ও চিন্তা নিয়ে এই কাজগুলো করেছিলেন। এতে এলিগিয়েস নামক শাখা আছে যা নিঃসন্দেহে বইটির অন্যতম উঁচু ধারা। এখানে কবি কিছুটা অসংযুক্ত অংশ থেকে পিতাগত কষ্ট যা তিনি অনুভব করেছিলেন, থেকেই পুরো ব্যাপারটার বর্ণনা করেন। তিনি কষ্টকে অতিক্রম করেন এই বিশ্ব অনুভূতির মাধ্যমে। পোয়েমস বাইব্লিক্‌স [বাইবেলের কবিতা] (১৯১৮) বইয়ে, যা তার শেষ বই হতে পারত, তিনি আবারো বিভিন্ন রাজনীতিবিদদের ব্যবহার করে কবিতা লিখেন, তবে তখন ওগুলো বাইবেলগত অনুপ্রেরণা হয়ে ওঠে। তিনি সেই উচ্চতায় এবার পৌছতে পারেননি যা তিনি পুর্বে পেরেছিলেন।

মাইকেল কস্তা লিওবেরার ন্যায় তারও বুদ্ধিমান মর্যাদা ছিল। এই মর্যাদা স্বীকৃত ছিল এবং তখনকার সময়ের বিভিন্ন লেখক কর্তৃক তিনি জয়ধ্বনি পেয়েছিলেন বিশেষত এসকোলা মালোরগুইনা [মাজোর্কান বিদ্যালয়] থেকে। তিনি অ্যাকাদেমিয়া দ্য বোনস্‌ লিএত্রেস [ভাল চিঠির অ্যাকাডেমি] (১৯১৩)-এর সদয় ছিলেন। এছাড়াও তিনি বার্সেলোনার জোক্‌স ফ্লোরালস [ফুলজাত খেলা] (১৯১৬)-এর প্রধান ছিলেন এবং ইনস্টিটিউট দ্য এস্তুদিস ক্যাটালান্স [কাতালান পাঠের প্রতিষ্ঠান]-এর সদস্য ছিলেন।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]