ইওয়াখিম ল্যোভ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(জোয়াকিম লো থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইওয়াখিম ল্যোভ
Joachim Löw, Germany national football team (05).jpg
Löw in 2011
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম ইওয়াখিম ল্যোভ
জন্ম (1960-02-03) ৩ ফেব্রুয়ারি ১৯৬০ (বয়স ৫৯)
জন্ম স্থান শ্যোনাউ, পশ্চিম জার্মানি
উচ্চতা ১.৮৩ মি (৬ ফু ০ ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান মধ্যমাঠের খেলোয়াড়
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব জার্মানি (ম্যানেজার)
জাতীয় দল
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
১৯৭৯–১৯৮০ জার্মান অনূর্ধ্ব ২১ জাতীয় ফুটবল দল 4 (0)
দলসমূহ পরিচালিত
বছর দল
১৯৯৪ এফসি উইন্টারথুর (যুব)
১৯৯৪–১৯৯৫ এফসি ফ্রাউয়ানফেল্ড
১৯৯৫–১৯৯৬ স্টুটগার্ট (সহকারী)
১৯৯৬–১৯৯৮ স্টুটগার্ট
১৯৯৮–১৯৯৯ ফেনারবাজে এস কে
১৯৯৯–২০০০ কার্লসরুহা এসসি
২০০১ আদানাস্পোর
২০০১–২০০২ এফসি টিরোল ইন্সব্রুক
২০০৩–২০০৪ এফকে অস্ট্রিয়া ভিন
২০০৪–২০০৬ জার্মানি জাতীয় ফুটবল দল (সহকারী)
২০০৬– জার্মানি
† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

ইওয়াখিম ল্যোভ (জার্মান: Joachim Löw; জার্মান উচ্চারণ: [ˈjoːaxɪm ˈløːf] ) জার্মান জাতীয় ফুটবল দলের ম্যানেজার এবং এবং সাবেক ফুটবল মিডফিল্ডার।

ফুটবল ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

১৯৭৮ সালে ল্যোভ এসসি ফ্রাইবুর্গ দলের হয়ে বুন্দেসলিগায় খেলার মাধ্যমে তার ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু করেন। ক্লাব ছেড়ে তিনি দুইবার চলে গেলেও এই ক্লাবেই তিনি ফিরে আসেন এবং ক্লাবটির সবচেয়ে বেশি গোলদাতার রেকর্ডটি তারই।[১] ১৯৮০ সালে স্টুটগার্টের হয়ে তিনি বুন্দেসলিগায় খেলেন। কিন্তু এই দলের সাথে খেলায় তিনি অসুবিধা বোধ করেন এবং মাত্র চারটী ম্যাচ খেলেন।

১৯৮১-৮২ মৌসুমে আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্টের হয়ে খেলেন। তবে ১৯৮২-৮৩ সালেই আবার তিনি ফ্রাইবুর্গে ফিরে আসেন। তিনি ৮৪ ম্যাচে আটটি গোল করেন। ১৯৮৩-৮৪ সালে তিনি ১৭টি গোল করেন ৩১টি ম্যাচ খেলে। এরপরে তিনি কার্লসরুহা এসসি-এর হয়ে বুন্দেসলিগায় খেলেন। তবে এ ক্লাবের হয়ে তিনি ২৪টী ম্যাচে মাত্র দুইটি গোল করতে সমর্থ হন। পরবর্তিতে তিনি আবার ফ্রাইবুর্গে ফিরে আসেন এবং ১১৬টি ম্যাচ খেলে ৩৮টি গোল করেন। ল্যোভ তার ক্যারিয়ার সুইজারল্যান্ডে শেষ করেন। এখানে তিনি এফসি শাফহাউসান এবং এফসি উইন্টারথুর-এর হয়ে খেলতেন।

ল্যোভ জার্মান অণুর্ধ ২১ জাতীয় দলের হয়ে চারবার খেলেন।

ম্যানেজার ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

ল্যোভ এফসি উইন্টারথুর-এর কোচ হিসেবে তার কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করেন। এসময় তিনি এফসি ফ্রয়েনফেল্ড ক্লাবের ফুটবলারও ছিলেন।

১৯৯৫-৯৬ সালে ল্যোভ ভিএফবি স্টুটগার্ট-এর সহকারী কোচ নিযুক্ত হন। তার সাথে প্রধান কোচ হিসেবে ছিলেন রোলফ ফ্রিঙ্গার। ফ্রিঙ্গার পরবর্তিতে সুইজারল্যান্ড জাতীয় ফুটবল দলের কোচ হলে ল্যোভ স্টুটগার্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান কোচ হন। পরে তিনি ক্লাবটির ম্যানেজার নিযুক্ত হন। ক্লাবটির বেশ কয়েকজন ভাল ফুটবলারের কারণে সেসময় একটি সফল মৌসুম পার করে। পরের বছরে ল্যোভের ক্লাব বুন্দেসলিগায় চতুর্থ স্থান অর্জন করে এবং ইউরোপিয়ান কাপ উইনারস কাপের ফাইনালের পৌছায়। তবে তারা ফাইনালে ১-০ গোলে চেলসির কাছে পরাজিত হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Peter Martin (২০০৪)। Sport-Club Freiburg, সম্পাদক। Hundert Jahre 90 Minuten: Die Geschichte des SC Freiburg von 1904–2004। Freiburg। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]