জেমস ক্রান্সটন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জেমস ক্রান্সটন
James Cranston c1895.jpg
আনুমানিক ১৮৯৫ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে জেমস ক্রান্সটন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজেমস ক্রান্সটন
জন্ম(১৮৫৯-০১-০৯)৯ জানুয়ারি ১৮৫৯
বোর্ডস্লি, ওয়েস্ট মিডল্যান্ডস, বার্মিংহাম, ইংল্যান্ড
মৃত্যু১০ ডিসেম্বর ১৯০৪(1904-12-10) (বয়স ৪৫)
ব্রিস্টল, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনবামহাতি
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৬৯)
১১ আগস্ট ১৮৯০ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১১৮
রানের সংখ্যা ৩১ ৩৪৫০
ব্যাটিং গড় ১৫.৫০ ১৯.৭১
১০০/৫০ ০/০ ৫/১৪
সর্বোচ্চ রান ১৬ ১৫২
বল করেছে ২৪
উইকেট
বোলিং গড় - -
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং - -
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/০ ৪৯/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২ মার্চ ২০২০

জেমস ক্রান্সটন (ইংরেজি: James Cranston; জন্ম: ৯ জানুয়ারি, ১৮৫৯ - মৃত্যু: ১০ ডিসেম্বর, ১৯০৪) ওয়েস্ট মিডল্যান্ডসের বোর্ডস্লি এলাকায় জন্মগ্রহণকারী শৌখিন ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৯০ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ইংল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে গ্লুচেস্টারশায়ার দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, বামহাতে বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন তিনি।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৮৭৬ সাল থেকে ১৮৯৯ সাল পর্যন্ত জেমস ক্রান্সটনের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ১৭ বছর বয়সে গ্লুচেস্টারশায়ারের পক্ষে প্রথম খেলতে নামেন। দূর্দান্ত ফিল্ডিং ও খাঁটিমানের বামহাতি ব্যাটিং করে সকলের নজর কাড়েন। সোজাভাবে ব্যাট চালাতেন, দর্শনীয় রক্ষণভাগ নিয়ন্ত্রণ করে বেশ জোড়ালোভাবে ড্রাইভ মারতেন।

শৌখিন ক্রিকেটার জেমস ক্রান্সটন সমারসেটের টানটন কলেজে পড়াশুনো সম্পন্ন করেছেন। ১৮৭৬ থেকে ১৮৯৯ সময়কালে গ্লুচেস্টারশায়ারের পক্ষে ১০৩টি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলায় অংশ নিয়েছিলেন। বামহাতে মাঝারিসারিতে ব্যাটিংয়ে নামতেন তিনি।[১][২] এছাড়াও, ১৮৮৬ ও ১৮৮৭ সালে ওয়ারউইকশায়ারের পক্ষে খেলেছেন। ঐ সময়ে অবশ্য ওয়ারউইকশায়ারের প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট ক্লাব হিসেবে মর্যাদাপ্রাপ্ত ছিল না। ১৮৮৯ সালে পুনরায় গ্লুচেস্টারশায়ারে প্রত্যাবর্তন করেন। ক্রমাগত ওজন বৃদ্ধির ফলে ফিল্ডিংয়ের মান ক্রমশঃ নিচেরদিকে চলে যেতে থাকে। তবে, তার ব্যাটিংয়ের মান বেশ ভালোমানের ছিল। একপর্যায়ে ইংল্যান্ডের অন্যতম সেরা বামহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে বিবেচিত ছিল। ১৮৯০ সালে ডব্লিউ জি গ্রেসের সাথে রান সংগ্রহের গড় ও রান সংগ্রহের দিক দিয়ে খুব কমই ব্যবধান ছিল। এ পর্যায়ে খেলোয়াড়ী জীবনের ব্যক্তিগত সেরা ১৫২ রান তুলেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন জেমস ক্রান্সটন। ১১ আগস্ট, ১৮৯০ তারিখে ওভালে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

১৮৯০ সালে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে একটি টেস্টে অংশগ্রহণ করেছিলেন। ওভালে সিরিজের চূড়ান্ত টেস্টে শেষমুহূর্তে তাকে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। উভয় ইনিংসেই অনবদ্য ভূমিকায় রেখেছিলেন তিনি। ১৬ রান করে দলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী হন। শেষ ইনিংসে ইংল্যান্ডের জয়ের জন্যে প্রয়োজন হয়েছিল মাত্র ৯৫ রান। দলীয় সংগ্রহে ৩৪/৪ থাকা অবস্থায় ব্যাট হাতে মাঠে নামেন। ওয়াল্টার রিডের সাথে জুটি গড়েন। মাত্র ১২ রান দূরে থাকাবস্থায় তিনি আউট হন। এ রান সংগ্রহ করতে আরও চার উইকেট খোঁয়ায় ইংল্যান্ড দল।

১৮৯০ সালের ওভালের ঐ টেস্টটি নিম্নমুখী রানের খেলা হিসেবে পরিগণিত হয়েছিল। তার ইনিংসটি ইংল্যান্ডের দুই উইকেটের ব্যবধানের জয়ে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এরফলে স্বাগতিক দল অ্যাশেজ সিরিজ জয় করেছিল। উইজডেনে তার ইনিংসটি সম্পর্কে মন্তব্য করা হয় যে, চার্লস টার্নারজন ফেরিসের বোলিংয়ের বিপক্ষে তার রক্ষণাত্মক ক্রীড়াশৈলী বেশ দৃষ্টিনন্দন ছিল।[৩] এরপর ক্রান্সটন আর কোন টেস্ট খেলার সুযোগ পাননি। এক বছর বাদে খেলাকালীন আঘাত পেলে তার খেলোয়াড়ী জীবন শেষ হয়ে যায়।

অবসর[সম্পাদনা]

আট বছর পর অবশ্য সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে খেলার মাঠে ফিরে এসেছিলেন ও আরও চারটি খেলায় অংশ নিয়েছিলেন তিনি। তবে, ১৮৮৯ ও ১৮৯০ সালের ন্যায় কখনো নিজেকে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে পারেননি।

১০ ডিসেম্বর, ১৯০৪ তারিখে মাত্র ৪৫ বছর বয়সে ব্রিস্টল এলাকায় জেমস ক্রান্সটনের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "James Cranston"অর্থের বিনিময়ে সদস্যতা প্রয়োজন। cricketarchive.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ অক্টোবর ২০১৭ 
  2. "James Cranston"। espncricinfo.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ অক্টোবর ২০১৭ 
  3. "Obituary in 1904"। espncricinfo.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ অক্টোবর ২০১৭ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]