জিন ইগেলস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জিন ইগেলস
Jeanne Eagels
Jeanne Eagels in Daddies..jpg
ড্যাডিস-এ ইগেলস
জন্ম
ইউজেনিয়া ইগলস

(১৮৯০-০৬-২৬)২৬ জুন ১৮৯০
মৃত্যুঅক্টোবর ৩, ১৯২৯(1929-10-03) (বয়স ৩৯)
নিউ ইয়র্ক সিটি, নিউ ইয়র্ক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
মৃত্যুর কারণঔষধের অতিমাত্রা
সমাধিক্যালভেরি সেমেটারি
জাতীয়তামার্কিন
পেশাঅভিনেত্রী
কর্মজীবন১৯১৩-১৯২৯
দাম্পত্য সঙ্গীমরিস দ্যুবিন্‌স্কি
এডওয়ার্ড হ্যারিস "টেড" কয় (বি. ১৯২৫; বিচ্ছেদ. ১৯২৮)

জিন ইগেলস (জন্ম ইউজেনিয়া ইগলস; ২৬ জুন ১৮৯০ - ৩ অক্টোবর ১৯২৯) ছিলেন একজন মার্কিন মঞ্চ ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী।[১] ইগেলস ব্রডওয়ে মঞ্চে ও সবাক চলচ্চিত্রের উত্থানকালে এই মাধ্যমে কাজের জন্য পরিচিতি অর্জন করেন। তিনি ১৯২৯ সালে মাত্র ৩৯ বছর বয়সে আকস্মিকভাবে মৃত্যুবরণ করেন এবং সেই বছরে তার অভিনীত দ্য লেটার চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য মরণোত্তর শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। এটিই অভিনয় শাখায় কোন অভিনেতা বা অভিনেত্রীর জন্য প্রথম মরণোত্তর অস্কারের মনোনয়ন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ইউজেনিয়া ইগলসের[২] জন্মতারিখ নিয়ে একাধিক উৎসে বিভ্রান্তি দেখা যায়, তন্মধ্যে রয়েছে ১৮৮৮,[৩] ১৮৯০ (দাপ্তরিক জীবনীতে উল্লেখিত বছর), ১৮৯১,[৩] ১৮৯২,[৪] ১৮৯৩ (মৃত্যু সনদ),[৫] বা ১৮৯৪।[৬] তার পিতা এডওয়ার্ড জার্মান ও ফরাসি হ্যুগোনট বংশোদ্ভূত এবং মাতা জুলিয়া ইগলস (বিবাহপূর্ব সুলিভান) আইরিশ বংশোদ্ভূত।[৭] জিন তার পিতামাতার ছয় সন্তানের মধ্যে দ্বিতীয়। জিন পরবর্তী কালে তার নামের শেষাংশের বানান পরিবর্তন করে "ইগেলস" রাখেন। তিনি দাবী করেন তার পিতা একজন স্পেনীয় স্থপতি ছিলেন এবং তিনি বস্টনে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে তিনি মিজুরির কানসাস সিটিতে জন্মগ্রহণ করেন এবং তার পিতা একজন ছুতার ছিলেন।[৮]

ইগেলস সেন্ট জোসেফ্‌স ক্যাথলিক স্কুলে এবং মরিস পাবলিক স্কুলে পড়াশোনা করেন। তিনি একটি বিভাগীয় বিপণিতে হিসাবরক্ষক পদে কাজ পাওয়ার পর বিদ্যালয়ে পড়াশোনা ত্যাগ করেন।[৭]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তিনি ১৯২৭ সালে মেট্রো-গোল্ডউইন-মেয়ারের ম্যান, ওম্যান অ্যান্ড সিন চলচ্চিত্রের জন গিলবার্টের বিপরীতে অভিনয় করেন। ১৯২৮ সালে উইসকনসিনের মিলওয়াউকিতে একটি মঞ্চনাটকে অভিনয় করতে না পারলে তাকে অ্যাক্টরস ইকুইটি ১৮ মাস মঞ্চে অভিনয় থেকে নিষিদ্ধ করে। তবে তিনি চলচ্চিত্রে অভিনয় চালিয়ে যান এবং প্যারামাউন্ট পিকচার্সের দুটি সবাক চলচ্চিত্রে কাজ করেন। সেই দুটি চলচ্চিত্র হল দ্য লেটারজেলাসি, দুটি চলচ্চিত্রই ১৯২৯ সালে মুক্তি পায়। দ্য লেটার চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি মরণোত্তর শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। এটিই অভিনয় শাখায় কোন অভিনেতা বা অভিনেত্রীর জন্য প্রথম মরণোত্তর অস্কারের মনোনয়ন।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. অবিচুয়ারি ভ্যারাইটি, ১৬ অক্টোবর ১৯২৯, পৃষ্ঠা ৬৭।
  2. Although many biographies state that her birth name was Amelia Jeanne Eagles, her actual birth name was "Eugenia Eagles" according to both the 1900 and 1910 United States Federal Censuses for Kansas City, Missouri
  3. "Details about Eugenia eagles"Ancestry.com। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুলাই ২০২০ 
  4. "Passenger list"Ancestry.com। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুলাই ২০২০ 
  5. "Death certificate"Ancestry.com। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুলাই ২০২০ 
  6. "Passenger lists, passport paper"Ancestry.com। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুলাই ২০২০s 
  7. জেমস, এডওয়ার্ড টি.; উইলসন জেমস, জ্যানেট; বয়ার, পল এস., সম্পাদকগণ (১৯৭১)। Notable American Women, 1607–1950: A Biographical Dictionary, Volume 1। হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি প্রেস। পৃষ্ঠা ৫৩৭। আইএসবিএন 0-674-62734-2 
  8. গোল্ডেন, ইভ (২০০০)। Golden Images: 41 Essays on Silent Film Stars। ম্যাকফারল্যান্ড। পৃষ্ঠা ২৭। আইএসবিএন 0-786-48354-7 
  9. ওকনর, ক্লিন্ট (১৩ জুলাই ২০০৮)। "James Dean, Spencer Tracy among posthumous Oscar nods"। দ্য প্লেইন ডিলার। ২০১২-১০-১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুলাই ২০২০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]