জলবায়ু পরিবর্তন ও শিশু

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

শিশুদের ওপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ প্রভাব রয়েছে। মানুষের ওপর জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাবের প্রতি শিশুরা প্রাপ্তবয়স্কদের তুলনায় দুর্বল। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমান করে যে সারাবিশ্বে বিদ্যমান রোগের বোঝার ৮৮% পাঁচ বছরের নিচের শিশুদের ওপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবের সাথে সম্পর্কিত।[১] দি ল্যানসেটে স্বাস্থ্য এবং জলবায়ু পরিবর্তনের ওপর পর্যালোচনায় শিশুদের জলবায়ু পরিবর্তন দ্বারা সবচেয়ে খারাপভাবে প্রভাবিত হিসেবে বলা হয়েছে। [২]

জলবায়ু সংকট।

শিশুরা সবদিক দিয়ে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রতি সংবেদনশীল ।[৩] জলবায়ু পরিবর্তন শিশুর শারীরিক স্বাস্থ্য এবং কল্যাণকে প্রভাবিত করে। করে। জলবায়ু পরিবর্তন কিভাবে শিশুদের প্রভাবিত করে তা দেশের ভেতরে এবং বিভিন্ন দেশের মধ্যে বিদ্যমান বৈষম্য নির্ধারণ করে। [৪] জলবায়ু পরিবর্তনে বৈশ্বিক প্রতিক্রিয়ায় শিশুদের কোনো বক্তব্য বা মনোযোগ নেই।[৩]

স্বল্প আয়ের দেশে বসবাসকারীরা উচ্চমাত্রায় রোগের বোঝায় ভোগে এবং তারা জলবায়ু পরিবর্তনের হুমকি মোকাবেলা করতে কম সক্ষম।[৫]

শিশুদের ওপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব[সম্পাদনা]

হর্ন অফ আফ্রিকা থেকে জলবায়ু সম্পর্কিত খরার ফলে অভিবাসী পরিদর্শনের ছবি

শিশুরা জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাড়িঘর ধ্বংস হওয়া, খাদ্য নিরাপত্তার প্রতি হুমকি এবং পারিবারিক জীবীকা হারানোর মাধ্যমে আক্রান্ত হয়। এই প্রভাব সম্ভবত সামাজিক এবং অর্থনৈতিক বৈষম্য, সশস্ত্র সংঘাত এবং স্বাস্থ্য মহামারীর কারণে আরো বৃদ্ধি পেয়ে থাকে। [৬] জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মূলত দুটি মাত্রায় পড়ে: প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ, তাৎক্ষণিক বা স্থগিত। শিশুদের শারীরিক স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাবগুলোর মধ্যে আছে:প্রাণহানি এবং আঘাত, তাপজনিত রোগ, পরিবেশের ক্ষতিকারক উপাদানের সংস্পর্শে আসা; সংক্রামক ও উষ্ণ তাপমাত্রায় অন্যান্য বিদ্যমান রোগ।[৭]

মানসিক স্বাস্থ্য এবং শিক্ষণীয় বিষয় যেমন আঘাত পরবর্তী চাপজনিত ব্যাধি (পিটিএসডি), বিষন্নতা এবং দুশ্চিন্তা, ঘুম সংক্রান্ত ব্যাধি, জ্ঞানীয় ঘাটতি, শিক্ষাগ্রহণে সমস্যাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। [৮] পাচ্ছে। ২০১০ সালে পাকিস্তানের খাদ্যত্তরনকালীন সময়ের সম্পর্কে একটি দৃষ্টান্ত দেয়ে হলো, ১০-১৯ বছর বয়সীদের ৭৩% উচ্চমাত্রায় পিটিএসডি প্রদর্শন করে, যেখানে বাস্তুচ্যুত মেয়েরা মারাত্মকভাবে প্রভাবিত হয়েছিল। [৯]

এছাড়া অন্যান্য যেসব মারাত্মক ব্যাপার ধরা পরেছিল সেগুলো হলো যন্ত্রণা, শোক এবং রাগ; পরিচয় হারানো; অসহায়ত্ব এবং হতাশার অনূভুতি; আত্মহত্যার হার বৃদ্ধি; এবং চড়তি আগ্রাসন ও হিংস্রতা। [১০]

শিশুদের কল্যাণকে হুমকির মুখে ফেলে এমন মনোবিদ্যাগত এবং মানসিক প্রভাবও আছে যা শারীরিক প্রভাবের সাথে যুক্ত হয়। [১১]

স্বাস্থ্য এবং কল্যাণ[সম্পাদনা]

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঘটে যাওয়া মারাত্মক ঘাটনাগুলো বাড়িঘর, বিদ্যালয়, শিশু যত্ন কেন্দ্র ও অন্যান্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো ধ্বংস করতে পারে। [১২] টাইফুন হাইয়ান ফিলিপাইনসর লেয়টসামার দ্বীপের শহর এবং নগরগুলোকে সমতল করে ফেলেছিল। টাইফুন হাইয়ানের বেচেঁ থাকা শিশুদের অনেকেই তাদের ঘরবাড়ি ও সম্পত্তি হারায়।[১৩] ২০২০ সালে , টাইফুন মোলেইভের কারণে বন্যা ও ভূমিধ্বস হয়, যা ভিয়েতনামের আনুমানিক ২.৫ মিলিয়ন শিশুদের ঝুঁকির মুখে ফেলে। এটি ভিয়েতনামে এবং ফিলিপাইনসে ৯ মিলিয়ন মানুষকে হত্যা করে এবং ১ মিলিয়নের বেশি মানুষকে বাস্তুচ্যুত করে।[১৪]

জলবায়ুর ঘটনাগুলো জীবন এবং জীবীকাকে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। [৬] করেছে। ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস ও অন্যান্য বিপর্যয় কৃষক, জেলে, অনানুষ্ঠানিক খাতের কর্মী ও ছোট ব্যবসার মালিকের সম্পত্তি ও পুঁজি হারানো এবং পারিবারিক আয় কমতে থাকার কারণ। [১৫] যেসব পারিবারে শিশুর সংখ্যা বেশি সেসব পরিবার স্বাস্থ্যের প্রতি বিপর্যয়মূলক ব্যয়ের আশংকায় আছে।[১৫] টাইফুন পারমা ফিলিপাইনে আঘাত হানার পর পারিবারিক জীবীকা হারানোর ফলে স্কুল থেকে বাদ পরা ছাত্র-ছাত্রীদের সংখ্যা বেড়ে গিয়েছিল। যারা পড়াশোনা চালিয়ে গিয়েছিল তাদের মধ্যে অনেকেরই খাবার কিনার টাকা ছাড়া ক্লাসে যেতে হতো।[১৫] গ্রামীণ অঞ্চলে মাঠ, বাগান, মাছের পুকুর, ফসল, মাছ ধারার নৌকা এবং কৃষিকাজের সরঞ্জাম ধ্বংস হওয়ার সাথে গৃহপালিত পশুপাখি হারিয়ে গিয়েছিল, , যা সম্পূর্ণ জনসমাজের খাদ্য নিরাপত্তাকে আশংকায় ফেলে দিয়েছিল। [১৫]

পরিবেশের ওপর প্রভাব[সম্পাদনা]

পরিবেশ,বন এবং জলবায়ু পরিবর্তন প্রতিমন্ত্রী

ক্ষরা ও বন্যার মতো প্রাকৃতিক দূর্যোগের কারণে প্রাকৃতিক সম্পদের ঘাটতির প্রতি শিশুরা সংবেদনশীল। উল্লেখযোগ্য যে আনুমানিক ১৬০ মিলিয়ন শিশু অত্যন্ত খরা অঞ্চলের মধ্যে এবং ৫০০ মিলিয়নের বেশি শিশু এমন জায়গায় বাস করে যেখানে বন্যার ঘটনা অনেক বেশি ঘটে থাকে। [১৬] প্রাকৃতিক ঘটনার কথা আসলে , প্রাকৃতিক দূর্যোগ পরিবার ও শিশুদের বাস্তুচ্যুত করে। চরম আবহাওয়ার ঘটনাগুলোর সাথে শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের নিরাপত্তাহীনতার হার বারতে থাকায় এই স্থানচ্যুতি ঘটে।[১৭][১৮]

শিশুরা বৈশ্বিক স্তরে জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য রোগের বোঝার আনুমানিক ৮৮% সহ্য করে। প্রতিটি শিশু তার যত্নকারী এবং তার সমাজের মধ্যে নির্ভরশীল। প্রকৃত হুমকি হলো ইতিমধ্যে পরিবেশগত চ্যালেঞ্জে ভুগছে এমন সুবিধাবঞ্চিত এলাকাগুলো মধ্যে। এর কারণে শিশুদের মধ্যে বিভিন্ন রোগ, অক্ষমতা এবং উচ্চ মৃত্যু হার দেখা যাবে। [১৯] ২০১৩ সালে জলবায়ু পরিবর্তন সম্পর্কিত আন্তঃসরকার প্যানেল মূল্যায়ন করে যে বর্তমান নিঃসরণ বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে বৈশ্বিক তাপমাত্রা ৪.৮ °C পর্যন্ত বাড়বে। [২০] এখানে এটি উল্লেখ করা গুরুত্বপূর্ণ যে, একটানা বায়ু দূষকের সংস্পর্শ জন্মের সময় ওজন, গর্ভকালীন অবস্থায় ছোটো আকার (এসজিএ), এবং নির্ধারিত সময়ের আগে জন্ম হওয়ার ঘটনাগুলোতে প্রভাব ফেলে। [২১] যখন শিশুরা আরও বায়ু দূষণের (O3, বস্তুকণা, SO2, এবং/বা NO2)সংস্পর্শে আসে, তাদের হাঁপানিতে ভোগার প্রবনতা বেড়ে যায়,[২২] যার কারণে হাঁপানিতে আক্রান্ত শিশুদের শ্বাসনালীতে অক্সিডেটিভ চাপ ও শ্বাসনালী প্রদাহ বৃদ্ধি পায়। [২৩] পায়। বায়ুদূষণ একটি শিশুর স্নায়ুর বিকাশকে আক্রান্ত করে। এজন্য আমরা যদি একদল বাচ্চাদের তুলনা করি যারা তাদের এলাকার কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধ হয়ে যাওয়ার আগে জন্মগ্রহণ করে, তাহলে যেসব বাচ্চা তার এলাকায় একটি কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর জন্মগ্রহণ করে, তাদের উল্লেখযোগ্যভাবে নাড়ীর রক্তে কম পরিমাণে পাওয়া যায় পিএএইচ-ডিএনএ এডাক্ট, এবং বেশি পরিমাণে পাওয়া যায় মস্তিষ্ক থেকে প্রাপ্ত নিউরোট্রপিক ফ্যাক্টর(বিডিএনএফ), a protein needed in early brain development. This is where the risk lies.[২৪]

জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য শিশুদের কর্মকাণ্ড[সম্পাদনা]

জলবায়ুর জন্য স্কুল ধর্মঘট[সম্পাদনা]

Excerpt error: Page 'জলবায়ুর জন্য স্কুল ধর্মঘট' not foundArticles with broken excerpts

আইনানুগ ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

জুলিয়ানা বনাম যুক্তরাষ্ট্র মামলাটি ২০২০ সালে বাদীর মামলা করার মতো অবস্থানের অভাব ছিল , এ কারণে আদালতে বরখাস্ত করা হয়েছিল, কিন্তু আরো স্বল্প পরিসরে আরেকটি মামলা চালু করা হয়েছে।[২৫] শিশু এবং অল্প বয়স্কদের আনা “ ডুয়ার্টে অ্যাগোস্টিনহো এবং অন্যান্য বনাম পর্তুগাল এবং অন্যদের" মামলার ক্ষেত্রে ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালত ২০২১ সালের মে মাসের মধ্যে ৩৩ টি রাষ্ট্রকে তারা কীভাবে জলবায়ু পরিবর্তনকে সীমিত করার চেষ্টা করছে সে তথ্য সহ জবাব দিতে বলেছে। [২৬]

জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে শিশুদের জড়ানো[সম্পাদনা]

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রতিবন্ধকতা মোকাবেলা করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, বিশেষ করে যখন প্রতিবন্ধকতাটি হলো শিশুদের ওপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব। এজন্য, শিক্ষা ও শিল্পভিত্তিক পদ্ধতি এবং এর সাথে অভিভাবকদের যুক্ত করার মাধ্যমে এই সমস্যার প্রতি লক্ষ্য রাখা জরুরী। [২১]

জলবায়ু পরিবর্তনকে পাঠ্যসূচির মধ্যে সমন্বয় করা দরকার। [২৭] যখন শিশুরা একবার তাদের চারপাশে পরিবেশগত সমস্যাগুলোর অস্তিত্ব ও জরুরী দাবি সম্পর্কে জানতে পারে, তারা আরও সচেতন হয় এবং বিশ্বের পরিবেশের অবস্থান উন্নত করার প্রতি নিযুক্ত হয়। [২৮]

একটি আর্ট ক্লাসের পর আনন্দ অনুভব/প্রদর্শন করতে শিশুদের আবির্ভাব

শিল্প বিভিন্ন ক্ষেত্রে শিশুর উন্নতিতে সাহায্য করে। শিশুকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অর্থবহ আত্মপ্রকাশে উৎসাহ দিয়ে, এখানে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষেত্রে, তাদেরকে তাদের সমাজ এবং সারা বিশ্বের প্রতি একটি টেকসই সমাধান বের করার মাধ্যম দেওয়া হয়।[২৯] এটি উল্লেখযোগ্য যে, যখন বাচ্চাদের সাথে বাবা-মার একটি শক্তিশালী সম্পর্ক সৃষ্টি হয়, জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়গুলোতে বাবা-মার ধারণা তাদের বাচ্চাদের চেষ্টার মাধ্যমে প্রভাবিত হতে পারে। শিশুরা যত জলবায়ু পরিবর্তনের সমস্যা সম্পর্কে তাদের সাথে যোগাযোগ করবে, ততই দুইক্ষেত্রে সচেতনতা সৃষ্টি হবে। তাই, বন্ধুত্বপূর্ণ যোগাযোগের এই মনোভাবকে উৎসাহিত করলে অভিভাবকদের ধারণা ও পরবর্তীতে তাদের কাজের ওপর ইতিবাচক প্রভাব পড়ে। [৩০]

জলবায়ু পরিবর্তনের সমস্যাগুলো সম্পর্কে শিশুদের জানানো[সম্পাদনা]

এটা জেনে রাখা দরকার যে একটি শিশু যে কোনো ক্ষেত্রেই সংবেদনশীল, জলবায়ু পরিবর্তন শিশুদের জন্য অন্যতম উদ্বেগের বিষয় এবং এটিকে বিবেচনার সাথে সম্বোধন করা প্রয়োজন। শিশুর সুস্বাস্থ্যের ওপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব কমানোর জন্য তাদেরকে মনে করানো যে এ প্রতিকূলতার মুখোমুখি তারা একা না, তাদের দুশ্চিন্তা ও উদ্বেগকে ভাগ করে নেয়া এবং নেতিবাচক আবহকে ইতিবাচক আবহতে রূপান্তরিত করার পরামর্শ দেয়া হয়।[৩১]

বৈশ্বিক পদক্ষেপ[সম্পাদনা]

শিশুদের উপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব ও প্রতিকূলতা মোকাবেলায় বেশ কয়েকটি বৈশ্বিক উদ্যোগ ও প্রকল্প চালু করা হয়েছিল।

জলবায়ু পরিবর্তন পদক্ষেপের দিকে বৈশ্বিক প্রচেষ্টা
শিরোনাম সংস্থা(গুলো) রকম বছর
স্বাস্থ্যকর পরিবেশের প্রতি শিশুদের

অধিকারের অগ্রগতির জন্য বৈশ্বিক উদ্যোগ

জাতিসংঘ উদ্যোগ ২০১৯-২০২১
এনসিসিএপির লক্ষ্য কেনীয়ার জাতীয় জলবায়ু পরিবর্তন কর্ম পরিকল্পনা কর্ম পরিকল্পনা ২০১৮-২০২২
ছোট অনুদান প্রকল্প (এসজিপি) ইউএনডিপি, বৈশ্বিক পরিবেশগত সুবিধা অনুদান এবং পরিকল্পনা ২০১৫
জলবায়ু সংবেদনশীল মানবিক সহায়তা ইউনিসেফ উদ্যোগ ২০১৫
শিশু, তরুণদের এবং জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য জাতিসংঘের যৌথ কাঠামো উদ্যোগ জাতিসংঘ কাঠামো উদ্যোগ ২০১৩
নাসার জলবায়ু শিশু নাসা ওয়েবসাইট ২০১০
পরিবর্তনশীল পরিবেশে শিশুদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রতিবেদন ২০১০
জলবায়ু পরিবর্তন : এখনি পদক্ষেপ নাও ইউনিসেফ, বিশ্ব ওয়াইডাব্লিউসিএ, সারাবিশ্বের মেয়েরা বলো, এফএও,

আন্তর্জাতিক রেড ক্রস ও রেড ক্রিসেন্ট সমাজ সংঘ,

স্কাউট আন্দোলনের বিশ্ব সংস্থা,দি ডিউক অফ এডিনবার্গস

পুরষ্কার

উদ্যোগ ২০০৩

জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য সক্রিয় তরুণসমাজ এবং শিশু[সম্পাদনা]

সীয়ে বাসতিদা- জলবায়ু কর্মী

শিশুদের ওপর বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব কমানোর জন্য তরুণদের সক্রিয়তাকে সমর্থন এবং পরামর্শ দেওয়া দরকার। [৩২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Anderko, Laura; Chalupka, Stephanie; Du, Maritha; Hauptman, Marissa (জানুয়ারি ২০২০)। "Climate changes reproductive and children's health: a review of risks, exposures, and impacts"Pediatric Research (ইংরেজি ভাষায়)। 87 (2): 414–419। আইএসএসএন 1530-0447ডিওআই:10.1038/s41390-019-0654-7অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  2. Watts, Nick; Amann, Markus; Arnell, Nigel; Ayeb-Karlsson, Sonja; Belesova, Kristine; Boykoff, Maxwell; Byass, Peter; Cai, Wenjia; Campbell-Lendrum, Diarmid; Capstick, Stuart; Chambers, Jonathan (২০১৯-১১-১৬)। "The 2019 report of The Lancet Countdown on health and climate change: ensuring that the health of a child born today is not defined by a changing climate"Lancet (London, England)394 (10211): 1836–1878। আইএসএসএন 1474-547Xডিওআই:10.1016/S0140-6736(19)32596-6পিএমআইডি 31733928 
  3. Currie, Janet; Deschênes, Olivier (২০১৬)। "Children and Climate Change: Introducing the Issue"The Future of Children26 (1): 3–9। আইএসএসএন 1054-8289 
  4. "Climate change and child health: a scoping review and an expanded conceptual framework"The Lancet Planetary Health (ইংরেজি ভাষায়)। 5 (3): e164–e175। ২০২১-০৩-০১। আইএসএসএন 2542-5196ডিওআই:10.1016/S2542-5196(20)30274-6অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  5. "Unless we act now: The impact of climate change on children"www.unicef.org (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৬ 
  6. "UNICEF Concerned About Situation Of Children Affected By Typhoons In The Philippines"UNICEF USA (ইংরেজি ভাষায়)। নভেম্বর ১২, ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৯ 
  7. Sheffield, Perry E.; Landrigan, Philip J. (মার্চ ২০১১)। "Global climate change and children's health: threats and strategies for prevention"Environmental Health Perspectives119 (3): 291–298। আইএসএসএন 1552-9924ডিওআই:10.1289/ehp.1002233পিএমআইডি 20947468পিএমসি 3059989অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  8. Garcia, Daniel Martinez; Sheehan, Mary C. (২০১৬)। "Extreme Weather-driven Disasters and Children's Health"International Journal of Health Services: Planning, Administration, Evaluation46 (1): 79–105। আইএসএসএন 0020-7314ডিওআই:10.1177/0020731415625254পিএমআইডি 26721564 
  9. Boston, 677 Huntington Avenue; Ma 02115 +1495‑1000 (২০১৪-০৭-০১)। "Climate Change, Children's Rights, and the Pursuit of Intergenerational Climate Justice"Health and Human Rights Journal (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৭ 
  10. "Mental health and our changing climate: Impacts, implications, and guidance | PreventionWeb.net"www.preventionweb.net। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৭ 
  11. "Europe PMC"europepmc.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৭ 
  12. "Effects of Climate Change on Future Generations"Save the Children (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৯ 
  13. "Top 6 issues children are facing after Typhoon Haiyan"World Vision (ইংরেজি ভাষায়)। নভেম্বর ১৪, ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৯ 
  14. "Typhoon Molave, nine dead and over a million displaced between the Philippines and Vietnam"Asia News। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৯ 
  15. Porio, Emma (২০১১)। "The Social Impacts of Tropical Storm Ondoy and Typhoon Pepeng: The recovery of communities in communities in Metro Manila and Luzon"Ateneo de Manila University। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ১৯, ২০২১ 
  16. "Unless we act now: The impact of climate change on children"www.unicef.org (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২২ 
  17. Garcia, Daniel Martinez; Sheehan, Mary C. (২০১৬-০১-০১)। "Extreme Weather-driven Disasters and Children's Health"International Journal of Health Services (ইংরেজি ভাষায়)। 46 (1): 79–105। আইএসএসএন 0020-7314ডিওআই:10.1177/0020731415625254 
  18. "- CREATING A CLIMATE RESILIENT AMERICA: OVERCOMING THE HEALTH RISKS OF THE CLIMATE CRISIS"www.govinfo.gov। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২২ 
  19. Zhang, Ying; Bi, Peng; Hiller, Janet E. (অক্টোবর ২০০৭)। "Climate change and disability-adjusted life years"Journal of Environmental Health70 (3): 32–36। আইএসএসএন 0022-0892পিএমআইডি 17941401 
  20. Collins, Matthew; Knutti, Reto; Arblaster, Julie; Dufresne, Jean-Louis; Fichefet, Thierry; Friedlingstein, Pierre; Gao, Xuejie; Gutowski, William J.; Johns, Tim; Krinner, Gerhard; Shongwe, Mxolisi (২০১৩)। "Long-term Climate Change: Projections, Commitments and Irreversibility"Climate Change 2013 - The Physical Science Basis: Contribution of Working Group I to the Fifth Assessment Report of the Intergovernmental Panel on Climate Change (English ভাষায়): 1029–1136। 
  21. Perera Frederica P. (২০১৭-০২-০১)। "Multiple Threats to Child Health from Fossil Fuel Combustion: Impacts of Air Pollution and Climate Change"Environmental Health Perspectives125 (2): 141–148। ডিওআই:10.1289/EHP299পিএমআইডি 27323709পিএমসি 5289912অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  22. Tzivian, Lilian (জুন ২০১১)। "Outdoor air pollution and asthma in children"The Journal of Asthma: Official Journal of the Association for the Care of Asthma48 (5): 470–481। আইএসএসএন 1532-4303ডিওআই:10.3109/02770903.2011.570407পিএমআইডি 21486196 
  23. Gasana, Janvier; Dillikar, Deepa; Mendy, Angelico; Forno, Erick; Ramos Vieira, Edgar (আগস্ট ২০১২)। "Motor vehicle air pollution and asthma in children: a meta-analysis"Environmental Research117: 36–45। আইএসএসএন 1096-0953ডিওআই:10.1016/j.envres.2012.05.001পিএমআইডি 22683007 
  24. Perera, Frederica; Li, Tin-yu; Zhou, Zhi-jun; Yuan, Tao; Chen, Yu-hui; Qu, Lirong; Rauh, Virginia A.; Zhang, Yiguan; Tang, Deliang (অক্টোবর ২০০৮)। "Benefits of Reducing Prenatal Exposure to Coal-Burning Pollutants to Children's Neurodevelopment in China"Environmental Health Perspectives116 (10): 1396–1400। আইএসএসএন 0091-6765ডিওআই:10.1289/ehp.11480পিএমআইডি 18941584পিএমসি 2569101অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  25. Budryk, Zack (২০২১-০৪-০৭)। "Biden administration asks court to toss kids' climate lawsuit"TheHill। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৮ 
  26. Daly, Aoife; Leviner, Pernilla; Stern, Rebecca Thorburn। "How children are taking European states to court over the climate crisis – and changing the law"The Conversation। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৮ 
  27. Trott, Carlie D (২০১৯-০৩-০১)। "Reshaping our world: Collaborating with children for community-based climate change action"Action Research (ইংরেজি ভাষায়)। 17 (1): 42–62। আইএসএসএন 1476-7503ডিওআই:10.1177/1476750319829209অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  28. Jensen, Bjarne Bruun; Schnack, Karsten (২০০৬-০৭-০১)। "The action competence approach in environmental education"Environmental Education Research12 (3-4): 471–486। আইএসএসএন 1350-4622ডিওআই:10.1080/13504620600943053 
  29. Haynes, Katharine; Tanner, Thomas M. (২০১৫-০৫-০৪)। "Empowering young people and strengthening resilience: youth-centred participatory video as a tool for climate change adaptation and disaster risk reduction"Children's Geographies13 (3): 357–371। আইএসএসএন 1473-3285ডিওআই:10.1080/14733285.2013.848599 
  30. Parth, Sandra; Schickl, Maximilian; Keller, Lars; Stoetter, Johann (২০২০)। "Quality Child–Parent Relationships and Their Impact on Intergenerational Learning and Multiplier Effects in Climate Change Education. Are We Bridging the Knowledge–Action Gap?"Sustainability (ইংরেজি ভাষায়)। 12 (17): 1–16। 
  31. "How to explain climate change and plastic pollution to children"BBC Live Lessons (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২১ 
  32. "We must not leave climate change for children to fix"Plan International (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২২