জন বারডিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(জন বার্ডিন থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জন বারডিন
Bardeen.jpg
জন্ম(১৯০৮-০৫-২৩)২৩ মে ১৯০৮
ম্যাডিসন, উইসকনসিন
মৃত্যু৩০ জানুয়ারি ১৯৯১(1991-01-30) (বয়স ৮২)
বোস্টন, ম্যাসাচুসেট্‌স
জাতীয়তাFlag of the United States.svg মার্কিন
কর্মক্ষেত্রপদার্থবিজ্ঞান
প্রতিষ্ঠানবেল গবেষণাগার
মিনেসোটা বিশ্ববিদ্যালয়
ইউনিভার্সিটি অফ ইলিনয় অ্যাট আর্বানা-শ্যাম্পেইন
প্রাক্তন ছাত্রইউনিভার্সিটি অব উইসকনসিন, ম্যাডিসন
প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়
পিএইচডি উপদেষ্টাইউজিন ওয়াইগনার নোবেল পুরস্কার.png
পিএইচডি ছাত্ররাজন শ্রিফার নোবেল পুরস্কার.png
নিক হোলোনিয়াক
পরিচিতির কারণট্রানজিস্টর
বিসিএস তত্ত্ব
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারনোবেল পুরস্কার.png পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার (১৯৫৬)
নোবেল পুরস্কার.png পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার (১৯৭২)
আইইইই মেডেল অফ অনার (১৯৭১)

জন বারডিন একজন মার্কিন পদার্থবিজ্ঞানী। ট্রানজিস্টর আবিষ্কারের জন্য তিনি উইলিয়াম ব্র্যাডফোর্ড শকলিওয়াল্টার হাউজার ব্র্যাটেইন এর সাথে ১৯৫৬ সালে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পান। পরবর্তীতে ১৯৭২ সালে তিনি অতিপরিবাহিতার তত্ত্ব আবিষ্কারের জন্য দ্বিতীয় বারের জন্য নোবেল পুরস্কার লাভ করেন লিয়ান নেইল কুপার এবং জন রবার্ট শ্রিফারের সাথে।

ট্রানজিস্টর উদ্ভাবনের ফলেই আধুনিক যুগে প্রযুক্তির বিপ্লব ঘটেছে। উদ্ভব ঘটেছে তথ্যপ্রযুক্তির যুগের। বর্তমানে কম্পিউটার থেকে শুরু করে ক্ষেপণাস্ত্র পর্যন্ত সর্বত্রই ট্রানজিস্টরের ব্যবহার দেখা যাচ্ছে। তার অতিপরিবাহিতা আবিষ্কারও আধুনিকতার প্রসারে অবদান রেখেছে। এই প্রযুক্তিটি চিকিৎসাবিজ্ঞানের ক্ষেত্রে সিএটি স্ক্যান এবং এমআরআই করার জন্য ব্যবহৃত হয়। ১৯৯০ সালে লাইফ সাময়িকী কর্তৃক লিপিবদ্ধ "শতাব্দীর সেরা ১০০ মার্কিন প্রভাবশালী ব্যক্তি" শীর্ষক তালিকায় বারডিন স্থান পেয়েছিলেন।[১]

জীবনী[সম্পাদনা]

জন বারডিন ১৯০৮ সালের ২৩ মে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিন অঙ্গরাজ্যের ম্যাডিসনে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ডঃ চার্লস আর বারডিন এবং "অ্যালথিয়া হারমার বারডিনের" পাঁচ সন্তানের মধ্যে দ্বিতীয় ছিলেন। তার বাবা চার্লস বারডিন শারীরস্থান বিজ্ঞানের শিক্ষক এবং ইউনিভার্সিটি অফ উইসকনসিন-ম্যাডিসনের চিকিৎসাবিজ্ঞান স্কুলের প্রথম ডিন ছিলেন। বিয়ের আগে অ্যালথিয়া ডিউই ল্যাবরেটরি স্কুলে শিক্ষকতা করতেন এবং একটি পুরো ডেকোরেশন ব্যবসা পরিচালনা করতেন। বিয়ের পর তিনি চারুকলার জগতে পরিচিত মুখ হয়ে উঠেন। ছোটবেলায়ই গণিতে বারডিনের মেধার পরিচয় পাওয়া গিয়েছিল। সপ্তম গ্রেডে পড়ার সময় বারডিনের শিক্ষক তাকে গণিতের উচ্চতর পড়াশোনার প্রতি উৎসাহিত করতেন। পরবর্তী বছরগুলোতে বারডিন তার এই শিক্ষককে গণিতের তার প্রথম উৎসাহ বলে উল্লেখ করেছেন।[২] তিনি ১৯২৮ সালে University of Wisconsin–Madison থেকে তড়িৎ প্রকৌশলে ব্যাচেলর অব সায়েন্স ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯২৯ সালে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তড়িৎ প্রকৌশলেই মাস্টার অব সায়েন্স ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৩৬ সালে প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গাণিতিক পদার্থবিজ্ঞানে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৩৮ সালে বারডিন মিনেসোটা বিশ্ববিদ্যালয়ে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে যোগদান করে। ১৯৪৩ সালে তাকে ম্যানহাটন প্রজেক্ট এ যোগ দেয়ার আমন্ত্রণ জানানো হয়, কিন্তু তিনি অস্বীকৃতি জানান। ১৯৪৫ সালে বারডিন বেল ল্যাব্‌স এ যোগ দেন। তিনি সেখানে উইলিয়াম ব্র্যাডফোর্ড শকলির নেতৃত্বাধীন সলিড স্টেট ফিজিক্সের একটি গবেষণা দলে যোগ দেন। ১৯৫১ সালে তিনি ইউনিভার্সিটি অফ ইলিনয় অ্যাট আর্বানা-শ্যাম্পেইন এ যোগ দেন। তিনি সেখানে তড়িৎ প্রকৌশল ও পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক ছিসেবে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত কর্মরত ছিলেন।

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

  • Stuart Ballentine Medal, Franklin Inst. (1952);
  • Buckley Prize, Am. Physical Soc. (1954);
  • John Scott Medal, Philadelphia (1955);
  • Nobel Prize (Physics) shared with W. H. Brattain and W. Shockley (1956);
  • Vincent Bendix Award, Amer. Soc. Eng. Educ. (1964);
  • National Medal of Science (1965);
  • Michelson-Morley Award, Case-Western Reserve (1968);
  • Medal of Honor, Inst. of Electrical and Electronics Eng. (1971);
  • Nobel Prize (Physics) shared with L. N. Cooper and J. R. Schrieffer (1972);
  • James Madison Medal, Princeton (1973);
  • National Inventors Hall of Fame (1974);
  • Franklin Medal, Franklin Inst. (1975);
  • Presidential Medal of Freedom (1977);
  • Washington Award, Western Soc. Eng. (1983);
  • Founders Awards, Nat. Acad. Eng. (1984);
  • Lomonosov Prize, USSR Acad. of Sci. (1988);
  • The Harold Pender Award, University of Pennsylvania (1988).[৩]

সম্মানসূচক ডিগ্রি[সম্পাদনা]

  • Union College (1955),
  • Wisconsin (1960),
  • Rose Polytechnic Inst. (1966),
  • Western Reserve (1966),
  • Univ of Glasgow (1967),
  • Princeton(1968),
  • Rensselaer Polytechnic Inst. (1969),
  • Notre Dame (1970),
  • Harvard (1973),
  • Minnesota (1973),
  • Illinois (1974),
  • Michigan (1974),
  • Pennsylvania (1976),
  • Delhi, India (1977),
  • Indian Inst. of Tech., Madras, India (1977),
  • Cambridge (U.K.) (1977),
  • Georgetown (1980),
  • St. Andrews (1980),
  • Clarkson (1981).[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "John Bardeen, Nobelist, Inventor of Transistor, Dies"Washington Post। ১৯৯১-০১-৩১। ২০১২-১১-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০৮-০৩ 
  2. [১]
  3. http://www.nobelprize.org/nobel_prizes/physics/laureates/1972/bardeen-cv.html

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]