জন নিউল্যান্ড (রসায়নবিদ)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জন নিউল্যান্ড
John Alexander Reina Newlands.jpg
জন নিউল্যান্ডের ছবি।
জন্ম(১৮৩৭-১১-২৬)২৬ নভেম্বর ১৮৩৭
ল্যামবেথ, লন্ডন, ইংল্যান্ড
মৃত্যু২১ জুলাই ১৮৯৮(1898-07-21) (বয়স ৬০)
লোয়ার ক্ল্যাপটন, মিডলসেক্স, ইংল্যান্ড
কর্মক্ষেত্রবিশ্লেষণী রসায়ন
প্রাক্তন ছাত্ররয়্যাল কলেজ অব কেমিস্ট্রি
পরিচিতির কারণপর্যায় সারণি, অষ্টক সূত্র
উল্লেখযোগ্য
পুরস্কার
ডেভি মেডেল (১৮৮৭)

জন আলেকজান্ডার রেইনা নিউল্যান্ডস্ ( ২৬ নভেম্বর ১৮৩৭ – ২৯ জুলাই ১৯৯৮) একজন ব্রিটিশ রসায়নবিদ যিনি পর্যায়সারণীর উপাদানগুলির সময়সীমার বিষয়ে কাজ করেছিলেন।

জীবনী[সম্পাদনা]

নিউল্যান্ড ইংল্যান্ডের লন্ডনে জন্মগ্রহণ করেন , তিনি একজন স্কটিশ প্রেসবিটারিয়ান মন্ত্রী এবং তার ইতালীয় স্ত্রীর পুত্র।[১] তিনি তার বাবার কাছে বাড়িতে পড়তেন, এবং পরে রয়্যাল কলেজ অব কেমিস্টিতে অধ্যয়ন করেন। তিনি সামাজিক সংস্কার আগ্রহী ছিলেন।

ওয়েস্ট স্কয়ার,ল্যামবেথ নিউল্যান্ডের জন্মস্থান

নিউল্যান্ড প্রথম ব্যক্তি যিনি মৌলসমহূকে তাদের আপেক্ষিক পারমাণবিক ভর হিসেবে সাজানো একটি পর্যায়ক্রমিক টেবিল তৈরি করেন ।

১৮৬৪ সালে জন নিউল্যান্ডস্ (John Newlands) তৎকালে জ্ঞাত সব মৌলকে ক্রমাগত উচ্চ পারমাণবিক ভর হিসেবে সাজিয়ে দেখেন যে, অষ্টম মৌলের গুণাবলি প্রথম মৌলের গুণাবলির সাথে মিলে যায়। একইভাবে দ্বিতীয় মৌলের সাথে নবম মৌলের, তৃতীয় মৌলের সাথে দশম মৌলের পুরোপুরি সাদৃশ্য লক্ষ করা যায়। এ নিয়মকে অষ্টক সূত্র বলা হয়।

Newland's table of the elements.

এখানে উল্লেখ্য যে,তখনও নিষ্ক্রিয় গ্যাসসমূহ আবিষ্কার হয়নি। এদের আবিষ্কারের পর এ সূত্র দেওয়া হলে দেখা যেত যে, প্রকৃতপক্ষে প্রথম মৌলের সাথে নবম মৌলের সাদৃশ্য আছে। যাহোক, এ সূত্র পর্যায় সূত্রের উন্নতির পথে যথেষ্ট অবদান রাখলেও সে সময় এটা সমাদৃত হয়নি। অবশ্য পরবর্তীকালে এর গুরুত্ব বোঝা যায় এবং সে কারণে ১৮৮৭ সালে রয়েল সোসাইটি তাঁকে এ কাজের জন্য ডেভি মেডেলে ভূষিত করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]