চ্যাটারবট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

চ্যাটারবট (Chatterbot) বা চ্যাটবট (Chatbot) এক ধরনের আলাপকারী এজেন্ট বা কম্পিউটার প্রোগ্রাম যেটিকে শ্রবণভিত্তিক কিংবা টেক্সটভিত্তিক পদ্ধতিতে এক বা একাধিক মানুষের সাথে বুদ্ধিমান আলাপ-আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা দিয়ে ডিজাইন করা হয়। বেশির ভাগ চ্যাটারবটের উত্তর শুনে মনে হয় যে তারা বুদ্ধিমান মানুষের মত ভেবেচিন্তে উত্তর দিচ্ছে, কিন্তু আসলে তারা সাধারণত ইনপুট থেকে এক বা একাধিক চাবিশব্দ (keyword) বেছে নেয় এবং সেগুলি স্থানীয় ডাটাবেজের সাথে মিলিয়ে নিয়ে উত্তর তৈরি করে।

কর্মপদ্ধতি[সম্পাদনা]

অর্থপূর্ণ আলাপচারিতা চালাতে হলে একটি আলাপ কীভাবে কাজ করে, সে সম্পর্কে ভাল ধারণা থাকতে হয়, কিন্তু বেশির ভাগ চ্যাটারবট এই পন্থায় কাজ করার চেষ্টা করে না। এর পরিবর্তে তারা মানুষের কথার বিশেষ বিশেষ শব্দ বা বাক্যাংশ সূত্র বা কিউ (cue) হিসেবে নেয় এবং সেই অনুসারে পূর্বেই প্রস্তত করা কিছু গৎবাঁধা উত্তর বা উত্তরের কাঠামো এমনভাবে উপস্থাপন করে যাতে কোন কিছু না বুঝেই আপাতদৃষ্টিতে অর্থপূর্ণ একটি আলাপ চালানো যায়।

উদাহরণস্বরূপ, যদি একজন মানুষ টাইপ করেন, "আমার ইদানীং খুব দুশ্চিন্তা হচ্ছে", চ্যাটারবটটি হয়ত এমনভাবে প্রোগ্রাম করা যে সে "আমার...হচ্ছে" জাতীয় ইনপুট দেখে "কেন তোমার...হচ্ছে?" জাতীয় উত্তর দেবে। ফলে এক্ষেত্রে সেটি হয়ত উত্তর দেবে "কেন তোমার ইদানীং খুব দুশ্চিন্তা হচ্ছে?" যেসব মানুষ চ্যাটারবটদের ব্যাপারে ওয়াকিবহাল নন, তারা হয়ত এরকম আলাপচারিতায় বেশ মজা পেয়ে যেতে পারেন। চ্যাটারবটের সমালোচকেরা এই ধরনের মজা পাওয়াকে নাম দিয়েছেন এলাইজা ক্রিয়া (ELIZA effect)।

কিছু চ্যাটারবট অন্য ধরনের নীতি কাজে লাগায়। যেমন জ্যাবারওয়্যাকি চ্যাটারবটটি মানুষ যেভাবে নতুন তথ্য ও ভাষা শেখে, সেই মডেলটি অনুসরণ করার চেষ্টা করে। নামের বটটি মানুষের দেয়া ইনপুটের উপর স্বাভাবিক ভাষা প্রক্রিয়াকরণের নানা পন্থা কাজে লাগিয়ে আরও ব্যবহারিক উত্তর দেয়ার চেষ্টা করে।

এছাড়াও SHRDLU-র মত কিছু প্রোগ্রাম আছে, যেগুলিকে ঠিক চ্যাটারবট বলা যায় না। এগুলির ভাষিক ক্ষমতা একটি অনুকৃত বিশ্বের জ্ঞানের (knowledge of a simulated world) সাথে সম্পর্কিত। এই ধরনের সম্পর্ক সাধারণ চ্যাটারবটদের চেয়ে আরও জটিল কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (যেমন - দেখার ক্ষমতা) প্রয়োগ করে।

প্রথম দিককার চ্যাটারবট[সম্পাদনা]

এলাইজা (ELIZA) ও প্যারি (PARRY) একেবারে শুরুর দিকের দুইটি চ্যাটারবট। সাম্প্রতিককালের বটগুলির মধ্যে আছে র‌্যাক্টার (Racter), ভার্বট (Verbot), অ্যালিস (Artificial Linguistic Internet Computer Entity বা A.L.I.C.E.), এবং এলা (ELLA)।

চ্যাটারবট নিয়ে গবেষণা যত বৃদ্ধি পেয়েছে, এদের ব্যবহারের উদ্দেশ্যের তেমনি সম্প্রসারণ ঘটেছে। এলাইজা ও প্যারি কেবল টাইপ করা আলাপ-আলোচনায় অংশ নেয়ার জন্য তৈরি করা হয়েছিল। পরবর্তীতে র‌্যাক্টার নামের চ্যাটারবটটিকে একটি পুরো গল্প লেখার কাজে ব্যবহার করা হয় (গল্পটির নাম The Policeman's Beard is Half Constructed)। এলা নামের চ্যাটারবটটি মানুষের সাথে ভাষার অনেক খেলা খেলতে পারে।

মাইকেল মল্ডিন, যিনি প্রথম ভার্বট জুলিয়ার স্রষ্টা, ১৯৯৪ সালে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উপর একটি সম্মেলনের (Twelfth National Conference on Artificial Intelligence) জন্য লেখা গবেষণাপত্রে "চ্যাটারবট" পরিভাষাটি প্রথম ব্যবহার করেন।

ক্ষতিকর চ্যাটারবট[সম্পাদনা]

ইন্টারনেট চ্যাটরুমগুলিতে প্রায়ই বিজ্ঞাপন প্রচারের উদ্দেশ্যে বা ব্যক্তিগত গোপনীয় তথ্য উদ্ঘাটন করতে ক্ষতিকর চ্যাটারবট ব্যবহার করা হয়। বিভিন্ন তাৎক্ষনিক বার্তা আদান-প্রদান ব্যবস্থাগুলিতে (যেমন - ইয়াহু মেসেঞ্জার, ডট নেট মেসেঞ্জার সার্ভিস, এওএল ইন্সট্যান্ট মেসেঞ্জার) প্রায়ই এগুলির দেখা মেলে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]