চেশ প্রমেনাডে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চেশ প্রমেনাডে
Millennium Park Chase Promenade.JPG
স্থাপিতজুলাই ২০০৪
অবস্থানমিলেনিয়াম পার্ক
শিকাগো, ইলিনয়েস
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
ধরনউন্মুক্ত গ্যালারি
নিকটতম গণপরিবহনে স্থানমিলেনিয়াম স্টেশন - মেট্রা
মনরো - রেড লাইন
রেনডল্ফ -ব্রাউন, পার্পল, গ্রীন, অরেঞ্জ, ও পিংক
মনরো - ব্লু লাইন
ওয়েবসাইটhttp://www.millenniumpark.org/parkevents/

চেশ প্রমেনাডে (পূর্বে ব্যাংক ওয়ান নামে পরিচিত ছিল)[১] হল খোলা হাওয়া, সারি করা গাছের পথচারীদের জন্য হাঁটার রাস্তা, যা ২০০৪ সালের ১৬ই জুলাই মাসে সবার জন্য খুলে দেয়া হয়। এটা মিলেনিয়াম পার্কের একটা অংশ,যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় প্রদেশের শিকাগো শহরের লুপ কমিউনিটিতে এর অবস্থান। চেশ প্রমেনাডে যতদূর সম্ভবত ব্যাংক ওয়ানের পক্ষ থেকে দেয়া উপহার।[২] এর জমির পরিমান ৮ একর (৩.২ হেক্টর) এবং এটা প্রদর্শনী, উৎসব, পারিবারিক অনুষ্ঠান,ভাড়া জন্য ব্যবহৃত হয়।[২][৩] 

চেশ প্রমেনাডে ২০০৫ সালে প্রকাশক শিকাগোঃ বৈমানিক পোর্ট্রেট ছবি প্রদর্শনী, ২০০৮ সালে পেইন্টিং বিলও জিরো প্রদর্শনী, ২০০৯ সালে বার্নহাম পাভিলিওন হোস্ট করে। বার্নহাম পাভিলিওন ছিল পুরো শহরের বার্নহাম প্লান শতবার্ষিক উদযাপন অনুষ্ঠান।

বিস্তারিত[সম্পাদনা]

পূের্ব মিশিগান লেক ও পশ্চিমে গ্রান্ট পার্কের মধ্যে অবস্থান হওয়ায়,১৯ শতকের মাঝ থেকেই এটি শিকাগোর সম্মুখ উঠান। উত্তর-পশ্চিম কোণে উত্তর মনরই স্ট্রিট,আর্ট ইনস্টিটিউট,পূর্বে মিশিগান এভিনিউ,দক্ষিণ অংশ রানডলফ স্ট্রিট,পশ্চিমে কলম্বাস ড্রাইভ। ১৯৯৭ সাল থেকে এটি ইলিনয়ের কেন্দ্রীও রেল জংশন ছিল, যখন এটা মিলেনিয়াম পার্ক হিসাবে উন্নয়ন হতো।[৪] আজ মিলেনিয়াম পার্ক শুধু নৌবাহিনীর জেটি হিসাবে ব্যবহৃত হয়, যা শিকাগোর দর্শনার্থীর আকর্ষণ।[৫]

প্রমেনাডের পার্কের তিন টি ভাগ যার বিস্তার উত্তরে রানডলফ স্ট্রিট থেকে দক্ষিণেমনরই স্ট্রিট পর্যন্ত, একটি হল উত্তর প্রমেনাডে, অন্য দুটি হল কেন্দ্রীও প্রমেনাডে ও দক্ষিণ প্রমেনাডে।[৩] সারা বছর বেসরকারি ভাড়ার জন্য থাকে এবং এর স্থায়ী বৃত্তাকার তাঁবু আছে।[৩]

পূর্বের প্রদর্শনী[সম্পাদনা]

রিভেইলিং শিকাগো প্রদর্শনী
২০০৫ সালে রিভেইলিং শিকাগো প্রদর্শনীর সময় পার্কের চিত্র

প্রমেনাডেকে শহরবাসী অনেক গুলো উৎসব ও প্রদর্শনীর কাজে ব্যবহার করেছে।

প্রকাশক শিকাগোঃ বৈমানিক পোর্ট্রেট ছবি প্রদর্শনী হয়েছিল কেন্দ্রীও প্রমেনাডে এবং দক্ষিণ বইং গেলারিতে।প্রদর্শনী ছিল ২০০৫ সালের জুনের ১০ তারিখ থেকে অক্টোবরের ১০ তারিখ পর্যন্ত। প্রদর্শনীতে শিকাগো শহরের ১০০ ছবি ও ২০০৩ সালের মার্চ মাস থেকে ২০০৪ সালের অগাস্ট মাস পর্যন্ত বিভিন্ন ঋতুর বিমান উড্ডয়নের ৫০ টি ছবি প্রদর্শিত হয়।[৬][৭] শিকাগোর ফটোগ্রাফের টেরি ইভান্স বলেছেন, শতকরা ৯০ ভাগ ছবি হেলিকোপটার থেকে তোলা, তার পছন্দের পদ্ধতি ছিল বেলুনে করে ছবি তোলা,কিন্তু শিকাগো ছিল বেলুনে করে ছবি তোলার জন্য প্রচণ্ড ঝড়ো।[৮]

ট্রিবিউন চিত্রসমালোচক অ্যালেন জি. আরত্নের লক্ষ্য করেন যে, মার্ক ডি শুভেরর স্থাপনা(২০০৭-০৮) হোস্ট করে ছোট বইং গ্যালারি যা তার মাঝারি সাইজের টুকরোতে সীমাবদ্ধ, তারপরও শক্তভাবে জড়ো হয়ে ছিল। তিনি মনে করেন চেশ প্রমেনাডে আরও ভাল ভাবে সাজানো যেত এবং টুকরো নির্বাচনে চিত্রকর কে আরও স্বাধীনতা দেওয়া যেত।[৯]

২০০৮ সালে মিউজিয়াম অব মর্ডান আইসে বিলো জিরো চিত্রকর্ম

১লা ফেব্রুয়ারী থেকে ২৯ শে ফেব্রুয়ারী ২০০৮ সালে মিলেনিয়াম পার্ক "মিউজিয়াম অব মডার্ন আইস" নামক শীতকালীন উদযাপন হোস্ট করে।[১০] এই অনুষ্ঠান টিতে শিল্পী গর্ডন হাল্লরানের স্বত্ব অধিকারী চিত্রকর্ম "বিলও জিরো" দেখানো হয়, যা কেন্দ্রীও প্রমেনাডে হয়েছিল।[১১][১২] প্রদর্শনীর মূল আকর্ষণ ছিল ৪ টি বরফ টুকরো উপর বিমূর্ত শিল্পকর্ম,যার মাপ ছিল ৯৫ বাই ১২ ফুট (২৯.০ বাই ৩.৭ মি)[১১]। হাল্লরান আইস পেইন্টিং ছাড়াও আর্ট করেন "মক্রকমিক ট্রিবিউন আইস রিঙ্ক"।[১৩]

২০০৯ সালে মিলেনিয়াম পার্কের পঞ্চম বার্ষিকী উদযাপন ও বার্নহাম প্লান শতবার্ষিক উদযাপনে ব্যক্তিগত অর্থায়নের জন্য দুটি অস্থায়ী প্যাভিলিয়ন বসানো হবে যার অবস্থান হবে চেশ প্রমেনাডের দক্ষিণপ্রান্তে। ৩১ শে অক্টোবর ২০০৯ থেকে 'যাহা হাদিদ' ও 'বেন ভান বেরকেল' প্যাভিলিয়ন দুটি তে তথ্য ও বার্নহাম প্লানের ফলে শিকাগোর বর্তমান ও ভবিষ্যৎ দেখানো হবে।[১৪]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. Smith, Sid (২০০৪-০৭-১৫)। "Sponsors put money where their names are"Chicago Tribune। NewsBank। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-১৩ 
  2. "Art & Architecture: Chase Promenade"। City of Chicago। ২০০৮-০৫-২৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-১১ 
  3. "Private Rentals: Photo Galleries: Chase Promenade"। City of Chicago। ২০০৮-০৫-২৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-১১ 
  4. Gilfoyle, Timothy J. (আগস্ট ৬, ২০০৬)। "Millennium Park"The New York TimesThe New York Times Company। সংগ্রহের তারিখ জুন ২৪, ২০০৮ 
  5. "Crain's List Largest Tourist Attractions (Sightseeing): Ranked by 2007 attendance"। Crain's Chicago BusinessCrain Communications Inc.। ২০০৮-০৬-২৩। পৃষ্ঠা 22। 
  6. "Boeing to Fund Open-air Gallery Spaces in Chicago's Millennium Park"Boeing। ২০০৫-০৩-১৬। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-১০ 
  7. "Revealing Chicago: An Aerial Portrait: By Terry Evans" (PDF)। City of Chicago। ২০০৬-০৯-২৯ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-১০ 
  8. Davenport, Misha (২০০৫-০৬-১০)। "Vantage Points // Aerial Photos Paint Glorious Portraits of Chicago Area"Chicago Sun-Times। Newsbank। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-১১ 
  9. Artner, Alan G. (২০০৭-০৪-২৬)। "Midsize di Suvero works still a big deal - Solo show for sculptor who shocked with scale"Chicago Tribune। Newsbank। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-১৩ 
  10. "Museum of Modern Ice Chicago"। Chicago Office of Tourism। ২০০৮-০৩-২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-০৫ 
  11. Howard, Hilary (২০০৮-০১-২০)। "Datebook"The New York TimesThe New York Times Company। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-০২ 
  12. "Paintings Below Zero"। paintingsbelowzero.com। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-১১ 
  13. Kogan, Rick; ও অন্যান্য (২০০৭-১১-১৮)। "12 cures for the common cold - Does The Thought of Snow and Ice Give You The Chills? We've Got Ways to Restore Your Spirits"Chicago Tribune। Newsbank। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৬-১৩ 
  14. Kamin, Blair (২০০৯-০৪-০৮)। "The Bean to get new neighbors - Star architects' two pavilions will summer in park"Chicago Tribune। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৫-১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

স্থানাঙ্ক: ৪১°৫২′৫৮″ উত্তর ৮৭°৩৭′২২″ পশ্চিম / ৪১.৮৮২৭° উত্তর ৮৭.৬২২৯° পশ্চিম / 41.8827; -87.6229