বিষয়বস্তুতে চলুন

ঘওয়ার তেলক্ষেত্র

স্থানাঙ্ক: ২৫°২৬′ উত্তর ৪৯°৩৭′ পূর্ব / ২৫.৪৩° উত্তর ৪৯.৬২° পূর্ব / 25.43; 49.62
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ঘওয়ার খনিজ তেলক্ষেত্র
ঘওয়ার তেলক্ষেত্র সৌদি আরব-এ অবস্থিত
ঘওয়ার তেলক্ষেত্র
ঘওয়ার খনিজ তেলক্ষেত্রের অবস্থান
দেশ সৌদি আরব
অঞ্চলপূর্ব প্রদেশ
অবস্থানআল আহস
সমুদ্রতীরাতিক্রান্ত/ডাঙাবর্তীউপকূল অভিমুখে
স্থানাঙ্ক২৫°২৬′ উত্তর ৪৯°৩৭′ পূর্ব / ২৫.৪৩° উত্তর ৪৯.৬২° পূর্ব / 25.43; 49.62
পরিচালকসৌদি এরামকো
ক্ষেত্রের ইতিহাস
আবিষ্কার১৯৪৮
উৎপাদন সূচনা১৯৫১
সর্বোচ্চ উৎপাদনকারী বছর২০০৫ (প্রতিদ্বন্দ্বিতা)
উৎপাদন
বর্তমান তেল উৎপাদন৫০০০০০০ টি ব্যারেল প্রতি দিন (~{{এক্সপ্রেশন ত্রুটি: অপরিচিত বিরামচিহ্ন অক্ষর "৫"।|এক্সপ্রেশন ত্রুটি: অপরিচিত বিরামচিহ্ন অক্ষর "৫"।|২}} টন/a)
বর্তমান গ্যাস উৎপাদন২,০০০ নিযুত cubic feet per day (৫৭ নিযুত cubic metres per day)
Estimated oil in placeটেমপ্লেট:Bbl to t/LoffAoffSoff
Estimated gas in place১,১০,০০০×১০^ ঘনফুট (৩,১০০×১০^ মি)
Producing formationsউচ্চ/মধ্য জুরাসিক, উচ্চ/নিম্ন পারমিয়ান, নিম্ন ডিভোনিয়ান
বহিঃস্থ চিত্র
image icon ঘওয়ার ক্ষেত্রের মানচিত্র এবং আঞ্চলিক সেটিং
image icon গওয়ার হয়ে আঞ্চলিক অতিক্রম বিভাগ

ঘওয়ার (আরবী: الغوار) সৌদি আরবের পূর্ব প্রদেশের আল-আহসা গভর্নোরেটে অবস্থিত একটি তেল ক্ষেত্র। ১৯৪ বর্গ মাইল এলাকা জুড়ে বিশ্বের সর্ববৃহৎ প্রচলিত তেল ক্ষেত্র এবং সৌদি আরবের তেল উৎপাদনের অর্ধেকের বেশি হয় এই তেল খনি থেকে। ঘওয়ার সম্পূর্ণরূপে রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি সৌদি এরামকো দ্বারা মালিকানাধীন এবং পরিচালিত। তুলনামূলকভাবে সামান্য প্রযুক্তিগত তথ্য সর্বজনীনভাবে উপলভ্য, কারণ কোম্পানি এবং সৌদি সরকার ক্ষেত্রের তথ্য এবং প্রতি-ক্ষেত্রের উৎপাদন বিবরণকে গোপন রাখে। উপলব্ধ তথ্য প্রধানত ঐতিহাসিক (প্রাক জাতীয়করণের), আনুষঙ্গিক প্রযুক্তিগত প্রকাশনা থেকে পাওয়া অথবা কল্পনীয়।

ইতিহাস

[সম্পাদনা]

ঐতিহাসিকভাবে, ঘওয়ারকে উত্তর থেকে দক্ষিণে পাঁচটি উৎপাদন এলাকায় বিভক্ত করা হয়েছে: 'আইন দার এবং শেদগম, উসমানিয়া, হাওয়া ও হারাদ। আল-আহসা এবং আল-হফফ শহরের প্রধান মরূদ্যান ঘাওয়ারের পূর্ব পার্শ্বে অবস্থিত উথমনিয়াহ উৎপাদন এলাকার সাথে সংশ্লিষ্ট। ঘাওয়ার ১৯৪৮ সালে আবিষ্কৃত হয় এবং ১৯৫১ সালে উৎপাদন হয়।[১][২] কিছু সূত্র দাবি করে ২০০৫ সালে ঘাওয়ার উৎপাদন শীর্ষে পৌঁছেছিল, যদিও এটি ক্ষেত্র তেল উৎপাদক সংস্থা দৃঢ়ভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।[৩][৪]

সৌদী আরাকো ২০০৮ সালের মাঝামাঝিতে ঘোষণা করে যে ঘওয়ার তার প্রমাণিত সঞ্চয়ের ৪৮% উৎপাদন করেছে। .[৫]

উত্পাদনের

[সম্পাদনা]

সংরক্ষণাগার

[সম্পাদনা]

এপ্রিল ২০১০ সালে, এরামকোর সহ-সভাপতি সাদ আল-ট্রেইকি সৌদি মিডিয়াতে একটি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বলেছিলেন, ১৯৫১ সাল থেকে ৬৫ বিলিয়ন ব্যারেলের (১০.৩ কিলোমিটার) খনিজ তেল এই এলাকা থেকে উৎপাদিত হয়েছে। ট্রেইকি আরও বলেছে যে ক্ষেত্রের মোট খনিজ তেলের সঞ্চয় ১০০০ বিলিয়ন ব্যারেল (১৬ কিলোমিটার ৩) অতিক্রম করেছে।

২০০৮ সালের বিশ্ব শক্তি আউটলুকের আন্তর্জাতিক শক্তি সংস্থা জানায় যে ঘাওয়ার থেকে তেল উৎপাদন ২০০৭ সাল পর্যন্ত হয়েছে ৬৬ টি বি.ও.বরে এবং অবশিষ্ট রয়েছে ৭৪ টি বিবি।

তথ্যসূত্র

[সম্পাদনা]
  1. Louise Durham (জানুয়ারি ২০০৫)। "The Elephant of All Elephants"AAPG Explorer। মার্চ ২, ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. Glenn Morton (২০০৪-০৭-২৪)। "Trouble in the World's Largest Oil Field-Ghawar"। Energy Bulletin। ২০০৮-১০-১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১১-২৫ 
  3. Donald Coxe (২০০৫-০৩-৩১)। "Has Ghawar truly peaked?" 
  4. Porter, Adam (এপ্রিল ১২, ২০০৫)। "Bank says Saudi's top field in decline"English Al-Jazeera। ২০০৬-০৮-১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-০৯-০৫ 
  5. "Saudi Arabia Energy Data, Statistics and Analysis - Oil, Gas, Electricity, Coal"। ২০০৮-০৮-০১।