গোরক্ষপুর–আনন্দ বিহার টার্মিনাল হামসফর এক্সপ্রেস (ভায়া বস্তী)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
গোরক্ষপুর–আনন্দ বিহার টার্মিনাল হামসফর এক্সপ্রেস (ভায়া বস্তী)
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
পরিষেবা ধরনএক্সপ্রেস
প্রথম পরিষেবা২০ ডিসেম্বর ২০১৬; ৫ বছর আগে (2016-12-20)
বর্তমান পরিচালকউত্তর পূর্ব রেল
যাত্রাপথ
শুরুগোরক্ষপুর জংশন (জিকেপি)
বিরতি
শেষআনন্দ বিহার টার্মিনাল (এভিএনটি)
ভ্রমণ দূরত্ব৭৭০ কিমি (৪৭৮ মা)
যাত্রার গড় সময়১২ ঘন্টা ৫০ মিনিট
পরিষেবার হারসাপ্তাহিক [ক]
রেল নং১২৫৯৫ / ১২৫৯৬
যাত্রাপথের সেবা
শ্রেণীএসি ৩ টায়ার
আসন বিন্যাসনেই
ঘুমানোর ব্যবস্থাআছে
খাদ্য সুবিধাউপলব্ধ
পর্যবেক্ষণ সুবিধাবড় জানালা
মালপত্রের সুবিধাআছে
অন্যান্য সুবিধাআছে
কারিগরি
গাড়িসম্ভারএলএইচবি হামসফর
ট্র্যাক গেজ১,৬৭৬ মিলিমিটার (৫ ফুট ৬ ইঞ্চি)
পরিচালন গতি৬২ কিমি/ঘ (৩৯ মা/ঘ)

গোরক্ষপুর–আনন্দ বিহার টার্মিনাল হামসফর এক্সপ্রেস (ভায়া বস্তী) ভারতীয় রেলওয়ের একটি সুপারফাস্ট এক্সপ্রেস ট্রেন যা উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুর‌ এবং দিল্লির আনন্দ বিহার টার্মিনালকে রেলপথে যুক্ত করে। এটি বর্তমানে সপ্তাহে তিনবার ১২৫৯৫/১২৫৯৬ ট্রেন নম্বরাঙ্কিত হয়ে পরিচালিত হচ্ছে। এর সাথে গোরক্ষপুর–আনন্দ বিহার টার্মিনাল হামসফর এক্সপ্রেস (ভায়া বাড়নী)-এর সাথে রেক বিনিময় হয়।[১][২]

কোচের বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

ট্রেনগুলি সম্পূর্ণরূপে ভারতীয় রেলওয়ে দ্বারা নকশা করা ৩-স্তরের (টায়ার) এসি স্লিপার ট্রেন এছাড়া রয়েছে স্টেশন, ট্রেনের গতি ইত্যাদির তথ্য দেখানোর জন্য ডিসপ্লের বৈশিষ্ট্য সহ এলইডি স্ক্রিন এবং সেই সাথে প্রতি কামরায় থাকবে ঘোষণার ব্যবস্থা, চা-কফি এবং দুধের ভেন্ডিং মেশিন, বায়ো টয়লেট ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধার পাশাপাশি সিসিটিভি ক্যামেরা।

পরিষেবা[সম্পাদনা]

১২৫৯৫ নং গোরক্ষপুর–আনন্দ বিহার টার্মিনাল হামসফর এক্সপ্রেস (ভায়া বস্তী) মঙ্গলবার যাত্রা শুরু করে এবং ৬২ কিমি প্রতি ঘন্টা বেগে ১২ ঘন্টা ৫০ মিনিটে ৭৭০ কিমি এবং ১২৫৯৬ নং ৬৫ কিমি প্রতি ঘন্টা বেগে শুক্রবার থেকে শুরু করে ও ১১ ঘন্টা ৫০ মিনিটে ৭৭০ কিমি অতিক্রম করে।

লোকো লিংক[সম্পাদনা]

এই ট্রেনটি তার সম্পূর্ণ যাত্রাপথে ডব্লিউএপি-৭ দ্বারা গাজিয়াবাদে হল্ট করে।

স্টপেজ[সম্পাদনা]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. উভয় দিকে সপ্তাহে তিন দিন

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]