গোপিনাথ কবিরাজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
গোপীনাথ কবিরাজ
Gopinath Kaviraj 1988 stamp of India.jpg
জন্ম৭ সেপ্টেম্বর ১৮৮৭
দাইন্যা,টাঙ্গাইল
মৃত্যু২২ জুন ১৯৭৬
জাতীয়তাভারতীয়
নাগরিকত্বভারতীয়
পিতা-মাতাবৈকুন্ঠনাথ কবিরাজ (পিতা)
পুরস্কারপদ্মভূষণ(১৯৬৪)
দেশিকোত্তম (১৯৭৬)

গোপীনাথ কবিরাজ সংস্কৃত- তন্ত্র পণ্ডিত ও দার্শনিক ছিলেন । ১৯১৪ সালে প্রথম একজন গ্রন্থাগারিক হিসাবে নিযুক্ত হন, তিনি ১৯৩৩ থেকে ১৯৩৭ সাল পর্যন্ত সরকারি সংস্কৃত কলেজ, বারাণসীর অধ্যক্ষ ছিলেন। তিনি সেই সময়কালে সরস্বতী ভাবনা গ্রন্থমালার (সরস্বতী ভাবনা পাঠ্য) সম্পাদকও ছিলেন । ১৯৬৪ সালে তিনি সাহিত্য অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন , ১৯৭১ সালে তাকে সাহিত্য একাডেমি ফেলোশিপ প্রদান করা হয়, ভারতের সাহিত্য একাডেমি, ভারতের জাতীয় একাডেমি অফ লেটারস কর্তৃক প্রদত্ত সর্বোচ্চ সাহিত্যের সম্মান।

জন্ম[সম্পাদনা]

তিনি বৃটিশ ভারতের বরর্তমানের বাংলাদেশের ময়মনসিংহ জেলারটাঙ্গাইল সদর উপজেলার দাইন্যা গ্রামে ১৮৮৭ সালে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা বৈকুন্ঠনাথ দর্শনশাস্ত্রে পণ্ডিত ও ব্রজেন্দ্রনাথ শীলের সহপাঠী ছিলেন। জন্মের কয়েক মাস আগেই তাঁর পিতার মৃত্যু হয়।তাঁদের কৌলিক পদবি ছিল বাগচী। ‘কবিরাজ’ খেতাব নবাবি আমলের।

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

গোপীনাথ ঢাকার জুবিলি স্কুল থেকে প্রবেশিকা পাশ করে কলকাতায় পড়তে আসেন। স্কুল জীবনেই ‘ধূমকেতু’ ও অন্যান্য কাগজে লিখতেন। কলকাতায় ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হলে জয়পুর স্টেটের দেওয়ান সংসারচন্দ্র সেনের আনুকূল্যে জয়পুরে গিয়ে সেখান থেকে বি.এ. পাশ করেন। পরেকাশীর কুইন্স কলেজ থেকে সংস্কৃতে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম হন। এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯১৩ খ্রিস্টাব্দে এম.এ.ডিগ্রি পান। [১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯১৪ খ্রিস্টাব্দে কাশীর সরস্বতী ভবনের গ্রন্থাগারিক এবং ওই বছরেই সরকারী সংস্কৃত কলেজের অধ্যক্ষ হন। ওই কাজ ভালো না লাগায় অবসর নিয়ে দর্শন ও ধর্মালোচনায় এবং ধর্মসাধনায় আত্মনিয়োগ করেন। প্রসঙ্গত গোপীনাথ যৌবনেই ১৯১৮ খ্রিস্টাব্দে যোগী বিশুদ্ধানন্দের কাছে দীক্ষা নেন। [১]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

১৯৩৪ খ্রিস্টাব্দে ভারত সরকার তাঁকে ‘মহামহোপাধ্যায়’, ১৯৪৭ খ্রিস্টাব্দে এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয় ‘ডি.লিট’, ১৯৬৪ খ্রিস্টাব্দে ভারত সরকার ‘পদ্মভূষণ’,১৯৬৫ খ্রিস্টাব্দে উত্তর প্রদেশ সরকার ‘সাহিত্য বাচস্পতি’ এবং ১৯৭৬ খ্রিস্টাব্দেবিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় দেশিকোত্তম উপাধি প্রদান করে।

উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ[সম্পাদনা]

  • শ্রী শ্রী বিশুদ্ধানন্দ প্রসঙ্গ (৫খন্ড)
  • ভারতীয় সাধনার ধারা
  • শ্রী কৃষ্ণ প্রসঙ্গ
  • তান্ত্রিক সাধনা
  • মৃত্যু বিজ্ঞান ও পরমবাদ
  • ত্রিপুরা রহস্য (সংস্কৃতে)
  • গোরখ সিদ্ধান্ত সংগ্রহ (সংস্কৃতে)
  • Saraswati Bhawan Studies (10 Vols)
  • Aspects of Human Thought

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. সুবোধ সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু সম্পাদিত, সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান, প্রথম খণ্ড, সাহিত্য সংসদ, কলকাতা, আগস্ট ২০১৬, পৃষ্ঠা ১৯৭, আইএসবিএন ৯৭৮-৮১-৭৯৫৫-১৩৫-৬