গুজারিশ (২০১০-এর চলচ্চিত্র)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
গুজারিশ
গুজারিশ (২০১০-এর চলচ্চিত্র).jpg
চলচ্চিত্রের পোস্টার
পরিচালক সঞ্জয় লীলা ভন্সালী
প্রযোজক সঞ্জয় লীলা ভন্সালী
রনি শেকরাওয়ালা
চিত্রনাট্যকার সঞ্জয় লীলা ভন্সালী
ভাই আইয়ার
শ্রেষ্ঠাংশে হৃতিক রোশন
ঐশ্বর্যা রাই বচ্চন
আদিত্য রয় কাপুর
সুরকার গান:
সঞ্জয় লীলা বনশালি
আবহসঙ্গীত:
তুবে-পারিক
চিত্রগ্রাহক সুদীপ চ্যটার্জী
সম্পাদক হিমেল কোঠারি
প্রযোজনা
কোম্পানি
এস এল বি ফিল্মস
পরিবেশক ইউটিভি মোশন পিকচার্স
মুক্তি
  • ১৯ নভেম্বর ২০১০ (২০১০-১১-১৯)
দৈর্ঘ্য ১১৬ মিনিট
দেশ ভারত
ভাষা হিন্দী
নির্মাণব্যয় ৫০০ মিলিয়ন (US$৭.৬৬ মিলিয়ন)[১]

গুজারিশ (ইংরেজি: Petition;বাংলা: আবেদন) হল ২০১০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত সঞ্জয় লীলা ভন্সালী পরিচালিত একটি হিন্দী চলচ্চিত্র ৷ এই চলচ্চিত্রে হৃতিক রোশন , ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন , আদিত্য রায় কাপুর প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ৷ এই চলচ্চিত্র ১৯ নভেম্বর, ২০১০ সালে মুক্তি পায় ৷

কাহিনী[সম্পাদনা]

এই চলচ্চিত্রটি চিত্রায়িত করা হয়েছে ভারতের গোয়া শহরে ৷ ইথান মাসকিউরেনাস (হৃতিক রোশন) একজন মহান জাদুকর যে ১২ বছর আগে ম্যজিক শো তে এক দূর্ঘটনার শিকার হন ও তার সারা দেহ প্যরালাইসড হয়ে যায় ৷ তিনি ১২ বছর ধরে তার নিজের ঘরে এক খাটের উপর শয্যাশায়ী ৷ তিনি তার দেহকে নাড়াতে পারেন না ৷ সোফিয়া (ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন) ১২ বছর ধরে ইথানকে সেবা করেন ও দেখাশোনা করেন ৷ দুর্ঘটনার ১৪ বছর পর ইথান তার সমস্ত কষ্টের অবসানের জন্য ইথোনেশিয়া (স্বইচ্ছায় মৃত্যু) নামে একটি ব্যবস্থা গ্রহন করেন এবং কোর্টে আবেদন করেন ৷ তার এই কাজে সাহায্য করেন তার উকিল বান্ধবী দেবানী দত্ত ৷ কিন্তু কোর্ট ঐ আবেদন নাকোচ করে দেয় ৷ তারপর ইথান তার মৃত্যুর পক্ষে ও বিপক্ষে রেডিওতে ভোট চাওয়া শুরু করেন ৷ এই ঘটনার পূর্বেই আবির্ভাব হয় ওমর সিদ্দিকীর(আদিত্য কাপুর)৷ শেষ পর্যন্ত কোর্ট এই মৃত্যুর বিপক্ষে রায় দেয় ৷

অভিনয়ে[সম্পাদনা]

সংগীত[সম্পাদনা]

সংগীতের পরিচিতি
নং.শিরোনামগায়কদৈর্ঘ্য
১."গুজারিশ হ্যায় এ বারিস"কে.কে, সাহিল হাদা৪:১৯
২."স গাম সামাল কে" (কথা: বিধু পুরী)কুনাল গাঞ্জাওয়ালা৪:৪২
৩."তেরা জিকির হ্যায"রাকেশ পন্ডিত৪:৫৯
৪."সাইবা মাঝে সাইবা পালা"সাহিল হাদা৩:২৬
৫."জানে কিসকে খাব তাকায়ে"কে.কে২:৫৮
৬."উদি তেরে আখো সে"সুনীতি চৌহান৩:২২
৭."ক্যয় না লাকু মে"সুহিল হাদা৩:৪৭
মোট দৈর্ঘ্য:৪০:১৯

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Box-office battle in new dimension this festival season"The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ২৫ আগস্ট ২০১০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]