গার্লসডুপর্ন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
গার্লসডুপর্ন
শিল্পপর্নোগ্রাফি
প্রতিষ্ঠাকাল২০০৯
প্রতিষ্ঠাতামাইকেল প্র্যাট
বিলুপ্তিকাল২০২০
সদরদপ্তর,
প্রধান ব্যক্তি
মাইকেল প্র্যাট
ম্যাথু ওল্ফ
আন্দ্রে গার্সিয়া
ভ্যালারি মসার
মালিকমাইকেল প্র্যাট
ম্যাথু ওল্ফ

গার্লসডুপর্ন ছিল একটি পর্নোগ্রাফি ওয়েবসাইট, যা ২০০৯ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত সক্রিয় ছিল। নভেম্বর ২০১৯ সালে ছয়জনকে জড়িয়ে জোর জবরদস্তি ও জালিয়াতি করে যৌন পাচারের অভিযোগ আনা হয়েছিল। [১][২][৩][৪] ডিসেম্বর ২০১৯, আরও দু'জনের বিরুদ্ধে যৌন পাচার আইন প্রয়োগে বাধা দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছিল। [৫] ওয়েবসাইটটি ২০২০ সালের জানুয়ারিতে ইন্টানেট থেকে সরানো হয়েছিল। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগের মতে, ওয়েবসাইটটি এবং এর ভগিনী ওয়েবসাইট গার্লসডুটয়েস ১৭ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি রাজস্ব দিয়েছিল। [৬] ভিডিও গার্লসডুপর্ন ডট কম সহ পর্নোগ্রাফি ওয়েবসাইট যেমন পর্নহাবে দেখানো হয়েছে, যেখানে চ্যানেলটি শীর্ষ ২০ সর্বাধিক দেখা চ্যানেলে পৌঁছেছিল, যার প্রায় ৬৮০ মিলিয়ন ভিউ ছিল। [৭][৮]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

গার্লসডুপর্ন ছিল মাইকেল প্রেটের (জন্ম: ১৯৮২, নিউজিল্যান্ড) মালিকানাধীন একটি পর্নোগ্রাফি ওয়েবসাইট, যিনি ক্যামেরাম্যান এবং সম্পাদক হিসাবেও কাজ করেছেন। ম্যাথু ওল্ফ (জন্ম: ১৯৮২ বা ১৯৮৩, নিউজিল্যান্ড) সহ-মালিক এবং ক্যামেরাম্যান হিসাবে কাজ করেছেন। [৯][১০] তিনি প্র্যাটের ছেলেবেলার বন্ধুও। [১১] ডগ উইডারহোল্ড এবং রুবেন আন্দ্রে গার্সিয়া (জন্ম: ১৯৮৬ বা ১৯৮৭) এই সংস্থার প্রধান পুরুষ পর্নোগ্রাফি অভিনেতা ছিলেন। [১২] আইনজীবী অ্যারন সাদোক ২০১২ সালে এই কোম্পানির হয়ে কাজ শুরু করেছিলেন, যখন ক্যামেরাম্যান থিওডোর "টেডি" গাই ২০১৫ থেকে ২০১৭ সালের মধ্যে প্রায় ১২০ টি ভিডিও চিত্রিত করেছেন। [১৩][১৪] প্র্যাট ২০০৭ সালে গার্লসডুপর্নের পরিকল্পনা ও শুটিং শুরু করেছিলেন। ওয়েবসাইটটি ২০০৯ সালে চালু করা হয়েছিল। [১৫]

অন্যান্য ওয়েবসাইটে সামগ্রী[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Turner, Gustavo (অক্টোবর ১৭, ২০১৯)। "Here's What You Need to Know About the GirlsDoPorn Case"XBIZ। সংগ্রহের তারিখ মে ২, ২০২০ 
  2. Lee, Timothy B. (জানুয়ারি ১৬, ২০২০)। "GirlsDoPorn website goes offline after $13M judgment, criminal charges"Ars Technica। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৮, ২০২০ 
  3. "Court Documents" (PDF)Court Listener। সংগ্রহের তারিখ মে ২, ২০২০ 
  4. "GirlsDoPorn Verdict" (PDF)Courthouse News Service। সংগ্রহের তারিখ মে ২, ২০২০ 
  5. "Court Documents" (PDF)Courthouse News Service। সংগ্রহের তারিখ মে ২, ২০২০ 
  6. O'Connor, Meg (অক্টোবর ২১, ২০১৯)। "She Helped Expose Girls Do Porn, But She Can Never Outrun What It Did to Her"Vice। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ২১, ২০২০ 
  7. Cole, Samantha (জুন ২৮, ২০১৯)। "Girls Do Porn Goes to Trial Over Allegations Women Were Tricked Into Videos"Vice। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ২১, ২০২০ 
  8. Valens, Ana (অক্টোবর ১৫, ২০১৯)। "Pornhub pulls Girls Do Porn videos amid sex trafficking charges"The Daily Dot। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০ 
  9. Sacks, Brianna (জানুয়ারি ৩, ২০২০)। "A Group Of Women Sued Girls Do Porn For Coercing Them Into Doing Videos. Now They Own All The Rights."BuzzFeed News। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ২১, ২০২০ 
  10. Hargrove, Dorian; Payton, Mari (ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৯)। "Uncovering A San Diego Porn Scheme: Deception, Humiliation Follow Online Ads"NBC 7 San Diego। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ২১, ২০২০ 
  11. Bruno, Bianca (অক্টোবর ২, ২০১৯)। "Porn Company Employee Says Recruiting Continues During Fraud Trial"Courthouse News Service। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ২১, ২০২০ 
  12. Turner, Gustavo (নভেম্বর ২২, ২০১৯)। "GirlsDoPorn Defense Offers Witness Who Filmed Only for MILF Site"XBIZ। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৮, ২০২০ 
  13. Bruno, Bianca (আগস্ট ২৯, ২০১৯)। "Filmmaker Says Women Were Hustled in Porn Scheme"Courthouse News Service। সংগ্রহের তারিখ মে ২, ২০২০ 
  14. Cole, Samantha (জানুয়ারি ২২, ২০২১)। "Girls Do Porn Cameraman Pleads Guilty, Admits to Lying to Women"Vice। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১ 
  15. Hargrove, Dorian (জানুয়ারি ৪, ২০১৭)। "San Diego's porn studios"San Diego Reader। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ২০, ২০২০